সমুদ্র গবেষণা ও জরিপে অধিক ক্ষমতার জাহাজ দেবে এফএও

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০২:৫৮ পিএম, ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

বাংলাদেশকে ২০২০ সালের মধ্যে অধিক ক্ষমতা সম্পন্ন একটি মৎস্য গবেষণা ও জরিপ জাহাজ সরবরাহের আশ্বাস দিয়েছে জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা এফএও। এই জাহাজ দেশের সমুদ্রসীমায় মৎস্য গবেষণা, উন্নয়ন ও মৎস্যসহ সমুদ্র সম্পদ আহরণের কাজে ব্যবহৃত হবে।

আজ (মঙ্গলবার) সচিবালয়ে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরুর সঙ্গে সংস্থার ৩ সদস্য বিশিষ্ট একটি প্রতিনিধিদল দ্বিপাক্ষিক বৈঠককালে এই আশ্বাস দিয়েছে।

উল্লেখ্য মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় কর্তৃক ইতোপূর্বে কেনা সমুদ্র গবেষণা ও জরিপ জাহাজ দিয়ে সমুদ্রের ২০০ ফুট গভীর পযর্ন্ত জরিপ চালানো সম্ভব। তাই আরও অধিক গভীরে (৩০০-৪০০ ফুট) জরিপ ও গবেষণায় সক্ষম একটি ফ্রিগেড সংগ্রহে এফওএ’র সহযোগিতা চেয়েছে মন্ত্রণালয়।

বৈঠকে এফএও প্রতিনিধিরা মৎস্যখাতের উন্নয়নে এ ফান্ডে গৃহীত একটি প্রকল্পে প্রতিমন্ত্রীর সহযোগিতা চাইলে তিনি সর্বাত্মক সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

এছাড়া তারা বাংলাদেশে বসবাসরত রোহিঙ্গাদের কল্যাণে জিএএফ ফান্ডে এফএও এবং ডব্লিউএফপি’র সহযোগিতায় প্রণীত প্রকল্পেও মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতা চান। প্রতিমন্ত্রী এক্ষেত্রেও সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

বৈঠকে দেশের ব্লু-ইকোনমি এবং সমুদ্রের তলায় লুকায়িত বিশাল সম্পদ-আহরণ ছাড়াও সিউইড এবং প্রাণিসম্পদের উন্নয়নে বিস্তারিত আলোচনা হয়। বাংলাদেশ এক্ষেত্রে জ্ঞান ও প্রযুক্তিগত সহযোগিতা চাইলে তা প্রদানের আশ্বাস দেন এফএও প্রতিনিধিরা।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে এফএও’র বাংলাদেশ প্রতিনিধি রবার্ট ডাউলাস, বাংলাদেশের সহকারি প্রতিনিধি (প্রোগাম) নুর আহমেদ খন্দকার, প্রোগ্রাম অফিসার হালিমা এনায়েত এবং মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব (ব্লু-ইকোনমি) তৌফিকুল আরিফ উপস্থিত ছিলেন।

এমইউ/এমএমজেড/এমবিআর/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :