এবার ‘গরু রাজনীতিতে’ কংগ্রেস

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:১৮ এএম, ২০ জানুয়ারি ২০১৯

এই মুহূর্তে ভারতের জাতীয় রাজনীতির অন্যতম প্রধান ইস্যু গরু। এতোদিন গরু নিয়ে রাজনীতি করার অভিযোগ ছিল বিজেপির বিরুদ্ধে। কিন্তু ধর্মনিরপেক্ষ রাজনীতির দাবিদার ভারতীয় কংগ্রেস পার্টিও এখন গরুকে নির্বাচনী যুদ্ধ জয়ের হাতিয়ার বানিয়েছে।

গত মাসেই রাজস্থানে প্রাদেশিক সরকার গঠন করেছে কংগ্রেস। মুখ্যমন্ত্রী হয়েছে অশোক গেহলট এবং উপমুখ্যমন্ত্রী সচিন পাইলট। এরপরই এই জুটি উদ্যোগী হয়েছেন গোরক্ষায়। বিপথগামী গরুদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা নেয়ার জন্য আলাদা দফতর চালু করছে রাজস্থান সরকার।

প্রশাসনের নির্দেশ অনুসারে, ওই রাজ্যের মালিকবিহীন ও অসুস্থ গরুদের উদ্ধার করে তাদের পালন করলে সাহায্য করবে সরকার। যারা গোরক্ষার জন্য এই বিশেষ উদ্যোগ নেবেন বিশেষ সুবিধা পাবেন তারা। পাশাপাশি তাদের পুরস্কার দেয়ারও পরিকল্পনা করেছে কংগ্রেস পরিচালিত রাজ্য সরকার।

এই প্রকল্পের জন্য রাজস্থানে চালু করা হয়েছে গোপালন দফতর। সেই দফতরের পক্ষ থেকে রাজ্যের সব জেলাশাসক এবং জেলা প্রশাসনের কর্তাদের লিখিত নির্দেশ দেয়া হয়েছে। ওই নির্দেশে প্রশাসনের পক্ষ থেকে গরুদের জন্য গোয়াল করে দেয়ার কথাও বলা হয়েছে।

অবশ্য এ ধরনের প্রকল্প রাজস্থানে নতুন কিছু নয়। এর আগে বিজেপি পরিচালিত সরকারও ভারতের রাজস্থানেই প্রথম গরুর জন্য পৃথক মন্ত্রণালয় চালু করেছিল। এখন সেই একই পথে হাঁটায় বিষয়টি নিয়ে কংগ্রেসের বিরুদ্ধে রাজনীতির অভিযোগ করেছে বিজেপি।

এদিকে বিজেপির সব অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন রাজস্থানের উপমুখ্যমন্ত্রী সচিন পাইলট। তার ভাষ্য, ‘মানুষের সহায়তায় বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জনকল্যাণে বিভিন্ন ধরনের পদক্ষেপ নেয়া হয়। গোরক্ষা তেমনই একটা কর্মসূচি মাত্র। তার দাবি বিজেপির নেতৃত্বাধীন আগের রাজ্য সরকার গোরক্ষার নামে সমাজে বিদ্বেষ ছড়িয়েছে।

এমএমজেড/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :