গভর্নিং বডির নির্বাচন পেছানোর দাবি অভিভাবক ঐক্য ফোরামের

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৩৬ এএম, ১১ অক্টোবর ২০২১
ফাইল ছবি

বেসরকারি উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে গভর্নিং বডির নির্বাচন পেছাতে শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান বরাবর আবেদন জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীর অভিভাবকদের সংগঠন অভিভাবক ঐক্য ফোরাম।

রোববার (১০ অক্টোবর) অভিভাবক ঐক্য ফোরামের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. জিয়াউল হক দুলুর স্বাক্ষরিত একটি আবেদন শিক্ষাবোর্ডে পাঠানো হয়।

এতে বলা হয়, ২০২১ সালের ১২ সেপ্টেম্বর এক চিঠির মাধ্যমে বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গভর্নিং বডি প্রবিধিমালা ২০০৯- এর ৪ নম্বর ধারা অনুসরণ করে গভর্নিং বডি গঠনের অনুমতি দিয়েছেন শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান। বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের গভর্নিং বডি প্রবিধানমালা ২০০৯-এর ৪ নম্বর ধারায় ‘ঘ’ এর শর্তে বলা আছে- উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের কোনো বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান মাধ্যমিক স্তরের সঙ্গে যুক্ত থাকলে উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণির অভিভাবকদের ভোটে একাদশ শ্রেণির দুজন অভিভাবক সদস্য নির্বাচিত হবেন।

আবেদনে আরও বলা হয়, বর্তমানে উচ্চ মাধ্যমিক প্রতিষ্ঠানে ২০১৯-২০ সেশনের শিক্ষার্থী আছে যাদের একাদশের সেশন জুন ২০২০ এ শেষ হয়ে যায়। অন্যদিকে ২০২০-২১ সেশনের শিক্ষার্থী আছে যাদের একাদশ সেশন ২০২১ সালের জুনে শেষ হয়ে বর্তমানে দ্বাদশ শ্রেণিতে আছে।

এদিকে ২০২১ সালের ২২ সেপ্টেম্বর পাঠানো চিঠি অনুযায়ী, শুধু ২০২০-২১ সেশনের শিক্ষার্থীর অভিভাবক ভোট দিতে পারবেন এবং প্রার্থী হতে পারবেন, যা ২০০৯ এর ৪ নম্বর ধারার সঙ্গে সাংঘর্ষিক বলে আবেদনে উল্লেখ করা হয়।

আরও বলা হয়, ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের অভিভাবক গভর্নিং বডির সদস্য নির্বাচিত হলে মাত্র ছয় মাস তার অভিভাবকত্ব থাকবে। এ বছরের নভেম্বরে এসএসসি পরীক্ষা হলে আশা করা যায় আগামী বছরের জানুয়ারিতে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি করানো সম্ভব হবে। মাত্র তিন মাস পর অর্থাৎ শিক্ষার্থী ভর্তির পর নির্বাচন দিলে বিধিমালা ২০০৯ এর ৪ নং অনুযায়ী নির্বাচন করা সম্ভব হবে।

বিষয়টি বিবেচনা করে পরবর্তী একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির পর স্কুল-কলেজ-মাদরাসার গভর্নিং বডি নির্বাচনের ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ জানায় অভিভাবক ফোরাম।

এমআইএস/জেডএইচ/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]