গ্রন্থাগারিকরা হলেন জ্ঞানভান্ডারের রসদ সরবরাহকারী: প্রতিমন্ত্রী

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৪:২২ পিএম, ৩১ ডিসেম্বর ২০২১

সংস্কৃতিবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেছেন, জ্ঞানভাণ্ডারের রসদ সরবরাহকারী হলেন গ্রন্থাগারিকরা। তারা রসদ সরবরাহ করে আমাদের জ্ঞানভাণ্ডারকে সমৃদ্ধ করে থাকেন। আর সেই রসদ হলো জ্ঞান উপকরণ বই।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে শুক্রবার (৩১ ডিসেম্বর) সকালে ময়মনসিংহ জেলা পরিষদ সম্মেলনকক্ষে আয়োজিত ‘শিক্ষায়তনিক গ্রন্থাগার পেশাজীবীদের প্রত্যাশা, প্রাপ্তি ও করণীয়’ শীর্ষক এক সেমিনার এবং ময়মনসিংহ বিভাগীয় গ্রন্থাগার পেশাজীবীদের মহাসম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বাংলাদেশ গ্রন্থাগার সমিতি (ল্যাব)।

সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী বলেন, জাতি গড়ার কারিগর হলেন শিক্ষক সমাজ। আর শিক্ষক তৈরির কারিগর হলেন গ্রন্থাগারিকরা। যথাযথ উপকরণ ও রসদ সরবরাহের মাধ্যমে তারা জ্ঞানমনস্ক আলোকিত জাতি গঠনে মুখ্য ভূমিকা রাখেন।

কে এম খালিদ বলেন, জাতি গড়ার কারিগররা নানা কারণে আজ অবহেলিত। তাদের প্রাতিষ্ঠানিক পদমর্যাদা বাড়ানোর পদক্ষেপ নেওয়া দরকার। তিনি এসময় সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে ল্যাবের দাবি-দাওয়া পূরণের সর্বাত্মক আশ্বাস দেন।

ল্যাব ময়মনসিংহ বিভাগীয় সমিতি মো. এমদাদুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে মুখ্য আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতকপূর্ব শিক্ষাবিষয়ক স্কুলের ডিন অধ্যাপক ড. মো. নাসির উদ্দিন। বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য দেন ময়মনসিংহের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) পারভেজুর রহমান ও ল্যাবের মহাসচিব মোহাম্মদ হামিদুর রহমান।

অনুষ্ঠানে মূলপ্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ময়মনসিংহ বিভাগের ল্যাব সভাপতি মো.এমদাদুল হক।

এমইউ/এমএএইচ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]