পরিত্যক্ত টায়ারে এডিস মশার লার্ভা, জরিমানা ৫ লাখ!

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:৫৭ পিএম, ১৯ আগস্ট ২০১৯

রাজধানীর মহাখালী বাস টার্মিনালের ঠিক পেছনে পরিত্যক্ত অবস্থায় পাওয়া যায় দুটি টায়ার। সেখানে সন্ধান মেলে এডিস মশার লার্ভার। ওষুধ স্প্রে করতেই বেরিয়ে আসে ঝাঁকে ঝাঁকে মশা।

বিষয়টি দেখে ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম। সঙ্গে সঙ্গে ডিএনসিসির সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে নিয়ে ঘোষণা দিলেন জরিমানা ও শাস্তির। যদিও মহাখালী বাস টার্মিনালের পেছনের ওই জমির মালিক কে, শুধু তা-ই জানা গেছে। তবে কে টায়ার রেখেছে তা শনাক্ত করা যায়নি।

সোমবার দুপুরে ডিএনসিসির মেয়র আতিকুল ইসলাম এডিস মশা নির্মূল ও অন্যান্য সমস্যা সমাধানে মহাখালী বাস টার্মিনাল পরিদর্শন করেন। টার্মিনালের পেছনের খাল ও এডিস মশা জন্মাতে পারে- এমন সম্ভাব্য জায়গাগুলো পরিদর্শন করেন তিনি।

এ সময় একটি টায়ারে মশার ওষুধ স্প্রে করার পর অসংখ্য মশা দেখতে পাওয়ায় টায়ার মালিককে পাঁচ লাখ টাকা জরিমানা, অনাদায়ে সাতদিনের কারাদণ্ড প্রদানের নির্দেশ দেয়া হয় ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে। কিন্তু টায়ার মালিক কে- তা অভিযান পরিচালনা পর্যন্ত নিশ্চিত করা যায়নি।

মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, এসব টায়ার থেকে এডিস মশা জন্মায়। আমি ১৫ দিন আগে এসব টায়ার সরাতে বলেছিলাম। কিন্তু কেউ তা করেনি। এজন্য এ টায়ার মালিককে জরিমানা এবং অনাদায়ে শাস্তি দেয়া হলো। এটি টার্মিনাল এলাকার বাইরে। বাস মালিকরা আমাকে বলেছেন, এটি ওয়াসার জায়গা।

এরপর বাস মালিকদের পক্ষ থেকে জানানো হয়, জরিমানা করা টায়ার পরিত্যক্ত। এগুলো কিনে রাবার বের করা হয়। যারা এগুলো কিনেছে তাদের শনাক্ত করে জরিমানা আদায় করা হবে।

প্রসঙ্গত, প্রাণঘাতী জ্বর ডেঙ্গুর জীবাণুবাহক এডিস মশা নিধনে ‘চিরুনি অভিযান’ চালানোর ঘোষণা দিয়েছে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি)। মঙ্গলবার ঢাকা উত্তরের ১৯ নম্বর ওয়ার্ড দিয়ে অভিযানটি শুরু হবে।

প্রতিটি ওয়ার্ডকে ১০ ভাগে ভাগ করে একজন পরিচ্ছন্নতাকর্মীর নেতৃত্বে ১০ জনের একটি দল মশক নিধন অভিযান পরিচালনা করবে। একদিনে একটা ওয়ার্ডে অভিযান হবে। একজন কর্মকর্তা কার্যক্রম তদারক করবেন।

কোনো বাড়িতে এডিস মশার লার্ভা পাওয়া গেলে- একটি লাল রঙের স্টিকার ওই বাড়িতে লাগিয়ে দেয়া হবে। কিছুদিন পর সেই বাড়িতে গিয়ে যদি লার্ভা পাওয়া যায়, তাহলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়।

এএস/এমএআর/এমকেএইচ