‘স্বাস্থ্য ও পুষ্টিখাত উন্নয়নে বাংলাদেশ বিশ্বে রোল মডেল’

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:১৪ এএম, ২৩ এপ্রিল ২০১৮
ছবি-ফাইল

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে আজ (২৩ এপ্রিল) থেকে শুরু হয়েছে ‘জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ-২০১৮’; শেষ হবে আগামী ২৯ এপ্রিল।

এ উপলক্ষ্যে দেয়া এক বানীতে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, বাংলাদেশ বর্তমানে স্বাস্থ্য ও পুষ্টিখাত উন্নয়নে সারাবিশ্বে রোল মডেল। তিনি স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে এই সপ্তাহ উদযাপিত হচ্ছে জেনে সন্তোষ প্রকাশ করেন।

বাণীতে রাষ্ট্রপতি বলেন, বাঙালি জাতির অবিসংবাদিত নেতা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সুস্থ, সবল ও সমৃদ্ধ দেশ গড়তে ১৯৭৪ সালে জাতীয় পুষ্টি প্রতিষ্ঠান এবং ১৯৭৫ সালের ২৩শে এপ্রিল জাতীয় পুষ্টি পরিষদ গঠন করেন। বর্তমান সরকার তার সেই সুদূরপ্রসারী ভাবনাকে বাস্তবে রূপ দিয়েছে।

তিনি বলেন, জনস্বাস্থ্য পুষ্টি প্রতিষ্ঠান ও জাতীয় পুষ্টি পরিষদের উদ্যোগে প্রণীত হয়েছে জাতীয় পুষ্টিনীতি-২০১৫ এবং দ্বিতীয় জাতীয় পুষ্টি কর্মপরিকল্পনা। প্রণীত হয়েছে ভোজ্য তেলে ভিটামিন-এ সমৃদ্ধকরণ, খাবার লবণে আয়োডিন সমৃদ্ধকরণসহ অন্যান্য যুগান্তকারী আইন ও বিধি।

রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘খাদ্যের মধ্যে নিহিত পুষ্টিগুণ আমাদের সুস্থ, সবল ও কর্মক্ষম রাখে। তাই জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ-২০১৮ এর এবারের প্রতিপাদ্য ‘খাদ্যের কথা ভাবলে পুষ্টির কথাও ভাবুন’ যথাযথ হয়েছে।

জাতীয়ভাবে পুষ্টি সপ্তাহ পালনের উদ্যোগ জনগণকে পুষ্টি সচেতন করার পাশাপাশি সুস্থ, সবল ও সমৃদ্ধশালী জাতি গঠনে সহায়ক ভূমিকা রাখবে বলে বাণীতে আশাবাদ ব্যক্ত করেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

এমএমজেড/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :