এসবিএসি ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যানসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে দুই মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:১০ পিএম, ১৭ জানুয়ারি ২০২২

ভুয়া প্রতিষ্ঠানের নামে ঋণ অনুমোদনের আগেই ১৮ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে সাউথ-বাংলা এগ্রিকালচার অ্যান্ড কর্মাস ব্যাংক লিমিটেডের (এসবিএসি) সাবেক চেয়ারম্যান এস এম আমজাদ হোসেন ও পরিচালক এম মোয়াজ্জেম হোসেনসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে পৃথক দুটি মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) দুদকের ঢাকা সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মো. গুলশান আনোয়ার প্রধান বাদী হয়ে মামলা দুটি দায়ের করেন। সংস্থাটির জনসংযোগ দপ্তর জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

প্রথম মামলায় রাফি মাহি করপোরেশন নামের কাগুজে প্রতিষ্ঠানের নামে ১২ কোটি ১১ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে আটজন ও দ্বিতীয় মামলায় ৬ কোটি ৮ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ছয়জনকে আসামি করা হয়েছে। দুই মামলাতেই আমজাদ হোসেনকে আসামি করা হয়েছে।

প্রথম মামলার আট আসামি হলেন, সাউথ-বাংলা এগ্রিকালচার অ্যান্ড কর্মাস ব্যাংক লিমিটেডের সাবেক চেয়ারম্যান এস এম আমজাদ হোসেন, পরিচালক ক্যাপ্টেন এম মোয়াজ্জেম হোসেন, রাফি-মাহি করপোরেশনের মালিক এ কে এম আসিফ উদ্দিন, ব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট শেখ শরফুদ্দিন, ফার্স্ট অ্যাসিটেন্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. রুমন-উল-ইসলাম, এক্সিকিউটিভ অফিসার ইশতিয়াক আহমেদ, মো. তানজির উদ্দিন চেীধুরী ও সিনিয়র তাসরিমা নাহিদ।

দ্বিতীয় মামলার ছয় আসামি হলেন- সাউথ-বাংলা এগ্রিকালচার অ্যান্ড কর্মাস ব্যাংক লিমিটেডের সাবেক চেয়ারম্যান এস এম আমজাদ হোসেন, ভাইস প্রেসিডেন্ট শেখ শরফুদ্দিন, ফার্স্ট এক্সকিউটিভ অফিসার মো. তানজির উদ্দিন চৌধুরী, সিনিয়র অফিসার মো. বুলবুল ইফতেখার আলী, আল-আমিন করপোরেশনের মালিক মো. মাসুদুর রহমান ও জামাল আহমেদ।

এ বিষয়ে দুদক সচিব মো. মাহবুব হোসেন জাগো নিউজকে বলেন, সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার অ্যান্ড কর্মাস ব্যাংকের তৎকালীন মতিঝিল শাখা থেকে আসামিরা কোনো যাচাই-বাছাই ছাড়াই কাগুজে প্রতিষ্ঠানের নামে ঋণের টাকা আত্মসাৎ করেছে। আমজাদ হোসেন ও মোয়াজ্জেম হোসেনসহ অন্যান্যদের আসামি করে মামলা দায়ের হয়েছে।

আসামিদের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধি, ১৮৬০ এর ৪০৯, ৪২০, ৪৬৭, ৪৬৮, ৪৭১, ১০৯ ধারা ও ১৯৪৭ সনের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারা এবং মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইন, ২০১২ এর ৪ (২), (৩) ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে।

দুই মামলার এজাহারেই বলা হয়েছে, সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার অ্যান্ড কর্মাস ব্যাংক লিমিটেডের বিজয়নগর শাখা থেকে প্রতারণার মাধ্যমে রাফি মাহি করপোরেশন নামের কাগুজে প্রতিষ্ঠানের নামে ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ের ঋণ অনুমোদনের পূর্বেই এস এম আমজাদ হোসেনসহ অন্যান্য আসামিরা ১২ কোটি ১১ লাখ টাকা ব্যাংক থেকে উত্তোলন করে আত্মসাৎ করেন।

এতে আরও বলা হয়, ব্যাংকটির মতিঝিল শাখা থেকে প্রতারণার মাধ্যমে যাচাই-বাছাই ছাড়াই ভুয়া এসওডি-ওয়ার্ক অর্ডারের বিপরীতে ওই ব্যাংকের চেয়ারম্যান এস এম আমজাদ হোসেনের নির্দেশে অনুমোদন না নিয়েই ৬ কোটি ৮ লাখ টাকা উত্তোলন ও আত্মসাৎ করে আসামিরা। এখানে আল-আমিন করপোরেশন নামের আরেকটি কাগুজে প্রতিষ্ঠানকে ঋণগ্রহীতা হিসেবে সাজানো হয়েছে।

এসএম/এমকেআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]