মগবাজারে বিস্ফোরণে আহত দোকানকর্মী সুভাষকেও বাঁচানো গেল না

ঢামেক প্রতিবেদক
ঢামেক প্রতিবেদক ঢামেক প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:৫৭ পিএম, ০৬ জুলাই ২০২১
ফাইল ছবি

রাজধানীর মগবাজারে বিস্ফোরণের ঘটনায় আহত হয়ে চিকিৎসাধীন দোকান কর্মচারী সুভাষ চন্দ্র সাহা (৬২) মারা গেছেন। এ নিয়ে ভয়াবহ এ বিস্ফোরণের ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১২ জনে।

সোমবার (৫ জুলাই) দিবাগত রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

সুভাষ চন্দ্রের বাড়ি কুমিল্লা জেলার দেবিদ্বার থানায়। তার বাবার নাম মনমোহন চন্দ্র সাহা। সুভাষ স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে রাজধানীর গেন্ডারিয়ার নারিন্দা এলাকায় বসবাস করতেন।

সিটিটিসি পুলিশের পরিদর্শক মো. মোদাচ্ছের কায়সার জানান, সুভাষ মগবাজারের ঘটনা আহত হয়ে ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। গত রাতে তার অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে আইসিইউতে নেয়া হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাতেই তার মৃত্যু হয়।

তিনি আরো জানান, মৃতের পরিবারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে মঙ্গলবার দুপুরে তার ছেলের কাছে ময়নাতদন্ত ছাড়াই মরদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে।

সুভাষ চন্দ্র সাহার ছেলে সঞ্জয় চন্দ্র সাহা জানিয়েছেন, বাসে করে তেজগাঁওয়ে ব্যবসায়িক কাজে যাওয়ার সময় মগবাজারে দুর্ঘটনার শিকার হন তার বাবা। তার মাথায় গুরুতর আঘাত লাগে।

গত ২৭ জুন সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে রাজধানীর মগবাজারের ওয়্যারলেস গেট এলাকায় ফ্যাশন ও লাইফস্টাইল ব্র্যান্ড আড়ংয়ের শো-রুম লাগোয়া ভবনে ভয়াবহ এ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনা এখন পর্যন্ত ১২ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন দেড় শতাধি মানুষ।

এএএইচ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]