‘হয় দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তারা থাকবে, না হয় আমি থাকব’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:১৬ পিএম, ২৫ এপ্রিল ২০১৯

নিজ মন্ত্রণালয়ের অধীনের সব কর্মকর্তা-কর্মচারীর উদ্দেশে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী শ. ম. রেজাউল করিম বলেছেন, ‘হয় দুর্নীতিবাজরা থাকবে, না হয় আমি থাকব।’

তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী দুর্নীতির ওপর জিরো টলারেন্স। দুর্নীতি দূর করতে তিনি সরকার গঠন করেছেন। সে সরকারের আমি একজন মন্ত্রী। আমার অধীনে কেউ দুর্নীতি করতে পারবে না।’

রাজধানীর সেগুনবাগিচায় জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের সম্মেলন কক্ষে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন গণপূর্তমন্ত্রী।

কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান মো. রাশিদুলের সভাপতিত্বে এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. আখতার হোসেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘আমি নিজে ঘুষ খাই না। কমিশন খাই না, কমিশন বাণিজ্যও করি না। আমার অধীনস্থ কোনো কর্মকর্তা-কর্মচারীকেও ঘুষ খেতে দেব না, কমিশন বাণিজ্য ও সিন্ডিকেট করতেও দেব না। সিন্ডিকেট বাণিজ্য বন্ধ। আমি সাড়ে তিন মাস হলো দায়িত্ব গ্রহণ করেছি। অনেক কিছু টেকনিক্যাল বিষয় বুঝে উঠতে সময় লাগছে।’

‘তবে গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ ও রাজউকের বেশকিছু কর্মকর্তা কর্মচারীর বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ আমার কাছে রয়েছে। আমরা সবাইকে একটা সুযোগ দেয়ার জন্য বলেছি। ভালো হতে হবে। ভালো যাদি না হয় খুব শিগগিরই তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। সিন্ডিকেট আমি ভাঙবই। এটা আমি করতে না পারি তাহলে আমি হারিয়ে যাব, অথবা যাদের দুর্নীতির কারণে মানুষ ভুগছে তারাই এখান থেকে হারিয়ে যাবে।’

তিনি বলেন, ‘রাজউকে ১ হাজারের বেশি ফাইল পাওয়া যাচ্ছিল না। আমরা কিন্তু ইতোমধ্যে ৭০০ ফাইল উদ্ধার করেছি। অনেক ডেস্কের তালা ভেঙে ফাইল বের করেছি। আর বাকিগুলোর জন্য ১ মাস সময় দিয়ে এসেছি। ফাইল বের হতে হবে। হয় ফাইল বের হবে, না হয় অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বের হয়ে যেতে হবে।’

‘যেহেতু আমার ব্যক্তিগত কোনো চাওয়া নেই, তাই কাউকে অনুকম্পা দেখানোর প্রয়োজন নেই। জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের ফাইলও সেভাবে উদ্ধার করা হবে। যদি কেউ সিন্ডিকেট বাণিজ্য করতে চান সাবধান হয়ে যান। সিন্ডিকেটের যদি ন্যূনতম ইনভলব পাই আমি কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করব’ বলেন শ. ম. রেজাউল করিম।

এমইউএইচ/জেডএ/এনডিএস/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :