চলচ্চিত্রে প্রতিষ্ঠার নতুন যুদ্ধে শিমুল খান

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:২৩ পিএম, ০৯ অক্টোবর ২০১৮

ঢাকাই চলচ্চিত্রে নতুন প্রজন্মের অভিনেতা তিনি। নেগেটিভ চরিত্রে কাজ করে পেয়েছেন জনপ্রিয়তা। এরইমধ্যে বেশ কিছু ছবিতে তিনি নিজেকে প্রমাণ করেছেন। মুক্তির অপেক্ষায় আছে ‘দহন’সহ আরও কিছু সিনেমা। সেগুলো দিয়ে নতুন করে নিজেকে আলোচনায় আনবেন এমনটাই প্রত্যাশা শিমুলের।

তবে প্রায় পাঁচ বছরের ক্যারিয়ার নিয়ে নতুন করে ভাবছেন শিমুল। এসেছে নতুন উপলব্দিও। নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করার লড়াইয়ে নতুন মিশনও শুরু করেছেন তিনি। শিমুল জাগো নিউজকে বলেন, ‘এতদিন টিকে থাকার লড়াই করেছি। এবার হবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করার সংগ্রাাম। নানা কারণে নিজের সঙ্গে বেমানান, গুরুত্বহীন কাজ করতে হয়েছে। তবে এখন থেকে আর করবো না। চরিত্রে গুরুত্ব না থাকলে হাজার বছর অভিনয় করেও নিজের মেধা বা যোগ্যতার বিকাশ ঘটানো সম্ভব নয়।’

শিমুল আরও বলেন, ‘ছবি এমনিতেই কম ইন্ডাস্ট্রিতে। আছে নানা রকম ক্রাইসিস। তার উপর গুরুত্বহীন, বন্ধুত্বের আদিখ্যেতা দেখিয়ে কাজ করা পেশাদারীত্বের জায়গায় আমার জন্য হুমকি। কারণ সিনেমাকেই আমি পেশা হিসেবে নিয়েছি। এখানে অভিনয় করেই দু মুঠো খেয়ে পড়ে বেঁচে থাকার স্বপ্ন দেখি আমি। তাই কাজ চাই মানসম্পন্ন ছবিতে, আকর্ষণীয় চরিত্রে। সেইসঙ্গে মেধাবী নির্মাতাদের সঙ্গেও কাজ বাড়াতে চাই। বেশ কিছু পরিকল্পনা আমি করেছি। সে পরিকল্পনার বাস্তবায়ন ঘটবে এবার।’

সম্প্রতি নিজের ফেসবুকে একটি দীর্ঘ স্ট্যাটাস দিয়েও এই উপলব্দির কথা জানিয়েছেন শিমুল খান। তিনি লিখেছেন, ‘বর্তমানে আমার অভিনীত শুটিং সম্পুর্ণ শেষ হয়ে মুক্তির জন্য অপেক্ষায় আছে সর্বমোট ৮টি সিনেমা, আর শুটিং প্রায় শেষের দিকে এমন চলচ্চিত্রের সংখ্যা মোট ৯টি। এই সর্বমোট ১৭টি সিনেমার মধ্যে; মাত্র ৩টি ছবি মুক্তি পাওয়াই এখন বাকি আছে যেগুলোতে আমি অপেক্ষাকৃত ছোট, সাপোর্টিং কিংবা অতিথি শিল্পী চরিত্রে অভিনয় করেছি।

অলরেডি ছোট চরিত্র কিংবা অপেক্ষাকৃত কম গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে আর কোনো ছবিতে গত ৬ মাসে চুক্তিবদ্ধ হইনি আর হবার কোনো ইচ্ছাও নেই। চলচ্চিত্রে ৬টি বছর পার করে দিলাম পর্দায় টিকে থাকার জন্য এবং আল্লাহর রহমতে, মায়ের দোয়া এবং নিজের অক্লান্ত চেষ্টায় আলহামদুলিল্লাহ কখনোই বেকার থাকিনি। বরং অনেক আর্টিস্ট যেখানে কর্মশূন্য হয়ে পথভ্রষ্ট হয়েছেন, হয়েছেন কক্ষপথ থেকে বিচ্ছিন্ন সেখানে আমি শিমুল খান কখনোই কর্মহীন জীবন কাটাইনি কিংবা নিজ লক্ষ্যের কক্ষপথ থেকে কখনোই বিচ্ছিন্ন হইনি।’

তিনি আরও লেখেন, ‘এত অল্প সময়ে এত কাজের মাঝে অনেক সময়ই বড় পর্দায় নিজের নিয়মিত উপস্থিতির জন্য কিংবা চলচ্চিত্র আমার একমাত্র পেশা ও জীবন জীবিকার অদ্বিতীয় উৎস বিধায় অনেক ছবিতেই ছোট কিংবা অগুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে পরিস্থিতির সাথে যুদ্ধ করার নিমিত্তে নিরুপায় হয়েই অভিনয় করতে বাধ্য হয়েছি। তাছাড়া জেনেশুনে কিছু মানহীন ছবিতেও কাজ করেছি, যার জন্য আমি দর্শকের কাছে দুঃখিত। তবে যখন যেটাই করেছি চলচ্চিত্রের স্বার্থেই করেছি এবং চলচ্চিত্রকে ভালবেসেই করেছি। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত এখানে আমি আমার শতভাগ দিয়ে যুদ্ধ করেই যাবো।’

নিজেকে প্রতিষ্ঠার প্রত্যয় ব্যক্ত করে এই অভিনেতা বলেন, ‘আমার ক্ষুদ্র সংখ্যক ভক্ত কিংবা ভবিষ্যৎ ভক্তদের প্রতি ঘোষণা দিচ্ছি ক্যারিয়ারের প্রাথমিক সংগ্রাম পর্ব শেষ করে দ্বিতীয় এবং চূড়ান্ত যুদ্ধে নেমেছি আমি। সেই যুদ্ধ শুধুই জয়ের। সেই সাথে শপথ করছি, আপনারা আমাকে আজ থেকে একদম নতুন শিমুল খানকে দেখতে পারবেন ঠিক যেমনটি আমার কাছ থেকে আশা করেছিলেন আমার মুক্তিপ্রাপ্ত প্রথম ছবি সুপারহিট ‘দেহরক্ষী’ দেখার পর থেকে। ঠিক তারচেয়েও বেশি কিছু হিসেবে নিজেকে হাজির করবো।’

আসছে নভেম্বরেই মুক্তি পাবে ‘দহন’ ছবিটি। রায়হান রাফি পরিচালিত জাজ মাল্টিমিডিয়ার এই ছবিটিতে একজন পুলিশ অফিসারের ভূমিকায় দেখা যাবে শিমুল খানেকে। ছবিতে মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন সিয়াম আহমেদ। তার বিপরীতে রয়েছেন পূজা চেরী।

এলএ/পিআর

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - [email protected]

আপনার মতামত লিখুন :