‘নরকের সিঁড়ি’র রহস্য কী?

ফিচার ডেস্ক
ফিচার ডেস্ক ফিচার ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:৪৯ পিএম, ০৪ জুলাই ২০১৮

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনের মল্টবি সেমেটারির একটি কবরে ১৩টি সিঁড়ি রয়েছে। ওই ১৩টি ধাপকে ‘স্টেপস টু হেল’ বা ‘নরকের সিঁড়ি’ নামে ডাকা হয়। তবে এর রহস্য এখনো আবৃতই রয়ে গেছে। কিন্তু প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মাটি থেকে এই ১৩টি ধাপ নেমে গিয়েছে নিচে। সিঁড়ির শেষে একটি দরজা আছে, যা আসলে একটি পারিবারিক কবরের। কবরের কেন দরজা থাকবে? এটাই মূল রহস্য।

জানা যায়, এই সিঁড়ির পেছনে একটি গল্প রয়েছে। সে অনুসারে, মাঝরাতে কেউ যদি ওই ১৩টি সিঁড়ি বেয়ে নেমে যান, তাহলে জাগতিক সব শব্দ তার কান থেকে মুছে যাবে। মনে হবে, পৃথিবীর কিছুই আর জীবিত নেই। শেষ ধাপে পৌঁছে যদি পেছন ফিরে তাকান, তাহলে তার সামনে ফুটে ওঠে নরকের দৃশ্য।

এর সত্যতা যাচাই করতে অনেকে এগিয়ে এসেছেন। তারা প্রত্যেকেই নিচ থেকে উঠে এসেছেন ভয়াবহ অভিজ্ঞতা নিয়ে। এক ব্যক্তি ১৬ বছর বয়সে মাঝরাতে বন্ধুদের সঙ্গে সেই কবরখানায় গিয়েছিলেন। অনেক খুঁজে সেই সিঁড়িগুলোকে তারা বের করেন। কয়েক ধাপ পার হতেই তিনি অসুস্থ বোধ করেন। কয়েক ধাপ পরে মনে হয়, তার মাথাটা আর মাথার জায়গায় নেই। তীব্র ভয়ে তিনি ও তার বন্ধুরা ওই স্থান ত্যাগ করেন।

আরো একজন জানান, সিঁড়ির শেষ দিকের ধাপে তিনি শ্বাসরুদ্ধকর চিৎকার শুনতে পান। তার মনে হয়, তাকে অন্ধকার গ্রাস করে নিচ্ছে। তিনি ফিরে এলে উপরে দাঁড়ানো বন্ধুরা জানান, তিনি সম্পূর্ণ অদৃশ্য হয়ে গিয়েছিলেন কিছুক্ষণের জন্য।

এই ‘নরকের সিঁড়ি’র আসল রহস্য কী? আজও তার তল পাওয়া যায়নি। বিশেষজ্ঞরা বলেন, এটি নাকি একটি পোর্টাল, যা দিয়ে চলে যাওয়া যায় অন্য কোনো সময়ে। তবে সেটি ‘নরক’ কিনা, তা নিয়ে অবশ্য কোনো মন্তব্য কেউ কখনো করেননি।

এসইউ/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :