দেশের বিচার বিভাগ সম্পূর্ণ স্বাধীন : বিচারপতি ওবায়দুল হাসান

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:০৬ পিএম, ২৫ অক্টোবর ২০২০

আপিল বিভাগের নবনিযুক্ত বিচারপতি ওবায়দুল হাসান শাহীন বলেছেন, দেশে গণতান্ত্রিক সমাজব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার পূর্বশত হচ্ছে আইনের সুশাসন। আইনের সুশাসন প্রতিষ্ঠিত করতে হলে স্বাধীন বিচারব্যবস্থার প্রয়োজন। গণতান্ত্রিক সমাজব্যবস্থা না থাকলে স্বাধীনভাবে বিচার কাজ করা সম্ভব নয়। দেশের বিচার বিভাগ এখন সম্পূর্ণ স্বাধীন।

রোববার (২৫ অক্টোবর) বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্বাস আলী খান স্মৃতি মিলনায়তনে নেত্রকোনা পৌরসভা কর্তৃক আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

আপিল বিভাগের বিচারপতি ওবায়দুল হাসান শাহীন বলেন, ‘গুণীজনদের সংবর্ধনা মানে সৃষ্টিশীল মানুষদেরকে তাদের কাজের যথাযথ মূল্যায়ন করা। গুণীজন আর পদ আলাদা। আমি একটা পদে আছি, গুণীজন নই। গুণীজন যেকোনো সময় দেশ ও জনগণের কল্যাণে কাজ করতে পারেন। পদ তা পারে না। আমাদের উচিত, প্রকৃত গুণীজনদের যথাযত সম্মান প্রদর্শন করা। তাহলে নতুন প্রজন্ম ভালো কাজের প্রতি অনুপ্রাণিত হবে।’

তিনি বলেন, নেত্রকোনা জেলা একটি অসাম্প্রদায়িক জেলা। এ জেলার মানুষগুলোও যুগ যুগ ধরে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রেখে তাদের নিজ নিজ ধর্ম-কর্ম পালন করে আসছে। অসাম্প্রদায়িক চেতনাকে সবসময় আমাদের ধারণ করতে হবে।

আপিল বিভাগের বিচার কাজের কথা উল্লেখ করে এই বিচারপতি বলেন, ‘আপিল বিভাগের বিচার আর হাইকোর্টের বিচার এক নয়। আপিল বিভাগের বিচারকের দায়িত্ব অনেক বেশী। আপিল বিভাগে বিচারের পর আর কোনো বিচারের সুযোগ নেই। তাই আপিল বিভাগের বিচারকদেরকে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায় অত্যন্ত সতর্কতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করতে হয়।’

এ সময় তিনি দেশে আইনের শাসন ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায় দেশবাসীর সর্বাত্মক সহযোগিতা ও দোয়া কামনা করেন।

নেত্রকোনা পৌরসভার মেয়র নজরুল ইসলাম খানের সভাপতিত্বে সংবর্ধনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাবেক সচিব ও বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশনের সদস্য উজ্জল বিকাশ দত্ত, নেত্রকোনা পুলিশ সুপার (এসপি) আকবর আলী মুন্সী, আটপাড়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হাজি মো. খায়রুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শামছুর রহমান ভিপি লিটন, অর্থ সম্পাদক হাফিজুর রহমান খান, জেলা কৃষক লীগের সভাপতি কেশব রঞ্জন সরকার, সাবেক জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার নুরুল আমীন, জেলা প্রেসক্লাব সম্পাদক শ্যামলেন্দু পাল, পূজা উদযাপন পরিষদের উপদেষ্টা নির্মল দাস, প্যানেল মেয়র-১ আমীর বাশার, প্যানেল মেয়র-২ হেলাল উদ্দিন শেখ, সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আইয়ুব আলী, সিংহের বাংলা ইউপি চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রহিম, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য দীপায়ন সরকার দীপ ও নেত্রকোনা সাহিত্য সমাজের সম্পাদক সাইফুল্লাহ্ এমরান প্রমূখ।

এফএইচ/এসআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]