ময়মনসিংহ সিটি নির্বাচনে আপিল মীমাংসায় কমিশনার নিয়োগ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:০৬ পিএম, ২৭ মার্চ ২০১৯

ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মনোনয়নপত্র গ্রহণ ও বাতিল আদেশের বিরুদ্ধে আপিল মীমাংসার জন্য বিভাগীয় কমিশনার মাহমুদ হাসানকে নিয়োগ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

ইসির উপসচিব মো. আতিয়ার রহমান সই করা এক নথি থেকে এ তথ্য জানা যায়।

এই সিটিতে মেয়র, সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর ও সাধারণ আসনের কাউন্সিলর পদে নির্বাচন হবে ৫ মে। প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী, ৮ এপ্রিল মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন। ১০ এপ্রিল হবে মনোনয়নপত্র বাছাই। ১৭ এপ্রিল প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন এবং পরদিন প্রতীক বরাদ্দ।

অন্যদিকে এই সিটির ভোট উপলক্ষে ময়মনসিংহ অঞ্চলের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আলীমুজ্জামানকে রিটার্নিং কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে ইসি। ২৫ মার্চ এই রিটার্নিং কর্মকর্তার দেয়া এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ময়মনসিংহ কর্পোরেশনের মেয়র, সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর (১ থেকে ১১ নম্বর ওয়ার্ড) এবং সাধারণ আসনের কাউন্সিলর (১ থেকে ৩৩) পদে নির্বাচনের জন্য মনোনয়নপত্র আমার কার্যালয় এবং আমার সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তাদের কার্যালয়ে (আঞ্চলিক সার্ভার স্টেশন, ময়মনসিংহ) ৮ এপ্রিলের আগে যে কোনো দিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত গ্রহণ করা হবে।’

এই সিটি নির্বাচনের সব ভোটকেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ভোটগ্রহণ করা হবে।

রাজনৈতিক দল ও স্বতন্ত্রদের যা করণীয়

সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের মেয়র পদে দলীয় প্রতীকে ভোট হয়। এ বিষয়ে কিছু নির্দেশনা রয়েছে নির্বাচন কমিশনের।

ইসি সূত্র জানায়, কোনো রাজনৈতিক দল মেয়র পদে একাধিক ব্যক্তিকে মনোনয়ন প্রদান করতে পারবে না। একাধিক ব্যক্তিকে মনোনয়ন প্রদান করলে সংশ্লিষ্ট সিটি কর্পোরেশনে ওই দলের প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল বলে গণ্য হবে।

রাজনৈতিক দলের মনোনয়নপত্র দেয়ার ক্ষেত্রে রাজনৈতিক দলগুলো থেকে সভাপতি বা সাধারণ সম্পাদক বা সমপর্যায়ের ব্যক্তির স্বাক্ষর থাকতে হয়। এই সিটি নির্বাচনে নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলগুলো থেকে কোন দল কাকে সেই স্বাক্ষর প্রদানের ক্ষমতা দেবে, তা তফসিল ঘোষণার (গত ২৫ মার্চ তফসিল ঘোষণা করে ইসি) পরবর্তী ৭ দিনের মধ্যে রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে জানানোর নির্দেশও দিয়েছে ইসি।

অন্যদিকে এই সিটিতে দলীয় প্রতীকের বাইরে যারা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মেয়র পদে নির্বাচন করবেন, তাদের ৩০০ জন ভোটারের স্বাক্ষরযুক্ত তালিকা মনোনয়নপত্রের সঙ্গে জমা দিতে হবে।

পিডি/জেএইচ/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :