উদ্ধারকাজে নদীতে নেমে ডুবুরির মৃত্যু: পরিবার পেল ১০ লাখ টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:৫৮ পিএম, ১২ অক্টোবর ২০২১

উদ্ধারকাজে অংশ নিয়ে মারা যাওয়া ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের ডুবুরি আব্দুল মতিনের পরিবারের হাতে ‘ফায়ার সার্ভিস ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্ট’র পক্ষ থেকে ১০ লাখ টাকার চেক তুলে দিয়েছেন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. সাজ্জাদ হোসাইন।

মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) বিকেলে অধিদপ্তরের সম্মেলন কক্ষে আর্থিক অনুদানের চেক হস্তান্তর অনুষ্ঠানে আব্দুল মতিনের স্ত্রী নাসিমা খাতুনের হাতে এ চেক তুলে দেওয়া হয়।

এসময় অধিদপ্তরের পরিচালক, প্রকল্প পরিচালক, ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্টের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক, অধিদপ্তরের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন পদের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

গত ২৮ আগস্ট দিনাজপুরের পুনর্ভবা নদীতে ডুবে যাওয়া ব্যক্তিকে উদ্ধারে নামার পর পানির নিচে কোনো কিছুতে আটকে যায় ডুবুরি আব্দুল মতিনের লাইফ লাইন। ফলে উপরে অপেক্ষমাণ সহকর্মীরা তার অবস্থান সম্পর্কে নিশ্চিত হতে পারেননি।

jagonews24

একপর্যায়ে সহকর্মীরা তার বিপদ অনুমান করে তাকে উদ্ধার করে মুমূর্ষু অবস্থায় হাসপাতালে পাঠান। সেখানে নেওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বলেন, ‘এটি আব্দুল মতিনের পরিবারের জন্য কোনো ক্ষতিপূরণ নয়। আমরা মতিনের বীরোচিত মৃত্যুকে শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করছি এবং এ চেক প্রদানের মাধ্যমে তার পরিবারকে জানাতে চাই যে, আমরা তার পরিবারের সঙ্গে আছি।’

একই অনুষ্ঠানে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণকারী ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের তিনজন সদস্যের প্রত্যেকের পরিবারকে এক লাখ টাকার অনুদানের চেক তুলে দেওয়া হয়।

এছাড়া আরমানিটোলার অগ্নিদুর্ঘটনায় অগ্নিনির্বাপণের সময় আহত ফায়ার ফাইটার বিষ্ণুপদ মিস্ত্রির হাতেও অনুদানের চেক তুলে দেওয়া হয়।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন পরিচালক (প্রশাসন ও অর্থ) মো. হাবিবুর রহমান, পরিচালক (প্রশিক্ষণ, পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) লে. কর্নেল এস এম জুলফিকার রহমান।

আর্থিক অনুদানের চেক পাওয়ার পর প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে ফায়ার সার্ভিসকে কৃতজ্ঞতা জানান আব্দুল মতিনের স্ত্রী নাসিমা খাতুন ও করোনায় মৃত্যুবরণকারী অপারেটর আইরিন পারভীনের স্বামী নজরুল ইসলাম।

টিটি/এএএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]