সংসদ বসছে কাল, উঠছে চাকরিতে প্রবেশের বয়স বাড়ানোর প্রস্তাব

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:২৯ পিএম, ২৩ এপ্রিল ২০১৯

একাদশ জাতীয় সংসদের দ্বিতীয় অধিবেশন আগামীকাল বুধবার বসছে। এদিন বিকেল ৫টায় অধিবেশন শুরু হবে।

গত ৩ এপ্রিল রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ এ অধিবেশন আহ্বান করেন। সংবিধানের ৭২ অনুচ্ছেদের (১) দফায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে এ অধিবেশন আহ্বান করেন রাষ্ট্রপতি। তবে এই অধিবেশন কতদিন চলবে তা জানা যায়নি। অধিবেশন শুরুর এক ঘণ্টা আগে সংসদের কার্যউপদেষ্টা কমিটির বৈঠকে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। তবে এ অধিবেশন পাঁচ কার্যদিবস চলতে পারে।

দেশের তরুণ সমাজের দীর্ঘদিনের দাবি পূরণের লক্ষ্যে সরকারি চাকরিতে ঢোকার বয়সসীমা বাড়াতে সংসদ অধিবেশন সিদ্ধান্ত প্রস্তাব আনা হতে পারে এ অধিবেশন। অধিবেশনে এ প্রস্তাবটি আনবেন ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি ঢাকা-৮ আসনের সংসদ সদস্য রাশেদ খান মেনন।

এ প্রস্তাবে তিনি সরকারি চাকরিতে ঢোকার বয়সসীমা ৩৫ বছর ও অবসর গ্রহণের বয়সসীমা ৬২ বছরের প্রস্তাব করবেন। ইতোমধ্যে সংসদের আইন শাখা-২ এ সিদ্ধান্ত প্রস্তাবটি জমা দিয়েছেন তিনি। সংসদে সিদ্ধান্ত প্রস্তাবটি গৃহিত হলে এ নিয়ে সরকারের কাজ করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে।

অধিবেশন চলাকালীন বৃহস্পতিবার বেসরকারি দিবস হিসেবে রাখা হয়। এদিন মন্ত্রী নন, শুধু এমপিদের বিল ও সিদ্ধান্ত প্রস্তাব আনা হয়। তবে স্পিকার ইচ্ছা করলে এসব কাজ স্থগিত রাখতে পারেন। অধিবেশন সংক্ষিপ্ত হওয়ায় এ প্রস্তাব নাও উঠতে পারে। এমনটি হলে বাজেট অধিবেশনে এটি উত্থাপন হবে।

সংসদের আইন শাখা-২ এর সূত্র জানায়, এমপিদের আনা সিদ্ধান্ত প্রস্তাবে মন্ত্রী একমত না হলে তিনি ব্যাখ্যা করে সেই সিদ্ধান্ত প্রস্তাবটি প্রত্যাহারের অনুরোধ করেন। আর গ্রহণের হলে গ্রহণ করেন। তবে সিদ্ধান্ত প্রস্তাব গ্রহণ বা প্রত্যাখ্যান- দুটোই ‘হ্যাঁ’ বা ‘না’ ভোটে দিয়ে পাস করে নিতে হয়। ফলে এটি একধরনের আইনও বলা যায়।

একাদশ সংসদের প্রথম অধিবেশন গত ৩০ জানুয়ারি শুরু হয়। ২৬ কার্যদিবস চলা সে অধিবেশন শেষ হয় ১১ মার্চ। সংবিধান অনুযায়ী একটি অধিবেশন শেষ হওয়ার পর ৬০ দিনের মধ্যে আরেকটি অধিবেশন আহ্বানের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। এজন্যই জুনে বাজেট অধিবেশন শুরুর আগে নিয়ম রক্ষার্থে এই অধিবেশন আহ্বান করা হয়েছে।

এইচএস/জেএইচ/জেআইএম