সস্ত্রীক রাজস্ব কর্মকর্তার দুর্নীতি : আত্মসমর্পণের নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:১৮ পিএম, ১৪ জানুয়ারি ২০১৯

অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) করা মামলায় চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউসের সাবেক এপ্রেইজার (বর্তমানে পরিবর্তিত পদ সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা) আমজাদ হোসেন হাজারী ও তার স্ত্রী হালিমা বেগম লিপিকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে তাদের চট্টগ্রামের সিনিয়র স্পেশাল জজ আদালতে উপস্থিত হয়ে আত্মসমর্পণের জন্য বলেছেন আদালত। ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক সাংবাদিকদের এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

আসামিদের পক্ষে করা আগাম জামিন আবেদন খারিজ করে সোমবার হাইকোর্টের বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কে এম হাফিজুল আলমের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে আজ আসামিদের পক্ষে আগাম জামিন আবেদনের শুনানি করেন অ্যাডভোকেট এসএম শাহজাহান। এ সময় রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল হেলেনা বেগম চায়না। আর দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী এ এস এম কামাল আমরুহী।

এর আগে চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউসের সাবেক এপ্রেইজার (বর্তমানে পরিবর্তিত পদ সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা) আমজাদ হোসেন হাজারী ও তার স্ত্রী হালিমা বেগম লিপির নামে ৩ কোটি ২ লাখ ৩২ হাজার ৪৮১ টাকা জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগ পায় দুদক। পরে ওই অভিযোগে দুদকের উপ-পরিচালক মো. সামছুল আলম ২০১৮ সালের ৩ জুন আমজাদ হোসেন ও তার স্ত্রী হালিমা বেগম লিপিকে আসামি করে চট্টগ্রামের ডবলমুরিং মডেল থানার মামলা করেন।

কাস্টমস এপ্রেইজার মো. আমজাদ হোসেন হাজারির অর্জিত অবৈধ আয়কে বৈধ করার জন্য তার স্ত্রী হালিমা বেগম লিপির নামে আয়কর নথি খুলে পোল্ট্রি ব্যবসার অস্বাভাবিক আয় দেখিয়ে প্রায় ৩ কোটি টাকার সম্পদ বৈধ করার চেষ্টা করেছিলেন বলে মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়।

মামলাটি বর্তমানে চট্টগ্রামের সিনিয়র স্পেশাল জজ আদালতে তদন্তাধীন রয়েছে। এ অবস্থায় আসামিরা হাইকোর্টে আগাম জামিন আবেদন করলে আদালত শুনানি শেষে তাদের আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেন।

এফএইচ/এনডিএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :