‘দেশকে তামাকের অভিশাপ থেকে মুক্ত করতে হবে’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:৪৮ পিএম, ২৪ মে ২০১৮

স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, তামাক জাতীয় জীবনের অভিশাপ। দেশের অর্থনৈতিক উন্নতি অর্জন এবং তা ধরে রাখতে হলে দেশকে তামাক নামক অভিশাপ থেকে মুক্ত করতে হবে। তামাকের ব্যবহার হ্রাস করার জন্য মানবিক মূল্যবোধ জাগ্রত করে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলা অপরিহার্য।

বৃহস্পতিবার পল্লী উন্নয়ন কর্মসহায়ক ফাউন্ডেশন (পিকেএসএফ) মিলনায়তনে ‘জাতীয় তামাক বিরোধী প্ল্যাটফর্ম’ ‘তামাক নিয়ন্ত্রণ পদক ২০১৮ প্রদান’ শীর্ষক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন জাতীয় অধ্যাপক ব্রিগেডিয়ার (অবঃ) আব্দুল মালিক। সভাপতিত্ব করেন পিকেএসএফ-এর সভাপতি ও জাতীয় তামাক বিরোধী প্ল্যাটফর্ম-এর আহ্বায়ক ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ। পিকেএসএফ-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আবদুল করিম অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন।

জাহিদ মালেক বলেন, দেশে প্রতি বছর বহু মানুষ তামাকজনিত কারণে মারা যায়। বাংলাদেশ আজ উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে স্বীকৃত। তবে এই সফলতা ধরে রাখা সম্ভব হবে না যদি তামাক ও তামাকজাত পণ্য ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ করা না যায়।

Tobaco-2

তিনি বলেন, সরকার মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে, সেই কথা উল্লেখ করে তামাকের বিরুদ্ধেও একই ধরনের উদ্যোগ নেয়ার আহ্বান জানান তিনি।
বিশেষ অতিথি ব্রিগেডিয়ার (অবঃ) আব্দুল মালিক বলেন, তামাক জাতীয় জীবনে অভিশাপ। দেশের অর্থনৈতিক উন্নতি অর্জন এবং তা ধরে রাখতে হলে দেশকে তামাক নামক অভিশাপ থেকে মুক্ত করতে হবে।

ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ বলেন, তামাকের ব্যবহার নিরুৎসাহিত করা, মানুষের সচেতনতা বৃদ্ধি করা, তামাক নিয়ন্ত্রণে নীতিনির্ধারণী পর্যায়ে অ্যাডভোকেসি করা এই তিনটি উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে কাজ করে যাচ্ছে জাতীয় তামাক বিরোধী প্ল্যাটফর্ম। তামাক ও তামাকজাত দ্রব্যের ব্যবহার নিয়ন্ত্রণে দল মত নির্বিশেষে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।

স্বাগত বক্তব্যে পিকেএসএফ-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আবদুল করিম বলেন, টেকসই উন্নয়ন অভিষ্ট-৩ অর্জন, অর্থাৎ বাংলাদেশের সকলের সুস্বাস্থ্য ও সুস্থ জীবন নিশ্চিত করার জন্য তামাকের ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ করা জরুরি।

Tobaco-3

অনুষ্ঠানে জাতীয় তামাক বিরোধী প্ল্যাটফর্ম-এর সমন্বয়কারী ড. মাহফুজুর রহমান ভূঞা প্ল্যাটফর্মের কার্যক্রম ও গঠনের ওপর সংক্ষিপ্ত আলোচনা করেন। এছাড়া তামাক চাষ নিয়ন্ত্রণে পিকেএসএফ কর্তৃক গৃহীত কার্যক্রমের ওপর একটি উপস্থাপনা প্রদান করা হয়।

২০১৭ সালের সেপ্টেম্বর মাসে তামাক নিয়ন্ত্রণে কাজ করার লক্ষ্যে একটি অভিন্ন প্ল্যাটফর্ম ‘জাতীয় তামাক বিরোধী প্ল্যাটফর্ম’ গঠন করা হয়। তামাক নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে এমন সংগঠনসমূহের সমন্বিত উদ্যোগে ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ, সভাপতি, পিকেএসএফ-কে জাতীয় তামাক বিরোধী প্ল্যাটফর্মের আহ্বায়ক এবং ডা. মাহফুজুর রহমান ভূঁঞা, গ্রান্টস ম্যানেজার, ক্যাম্পেইন ফর টোব্যাকো ফ্রি কিড্স, বাংলাদেশ ও ভাইস চেয়ারপার্সন, অধীর ফাউন্ডেশনকে প্ল্যাটফর্মের সমন্বয়কারী হিসেবে নির্বাচন করা হয়।

এমএ/এমইউএইচ/এমআরএম/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :