পচা সবজি দিয়ে খাবার তৈরি করে চমেক ক্যান্টিন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:৫৭ পিএম, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

অস্বাস্থ্যকর নোংরা পরিবেশে পচা সবজি দিয়ে খাদ্য তৈরি ও বাসি পরোটা বিক্রয় করায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের তৃতীয় শ্রেণির কর্মচারী ক্যান্টিনকে জরিমানা করা হয়।

শনিবার ক্যান্টিনে অভিযান চালিয়ে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর।

এছাড়া চট্টগ্রাম মহানগরীর চকবাজার, খুলশী, পাঁচলাইশ ও কোতোয়ালী থানায় অভিযান চালিয়ে আরও ছয়টি প্রতিষ্ঠানকে ৭১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। অভিযানে মেয়াদোত্তীর্ণ সিরাপ, অননুমোদিত ওষুধ, পচা সবজি, বাসি পরোটা এবং ২৫০ গ্রাম পরিমাণ হাইড্রোজ ধ্বংস করা হয়।

জরিমানা করা প্রতিষ্ঠানগুলো হলো- আইসক্রিমে মেয়াদোত্তীর্ণ চকলেট সিরাপ ব্যবহারের জন্য খুলশী টাউন সেন্টারের ক্যাফে ফায়ার ডোরকে ৫ হাজার টাকা, মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ বিক্রয়ের জন্য সংরক্ষণ করায় আমবাগানের মেসার্স জনসেবা ফার্মেসিকে ৮ হাজার টাকা একই অপরাধে কে সি দে রোডের স্বদেশ মেডিকোকে ৬ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এছাড়া চট্টগ্রামের কোতোয়ালি, পাঁচলাইশ ও চকবাজার থানায় অভিযান পরিচালিত হয়। জনৈক অভিযোগকারীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে বেশি মূল্যে বোতলজাত পানি বিক্রয় করায় চকবাজার এলাকার টিএমটি ডেইলি নিডসকে ২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ বিক্রয় ও সংরক্ষণের দায়ে কোতোয়ালি থানার অ্যাপোলো ফার্মেসিকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের তৃতীয় শ্রেণির কর্মচারী ক্যান্টিনকে পচা সবজি ব্যবহার, বাসি পরোটা বিক্রয়, অস্বাস্থ্যকর নোংরা পরিবেশে খাদ্যদ্রব্য উৎপাদন এবং হাইড্রোজ ব্যবহার করে খাদ্যদ্রব্য প্রস্তুত করায় ৪০ হাজার জরিমানা করা হয়। একইসঙ্গে ১০ কেজি পরিমাণ পচা সবজি, বাসি পরোটা ও ২৫০ গ্রাম হাইড্রোজ ধ্বংস করা হয়।

অভিযান পরিচালনা করেন অধিদফতরের চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক বিকাশ চন্দ্র দাস ও মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান। এ সময় সার্বিক সহযোগিতা করে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ।

এসআই/জেএইচ/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :