সীমান্তে এক মাসেই ৫৭ কোটি টাকার মাদক-চোরাচালান জব্দ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:১২ পিএম, ০১ আগস্ট ২০২১
ফাইল ছবি

চলতি বছরের জুলাই মাসে দেশের সীমান্ত এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৫৭ কোটি ৭০ লাখ টাকা মূল্যের বিভিন্ন ধরনের চোরাচালান ও মাদকদ্রব্য জব্দ করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। রোববার (১ আগস্ট) বিজিবির জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. শরিফুল ইসলাম স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, জব্দকৃত মাদকের মধ্যে রয়েছে ৭ লাখ ৮ হাজার ৭১২ পিস ইয়াবা, ১১ হাজার ৫২৯ বোতল ফেনসিডিল, ২২ হাজার ৪০৬ বোতল বিদেশি মদ, এক হাজার ১৫৪ ক্যান বিয়ার, এক হাজার ১৫৭ কেজি গাঁজা, ৫ কেজি ৯২৮ গ্রাম হেরোইন, ৪২ হাজার ৩৯৭টি উত্তেজক ইনজেকশন, ৬ হাজার ৫৩১টি ইস্কাফ সিরাপ, ১০ হাজার ৪৭৮টি অ্যানেগ্রা বা সেনেগ্রা ট্যাবলেট এবং ১ লাখ ৮৭ হাজার ৯৭০টি অন্যান্য ট্যাবলেট।

বিজিবি জানায়, জব্দকৃত অন্যান্য চোরাচালান দ্রব্যের মধ্যে রয়েছে ১৯ কেজি ৮৬০ গ্রাম রুপা, ৬২ হাজার ৭৫৫টি কসমেটিক্স সামগ্রী, এক হাজার ৫০০টি ইমিটেশন গহনা, চার হাজার ৮৪৬টি শাড়ি, এক হাজার ৬৪৪টি থ্রিপিস বা শার্টপিস, এক হাজার ৮১৪ ঘনফুট কাঠ, ছয় হাজার ৭২২ কেজি চা পাতা, আট হাজার ৯৯০ কেজি কয়লা, আটটি ট্রাক বা কাভার্ডভ্যান, পাঁচটি প্রাইভেটকার বা মাইক্রোবাস, পাঁচটি পিকআপ, ২৪টি সিএনজি বা ইঞ্জিন চালতি অটোরিকশা এবং ১১১টি মোটরসাইকেল।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, উদ্ধারকৃত অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে দুটি পিস্তল, তিনটি বন্দুক, একটি এলজি, ৮১ মি. মি. মর্টার বোম্ব ২৯টি, ৩ কেজি ২০০ গ্রাম গান পাউডার এবং ৫ রাউন্ড গুলি।

এ ছাড়াও সীমান্তে বিজিবির অভিযানে ইয়াবাসহ বিভিন্ন প্রকার মাদকপাচার ও অন্যান্য চোরাচালানে জড়িত থাকার অভিযোগে ৩৫৫ জন চোরাকারবারীকে এবং অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রমের দায়ে ১৫৩ জন বাংলাদেশি নাগরিক ও পাঁচজন ভারতীয় নাগরিককে আটক করেছে। পরে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

টিটি/ইএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]