মঙ্গলবার মুক্তামণির ফের অপারেশন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:৪০ এএম, ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিরল রোগে আক্রান্ত মুক্তামণির তৃতীয় দফা অস্ত্রোপচার হবে আগামী মঙ্গলবার। এর আগে গত মঙ্গলবার(২৯ আগস্ট) অপারেশন শুরু করেও তা শেষ করতে পারেননি চিকিৎসকরা। অতিরিক্ত জ্বর বাড়ার কারণে মাঝপথেই বন্ধ করতে হয় অস্ত্রোপচার।

শনিবার ঈদুল আজহার নামাজ শেষে দুপুরে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ভালো আছে মুক্তামণি। ঈদে বাড়িতে যেতে না পারায় কষ্ট থাকলেও সুস্থতার জন্য ত্যাগ স্বীকার করছেন তারা। মুক্তামণির বাবা বলছেন, ঈদের আনন্দের চেয়ে বেশি আনন্দ হবে মুক্তামণির সুস্থতা।চিকিৎসার কারণে এবারই প্রথম হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে ঈদ কাটাতে হচ্ছে মুক্তামণিকে। বাবা-মা, জমজ বোন, ছোট ভাই ও চাচার সঙ্গেই হাসপাতালে ঈদ উদযাপন করছেন মুক্তামণি।

ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিট সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার (২৯ আগস্ট) সকাল ৮টার দিকে কেবিনে থাকা মুক্তামণির শারীরিক অবস্থা পর্যবেক্ষণ করেন ঢাকা মেডিকেল কলেজের (ঢামেক) অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ, ঢামেক হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন, একই ইউনিটের পরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম, জুনিয়র কনসালটেন্ট ডা. শারমিন সুমি। এ সময় মুক্তমণির শারীরিক অবস্থা পর্যবেক্ষণ করেন তারা। এরপর জ্বর অতিরিক্ত বাড়ায় অপারেশন বন্ধ করা হয়।

যোগাযোগ করা হলে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের সমন্বয়কারী ডা. সামন্ত লাল সেন জাগো নিউজকে বলেন, গত মঙ্গলবার সকালে রক্তনালির টিউমারে আক্রান্ত মুক্তামণির ডান হাতে দ্বিতীয় দফা অস্ত্রোপচার শুরু হয়েছিল। ২০ শতাংশ অপারেশন শেষ হতেই মুক্তামণির শরীরে অতিরিক্ত জ্বর ওঠায় অপারেশন বন্ধ করা হয়। অংশিক অপারেশন করা হয়। ঈদের পর আবারও অপারেশনের সিদ্ধান্ত হয়।

সে অনুযায়ী আগামী ৫ সেপ্টেম্বর (মঙ্গলবার) সব ঠিক থাকলে তৃতীয় দফায় অপারেশন করা হবে। সামন্ত লাল সেন আরও বলেন, সোমবার আমরা মুক্তামণির শরীর অপারেশনের জন্য ফিট রয়েছে কিনা তা পর্যবেক্ষণ করব। সব ঠিক থাকলে পরদিন মঙ্গলবার অপারেশন করা হবে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি বিভিন্ন গণমাধ্যমে বিরল চর্মরোগে আক্রান্ত সাতক্ষীরার শিশু মুক্তামণিকে নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। গত ৯ জুলাই জাগো নিউজে ‘লুকিয়ে রাখতে হয় মুক্তাকে’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। এ প্রতিবেদন প্রকাশের পর মুক্তার চিকিৎসা দেয়ার দায়িত্ব নেন স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব মো. সিরাজুল ইসলাম। পরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মুক্তামণির চিকিৎসার যাবতীয় ব্যয়ভার বহনের দায়িত্ব নেন।অবশেষে গত ১২ আগস্ট প্রথম অপারেশন সম্পন্ন হয় মুক্তার। চিকিৎসকরা ওই অপারেশনকে ‘সফল’ বলে দাবি করেন।

জেইউ/ওআর/পিআর

টাইমলাইন  

আপনার মতামত লিখুন :