নটর ডেম ছাত্রের মৃত্যু: ৩ লাখ টাকায় ময়লার গাড়ি বরাদ্দ নেন হারুন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:২১ এএম, ২৬ নভেম্বর ২০২১

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) ময়লার গাড়িচাপায় নটরডেম কলেজের শিক্ষার্থী নাঈম হাসান নিহতের ঘটনায় অভিযুক্ত গাড়ির চালক হারুন মিয়া ওরফে কাইল্লা হারুনকে (৩৭) ধরতে অভিযান চালাচ্ছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

চালক হারুন মিয়া ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) বিশেষ ট্রাক পরিচ্ছন্নতাকর্মী। কিন্তু তিনি ট্রাক পরিচ্ছন্নতাকর্মী থেকে মোটা অংকের টাকা দিয়ে হয়ে ওঠেন ময়লার গাড়িচালক।

ডিএসসিসির একটি সূত্র জানিয়েছে, হারুন ৩ লাখ টাকায় ময়লার গাড়ি বরাদ্দ নেন। গত দেড় বছর ধরে তিনি এভাবে ডিএসসিসির ময়লার গাড়ি চালাতেন। ৩ লাখ টাকায় বরাদ্দ নিলেও তার আয় হতো দ্বিগুণ। এছাড়া তিনি গাড়ির তেল চুরির কারসাজিও করতেন।

ডিএসসিসির সূত্র জানায়, ময়লার গাড়ির জন্য প্রতিদিন বরাদ্দ ১১ লিটার তেলের মধ্যে ৬ লিটার তিনি চুরি করে বিক্রি করে দিতেন। এভাবে প্রতিমাসে ১৮০ লিটার তেল চুরি করে বিক্রি করতেন। এতে তার আয় আরও বাড়তো।

মতিঝিল বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) আ. আহাদ জাগো নিউজকে বলেন, গাড়িটি চালাচ্ছিলেন রাসেল খান। তিনি প্রকৃতপক্ষে ওই গাড়ির চালক নন। আমরা গাড়ির কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করে ও গ্রেফতার রাসেলকে জিজ্ঞাসাবাদে জানতে পেরেছি, গাড়িটির মূল চালক হারুন।

তিনি আরও বলেন, সিটি করপোরেশনের বরাদ্দ দেওয়া গাড়ির চালক হারুন গাড়িটি চালানোর কথা থাকলেও তিনি না চালিয়ে রাসেলকে দিয়ে চালাচ্ছিলেন। এরই মধ্যে হারুনকে গ্রেফতারে আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। দ্রুতই তাকে আমরা আইনের আওতায় আনবো। হারুনকে গ্রেফতারের পর জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে কেন রাসেলকে দিয়ে গাড়ি চালাচ্ছিলেন।

এদিকে, বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ডিএসসিসির জনসংযোগ কর্মকর্তা আবু নাছের জানান, অবৈধভাবে গাড়ি বরাদ্দ নিয়ে তা চালানোয় পরিচ্ছন্নতাকর্মী হারুন মিয়া ও এ কাজে সহযোগিতা করায় পরিচ্ছন্নতাকর্মী আব্দুর রাজ্জাককে কর্মচ্যুত করা হয়েছে।

গত ২৪ নভেম্বর বেলা ১১টা ২০ মিনিটে পল্টন মডেল থানার গুলিস্তান গোলচত্বরের দক্ষিণ পাশে নটর ডেম কলেজের মানবিক বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র নাঈম হাসান (১৮) রাস্তা পার হওয়ার সময় পূর্ব দিক থেকে আসা ঢাকা দক্ষিণ সিটির একটি ট্রাক (রেজিস্ট্রেশন নম্বর ঢাকা মেট্রো-শ ১১-১২৪৪) বেপরোয়া গতিতে ময়লা নিয়ে ধাক্কা দিয়ে রাস্তায় ফেলে দেয়।

এতে নাইমের মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তাক্ত জখম হয়। স্থানীয়রা ও পুলিশ তাকে উদ্ধার করে দ্রুত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক) নেওয়ার পর জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক দুপুর পৌনে ১২টায় তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

দুর্ঘটনা ঘটিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় ট্রাকের চালক রাসেল খান ও গাড়ির ভেতরে থাকা পরিচ্ছন্নতাকর্মী গোলাম রব্বানী ও বেলালকে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ের আওয়ামী লীগ অফিসের পূর্ব প্রান্ত থেকে আটক করা হয়।

সেখান থেকে পুলিশ তাদের হেফাজতে নেয় ও ময়লার গাড়ি জব্দ করে। মরদেহের সুরতহাল প্রতিবেদন ও ময়নাতদন্ত শেষে হস্তান্তর করা হয়েছে। নিহতের বাবা শাহ আলম দেওয়ান বাদী হয়ে এ ঘটনায় মামলা করেছেন।

টিটি/এমএইচআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]