২১ ঘণ্টা পর ভেসে উঠল ঢাকা কলেজ ছাত্রের লাশ

ক্যাম্পাস প্রতিবেদক
ক্যাম্পাস প্রতিবেদক ক্যাম্পাস প্রতিবেদক ঢাকা কলেজ
প্রকাশিত: ১২:০৯ পিএম, ১০ আগস্ট ২০২০

নরসিংদীর মনোহরদী থানার মজিদপুর গ্রামে আড়িয়াল খাঁ নদীতে বন্ধুদের সঙ্গে গোসলে নেমে নিখোঁজ হওয়ার ২১ ঘণ্টা পর নদীতে ভেসে উঠেছে ঢাকা কলেজ শিক্ষার্থী মুহাম্মদ সোহেল রানার (২১) মরদেহ।

সোমবার (১০ আগস্ট) সকাল সাড়ে ৯টায় ঘটনাস্থল থেকে প্রায় আধা কিলোমিটার দূরে কৃষ্ণপুর গ্রামে মাঝনদীতে সোহেলের মরদেহ ভাসতে দেখেন স্থানীয় ঘাটের মাঝি মো. খুরশিদ মিয়া। এরপর স্থানীয়দের সহায়তায় মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

রোববার (৯ আগস্ট) দুপুর ১২টার দিকে সাত বন্ধুর সঙ্গে গোসলে নেমে ব্রক্ষপুত্রের শাখা নদ আড়িয়াল খাঁর মাস্টারবাড়ি ব্রিজ থেকে কলাগাছ নিয়ে স্থানীয় চরগোহালবাড়িয়া পাটার ঘাটের উদ্দেশে সাঁতার দেন তিনি। পাটার ঘাটের কাছাকাছি আসার পর হঠাৎ তীব্র স্রোতের টানে পানিতেই তলিয়ে যান সোহেল

তার সঙ্গে থাকা বন্ধুরা ঘাটে উঠতে পারলেও দীর্ঘক্ষণ সোহেলের সন্ধান না পেয়ে স্থানীয়দের সহায়তায় প্রাথমিক অনুসন্ধান চালায়। পরে ফায়ার সার্ভিসের রেসকিউ টিমের সদস্যরাও দীর্ঘ সময় চেষ্টা করেও তার কোনো সন্ধান পায়নি।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন স্থানীয় ৫ নম্বর চরমান্দালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মো. রতন। তিনি বলেন, গতকাল নিখোঁজের পর এলাকাবাসী ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা অনেক খোঁজাখুজির পরও তার কোনো সন্ধান পানি। আজ সকালে নদীতে ভেসে থাকা অবস্থায় তার মরদেহ পাওয়া গেল।

সোহেল রানা মজিদপুর গ্রামের আবদুল কাদিরের সন্তান। তিনি ঢাকা কলেজের ২০১৭-১৮ সেশনের ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগের শিক্ষার্থী ও যুব রেডক্রিসেন্ট দলের সদস্য ছিলেন।

বিএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]