সূর্যগ্রহণ ও কুসংস্কার

মো. মুখলেছুর রহমান (মুকুল)
মো. মুখলেছুর রহমান (মুকুল) মো. মুখলেছুর রহমান (মুকুল) , সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ১২:৫২ পিএম, ২৬ ডিসেম্বর ২০১৯

চাঁদ যখন পরিভ্রমণরত অবস্থায় কিছু সময়ের জন্য পৃথিবী ও সূর্যের মাঝখানে এসে পড়ে, ঠিক তখনই পৃথিবীর কোনো দর্শকের কাছে সূর্য আংশিক বা সম্পূর্ণরূপে অদৃশ্য হয়ে যায় (কিছু সময়ের জন্য)। এই ঘটনাকে সূর্যগ্রহণ বলা হয়।

আমাবশ্যার পরে নতুন চাঁদ উঠার সময় এমন ঘটনা ঘটে থাকে। পৃথিবীতে প্রতি বছর অন্তত দুই থেকে পাচঁটি সূর্যগ্রহণ পরিলক্ষিত হয়। এর মধ্যে শূন্য থেকে দুইটি সূর্যগ্রহণ পূর্ণ সূর্যগ্রহণ হয়।

আর এই সূর্যগ্রহণ নিয়ে আমাদের সমাজে রয়েছে কুসংস্কার।
কুসংস্কার হলো অযৌক্তিক বিশ্বাস। অজ্ঞতা থেকে উদ্ভূত হয়, বিজ্ঞানের কার্যকারিতা নিয়ে ভুল বোঝাবুঝি। ভাগ্য বা জাদুতে ইতিবাচক বিশ্বাস অথবা যা অজানা তা থেকে ভয় পাওয়া। এ ছাড়াও ‘কুসংস্কার’ বলতে ধর্মীয় বিশ্বাস বা অযৌক্তিকতা থেকে উদ্ভূত কর্মকাণ্ডকে বোঝায়।

সূর্যগ্রহণ নিয়ে কিছু কুসংস্কার তুলে ধরা হলো-

এ সময় খাবার খেতে নেই, এমনকি খাবার তৈরি থাকলে ফেলে দিতে হয়, কোনো শুভ কাজ করা উচিৎ নয়। পানি খেলে বিপদ হতে পারে। এ সময় খাবার দূষিত হয়ে যায়। গর্ভবতী নারীদের সূর্যগ্রহণের সময় বিশেষ সাবধানতা নেওয়া উচিত। এ সময় সেলাইয়ের কাজ করলে খারাপ কিছু হবে। বাড়ি থেকে বের হওয়া যাবে না। সূর্যগ্রহণ দেখলে চোখ নষ্ট হয়ে যাবে ইত্যাদি।

কিন্তু আজকের দিনে আমরা যখন পরিষ্কার বুঝতে পারি পৃথিবী ও সূর্যের মধ্যে চাঁদ এসে যাওয়ার ফলে গ্রহণ হচ্ছে, তাই নতুন জীবাণুর জন্ম, রশ্মির বেশি প্রভাব ইত্যাদি প্রশ্ন অবান্তর। পূর্ণ সূর্যগ্রহণ একটি চমৎকার প্রাকৃতিক ঘটনা যা পর্যবেক্ষণের জন্য অনেক লোক দূর-দূরান্তেও ভ্রমণ করেন।

আজ (২৬ ডিসেম্বর) বলয়গ্রাস সূর্যগ্রহণ, এটি সকাল থেকে শুরু হয়েছে। এই সূর্যগ্রহণ বাংলাদেশ থেকেও আংশিক দেখা যাচ্ছে। ঢাকায় সূর্যগ্রহণ শুরু হয় সকাল ৯টা ৪ মিনিট ১৮ সেকেন্ডে এবং শেষ হয় ১২টা ৬ মিনিট ৪২ সেকেন্ডে। দেশের অন্যান্য অঞ্চলেও কয়েক মিনিট এদিক-ওদিক হয়ে শুরু হয়ে একইভাবে শেষ হয়েছে।

ঢাকা ছাড়া ময়মনসিংহে এই সূর্যগ্রহণ শুরু হয়েছে সকাল ৯টা ৬ মিনিটে এবং শেষ হয়েছে ১২টা ৮ মিনিট ২৪ সেকেন্ডে। চট্টগ্রামে শুরু হয়েছে ৮টা ৫৫ মিনিট ৩৬ সেকেন্ডে এবং শেষ হয়েছে ১১টা ৫৮ মিনিটে। সিলেটে শুরু হয়েছে ৯টা ৩৬ সেকেন্ডে এবং শেষ ১২টা ৩ মিনিটে। খুলনায় শুরু হয়েছে ৯টা ৫ মিনিট ৪২ সেকেন্ডে এবং শেষ ১২টা ৮ মিনিট ৬ সেকেন্ডে।

বরিশালে শুরু হয়েছে ৯টা ২ মিনিট ১৮ সেকেন্ডে এবং শেষ হয়েছে ১২টা ৪ মিনিট ৪২ সেকেন্ডে। রাজশাহীতে শুরু হয়েছে ৯টা ১২ মিনিট ১২ সেকেন্ডে এবং শেষ হয়েছে ১২টা ১৪ মিনিট ৩৬ সেকেন্ডে। আর রংপুরে শুরু হবে ৯টা ১২ মিনিট ৪৮ সেকেন্ডে এবং শেষ হয়েছে দুপুর ১২টা ১৫ মিনিট ১২ সেকেন্ডে।

সূর্যগ্রহণের সময় সূর্যের দিকে সরাসরি তাকানো বারণ। এটি অবশ্যই মানবেন। সত্যি বলতে, যেকোনো সময়েই সূর্যের দিকে সরাসরি তাকাতে নেই। সে হোক গ্রহণের সময়, কিংবা স্বাভাবিক সময়ে। সূর্যগ্রহণ দেখতে কাঁসার পাত্রে পানি থেকে শুরু করে ব্যবহার হয়েছে কাজে লাগে না এমন এক্স-রে প্লেটও। এখন অবশ্য বিশেষ রোদচশমা দিয়ে সূর্যগ্রহণ দেখা যায়। সূর্যগ্রহণ নিয়ে কোনো কুসংস্কারে পাত্তা দেওয়ার কোনো মানে নেই।

এমআরএম/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]