স্যার, একটি সেলফি তুলি?

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:২৯ এএম, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

বইমেলার সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশে প্যাভিলিয়ন নম্বর ১৪। এটা অধ্যয়ন প্রকাশনীর একমাত্র পরিবেশক তাম্রলিপির প্যাভিলিয়ন। এর সামনের দিকে একটু ফাঁকা জায়গায় জটলা বেঁধে কাকে জেন ঘিরে রেখেছে মেলায় আসা তরুণ-তরুণী ও কিশোর-কিশোরীরা।

জটলা দেখে এগিয়ে গিয়ে জানা গেল, বইপ্রেমীদের ঘিরে ধরা এই মানুষটি জনপ্রিয় লেখক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল।

শ্রদ্ধা-ভালোবাসা আর সম্মান নিয়েই তরুণ-তরুণীরা দুটি আবদার নিয়ে ঘিরে ধরেছেন জনপ্রিয় এই লেখককে। ঘিরে ধরা তরুণ-তরুণীদের আবদার, ‘স্যার একটা অটোগ্রাফ, স্যার একটি সেলফি তুলি’?

ক্ষুদে এসব ভক্তের আবদার মেটাতে রীতিমতো হিমশিম খাচ্ছেন জনপ্রিয় এই লেখক। তবুও ভালোবেসে কাছে টেনে নিয়ে দিচ্ছেন অটোগ্রাফ, তাদের আবদার মেটাতে তুলছেন সেলফিও।

এই ব্যস্ততার মাঝেও জনপ্রিয় লেখক মুহম্মাদ জাফর ইকবালের সঙ্গে কথা হয় জাগো নিউজের।

z

মুহম্মদ জাফর ইকবাল বলেন, ছোটদের এমন আবদার মেটাতে, তাদের এভাবে অটোগ্রাফ দিতে সত্যিই আমার অনেক ভালো লাগে। যখন কেউ একটি বই কিনে নিয়ে এসে আমার সামনে ভিড় করে অটোগ্রাফ চায়, সেলফি তুলতে চায় তখন কী যে ভালো লাগে তা প্রকাশ করার মতো নয়। খুব ভালো লাগে এই ভেবে যে এসব তরুণরা বই পড়ে।

তিনি বলেন, তারা এসে ছবি তুলুক এতে আমার কোনো আপত্তি নেই। কিন্তু তার হাতের দিকে আগে তাকিয়ে দেখি হাতে বইয়ের ব্যাগ আছে কি না? আমি চাই আমাদের তরুণ, নতুন প্রজন্মরা বই পড়ুক।

আপনার এবার কী কী বই এসেছে- জানতে চাইলে মুহম্মদ জাফর ইকবাল বলেন, আমার বেশ কয়েকটা বই এসেছে মোটামুটি ৫/৬টা। এর মধ্যে রয়েছে সাইন্স ফিকশন। এছাড়া কিশোর উপন্যাসও লিখেছি।

এএস/বিএ

আপনার মতামত লিখুন :