ক্রেতার সঙ্গে পোশাক কারখানার সম্পর্ক ছেদে আদালতের নির্দেশনা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:৫১ পিএম, ২২ জুলাই ২০১৯

অ্যালায়েন্সের আওতাভুক্ত বিদেশি ক্রেতারা পোশাক কারখানার সঙ্গে কীভাবে ব্যবসায়িক সম্পর্ক শেষ করবে তা নির্ধারণ করতে বিজিএমইএ বা সরকারের সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলোচনার পর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করার আহ্বান জানিয়েছেন হাইকোর্ট।

গার্মেন্টস সেক্টরে ইউরোপীয় ক্রেতাদের জোট অ্যাকর্ডের মতো নর্থ আমেরিকান ক্রেতা জোটদের সংগঠন হলো অ্যালায়েন্স। আদেশের বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেন ব্যারিস্টার ইমতিয়াজ মইনুল।

এ সংক্রান্ত বিষয়ে বিএইচআইএস অ্যাপারেলস লিমিটেডের রিটের চূড়ান্ত শুনানি শেষে হাইকোর্টের বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও মো. আশরাফুল কামালের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ রায় দেন। আদালতে সোমবার বিএইচআইএস অ্যাপারেলসের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার ইমতিয়াজ মইনুল ইসলাম।
এরপর আইনজীবী ইমতিয়াজ মইনুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, আমেরিকান ক্রেতা জোটের অ্যালায়েন্সের বাংলাদেশি গার্মেন্টস ফ্যাক্টরি মালিকদের সঙ্গে ব্যবসায়িক সম্পর্ক ছিন্ন করার প্রক্রিয়া অবৈধ ঘোষণা করে রায় দিয়েছেন হাইকোর্ট।

রায়ে বলা হয়েছে, সম্পর্ক ছিন্ন করতে চাইলে অ্যালায়েন্সকে বিজিএমইএ ও সরকারের সংশ্লিষ্টদের মতামত নিতে হবে। রায়ে বাংলাদেশের গার্মেন্টসকে একজন নাগরিকের মতো আইনগত সত্তা ঘোষণা করা হয়েছে।

রানা প্লাজা ধসের ঘটনার পর নর্থ আমেরিকান ক্রেতা জোট ২০১৩ সালে বাংলাদেশে ‘অ্যালায়েন্স’ নামের একটি অনুসন্ধানি সংস্থা প্রতিষ্ঠা করে। এ অ্যালায়েন্সের কাজ ছিল বাংলাদেশের গার্মেন্টস ফ্যাক্টরির শ্রমিকের নিরাপত্তা, কর্মপরিকল্পনা, আগুন এবং ভবন নিরাপত্তা পরিদর্শন, কর্মী প্রশিক্ষণ এবং কর্মীদের ক্ষমতায়ন করা। এ লক্ষ্যে গার্মেন্টস কারখানাগুলোর সঙ্গে তারা চুক্তি করে।

বাংলাদেশের ৩৯৬টি গার্মেন্টস অ্যালায়েন্সে যোগ দেয়। কিন্তু কাজ করতে গিয়ে অ্যালায়েন্স গার্মেন্টসগুলোর কর্তৃত্ব ও খবরদারি শুরু করে। অনেক গার্মেন্টসের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে তারা।

বাংলাদেশের বিএইচআইএস অ্যাপারেলস লিমিটেডের ব্যাপারে কোনো রকম অনুসন্ধান না চালিয়ে ২০১৭ সালের ১৮ জুন অবৈধভাবে সম্পর্ক স্থগিতের নোটিশ দেয় অ্যালায়েন্স। এতে অ্যাপারেল প্রতিষ্ঠানটি মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়। আমেরিকার ক্রেতারা মুখ ফিরিয়ে নেয় বিএইচআইএস অ্যাপারেলস থেকে।

এর পরিপ্রেক্ষিতে রিট করলে ২০১৭ সালের ৪ জুলাই হাইকোর্টের বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেন ও বিচারপতি মো. আতাউর রহমান খানের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ রুল জারি করেন। রুলে বাংলাদেশের গার্মেন্টস কারখানার সঙ্গে অ্যালায়েন্সের সম্পর্ক ছিন্ন করা কেন অবৈধ ও আইনগত কর্তৃত্ববহির্ভূত ঘোষণা করা হবে না জানতে চাওয়া হয়। একই সঙ্গে বিএইচআইএস অ্যাপারেলসের সঙ্গে সম্পর্ক স্থগিত করার নোটিশ কেন অবৈধ ও বেআইনি হবে না-তা জানতে চাওয়া হয়। ওই রুলের চূড়ান্ত শুনানি শেষে তা নিষ্পত্তি করে রায় ঘোষণা করা হয় আজ।

এফএইচ/এনএফ/এনডিএস/এমকেএইচ/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :