চাকরি পেয়ে চোখের কষ্ট ভুলে গেছেন সিদ্দিকুর

মুরাদ হুসাইন
মুরাদ হুসাইন , নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৫৪ পিএম, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭ | আপডেট: ০৯:৪০ পিএম, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭
চাকরি পেয়ে চোখের কষ্ট ভুলে গেছেন সিদ্দিকুর

চাকরি পেয়ে চোখের কষ্টের কথা ভুলে গেছেন পুলিশের টিয়ারশেলের আঘাতে চোখ হারানো তিতুমীর কলেজের ছাত্র সিদ্দিকুর রহমান। প্রত্যাশার চেয়ে বেশি কিছু পেয়েছেন বলে নিজের অনুভূতি ব্যক্ত করেন সিদ্দিকুর।

সরকারি চাকরির নিয়োগপত্র পাওয়ার পর বুধবার রাতে জাগো নিউজকে এমন প্রতিক্রিয়ােই জানান তিনি।

siddiqur

তিনি বলেন, এতো অল্প সময়ে সব গুছিয়ে নিতে পারব ভাবতে পারিনি। চোখের আলো হারিয়ে ভেবেছিলাম জীবন থেকে সব হারিয়ে ফেলেছি। আর হয়তো কোনো দিন স্বপ্নের আলো জীবনে উঁকি দেবে না। কিন্তু এখন মনে হচ্ছে, জীবনে যা চেয়েছিলাম তার চেয়ে বেশি কিছু পেয়েছি। এতো ভালো কিছু আমার জন্য অপেক্ষা করছিল ভাবতেও পারিনি।

সিদ্দিকুর রহমান বলেন, পরিবারের হাল ধরার অবলম্বন পেয়ে আমি ও আমার পরিবারের সবাই অনেক আনন্দিত। সবার সহযোগিতা পেয়ে আজ এই সুদিনের সন্ধান মিলেছে। ছোটবেলা থেকে স্বপ্ন দেখতাম পড়ালেখা করে অনেক বড় মানুষ হয়ে পরিবারের হাল ধরব। পাশাপাশি সমাজের বঞ্চিত মানুষের জন্য কিছু করব।

siddiqur

তিনি বলেন, চোখের আলো হারিয়ে যাওয়ার পর ভেবেছিলাম আমার সে ইচ্ছা আর কোনদিন পূরণ হবে না। যদিও মনের আলো দিয়ে নতুনভাবে নিজেকে চেনার চেষ্টা করে যাচ্ছিলাম। তাই অনুভূতিকে একমাত্র অবলম্বন হিসেবে বেছে নিয়ে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা ছিল। সরকারি চাকরি পাওয়ায় এখন আমার স্বপ্ন পূরণের রাস্তা অনেক সহজ হয়ে গেছে। তার এগিয়ে যাওয়ার প্রচেষ্টায় সবার কাছে দোয়া কামনা করে পাশে থাকার আহ্বান জানান সিদ্দিকুর।

সিদ্দিকুরের মা সুলেখা খাতুন জানান, সিদ্দিকুরের চোখের আলো হারিয়ে যাওয়ায় পুরো পরিবার অন্ধকার হয়ে পড়ে। সরকার তার ছেলেকে চাকরি দেয়ায় সে অন্ধত্ব আজ আলো হয়ে গেছে।

এ সংবাদে অনেক আনন্দিত বলে পরিবারের সদস্যরা অনুভূতি ব্যক্ত করেন।

এমএইচএম/জেএইচ/জেআইএম