সংসদের অধিবেশন শুরু, চলবে ১২ এপ্রিল পর্যন্ত

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:২১ পিএম, ০৮ এপ্রিল ২০১৮

জাতীয় সংসদের ২০তম অধিবেশন রোববার বিকেল ৫টায় শুরু হয়েছে। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিরোধী দলীয় নেতা রওশন এরশাদসহ অধিকাংশ এমপি-মন্ত্রীরা উপস্থিত রয়েছেন। এই অধিবেশন চলবে ১২ এপ্রিল পর্যন্ত। সংক্ষিপ্ত এই অধিবেশনে বেশ কয়েকটি আইন পাস হওয়ার কথা রয়েছে।

এই অধিবেশন শুরুর আগে সংসদের কার্যউপদেষ্টা কমিটির বৈঠক হয়। বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রতিদিন বিকেল ৫টায় সংসদের বৈঠক বসবে। প্রয়োজনে এ সময় স্পিকার পরিবর্তন করতে পারবেন।

বৈঠকের শুরুতেই সভাপতিমণ্ডলী মনোনয়ন দেয়া হয়। এরপর শোক প্রস্তাব আনা হয়। বিগত সংসদ অধিবেশন শুরুর পর এ পর্যন্ত দেশে যত গুণীজন মারা গেছেন তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়। এ সময়ে একজন সাবেক মন্ত্রী এবং সাতজন সাবেক সংসদ সদস্য মারা গেছেন।

কার্য উপদেষ্টা কমিটির বৈঠক
‘কার্য উপদেষ্টা কমিটি’র ২০তম বৈঠক জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত হয়। কমিটির সভাপতি জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন। কমিটি সদস্য এবং সংসদ নেতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন।

কমিটির সদস্য বিরোধী দলীয় নেতা রওশন এরশাদ, হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ, তোফায়েল আহমেদ, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ, রাশেদ খান মেনন, আ.স.ম. ফিরোজ, মইন উদ্দীন খান বাদল এবং আনিসুল হক বৈঠকে অংশগ্রহণ নেন।

বৈঠকের শুরুতে স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হওয়ায় কমিটির পক্ষ থেকে স্পিকার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ফুলেল শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, সবার এ অভিনন্দন পাওয়ার যোগ্য, বিশেষ করে এ অর্জন বাংলাদেশের জনগণের। তিনি বলেন, বাংলাদেশ পারে এবং কেউ বাংলাদেশকে দাবায়ে রাখতে পারবে না।

বৈঠকে জানানো হয়, সংসদে পাসের অপেক্ষায় ১টি, কমিটিতে পরীক্ষাধীন ১১টি ও উত্থাপনের অপেক্ষায় ৪টিসহ মোট ১৬টি বিল এবং অনিষ্পন্ন ০৯টি বেসরকারি বিল এ অধিবেশনে রয়েছে। এ অধিবেশনে উত্থাপনের জন্য কোনো বেসরকারি বিলের নোটিশ পাওয়া যায়নি। প্রধানমন্ত্রীর জন্য ৬৩টি ও সাধারণ প্রশ্ন ১১৬৪টিসহ মোট ১২২৭টি প্রশ্ন পাওয়া গেছে। এছাড়া সিদ্ধান্ত প্রস্তাব ১০৬টি ও মনোযোগ আকষর্ণের ৩৬টি নোটিশ পাওয়া গেছে।

জাতীয় সংসদের সিনিয়র সচিব ড. মো. আবদুর রব হাওলাদার বৈঠকের কার্যপত্র উপস্থাপন করেন।

এইচএস/জেএইচ/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]