ওমিক্রন: শাঁখের করাত

ডা. মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীল
ডা. মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীল ডা. মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীল
প্রকাশিত: ০১:৪৩ পিএম, ১৮ জানুয়ারি ২০২২

ওমিক্রন নিয়ে আমাদের অবস্থা এখন অনেকটা শাঁখের করাতের মতন। এই লেখাটি যখন লিখতে বসা, তখন বাংলাদেশে একদিনে নতুন কোভিড রোগী শনাক্তের হার ২০ শতাংশ ছাপিয়ে গেছে। দুনিয়াজুড়েই একের পর এক রেকর্ড ভেঙে চলছে ওমিক্রন। ডেল্টার তাণ্ডবেও যেখানে একদিনে গোটা পৃথিবীতে নতুন রোগীর সংখ্যা পাঁচ লাখ ছাড়িয়েছে কি ছাড়ায়নি, সেখানে এক মার্কিন মুলুকেই একদিনে ১০ লাখের বেশি মানুষকে কোভিডে কুপোকাত হতে দেখেছি আমরা এই কদিন আগেই।

ওমিক্রন নিয়ে দু’ধরনের বিষয় আলোচনায় আসছে। বলা হচ্ছে এটি আপাতদৃষ্টিতে ডেল্টার চেয়ে কম বিধ্বংসী হলেও একটু অসচেতনতায় ঘটে যেতে পারে বড় ধরনের বিপর্যয়। কারণ ওমিক্রন ডেল্টার চেয়ে ঢের বেশি তাড়াতাড়ি ছড়ায়। কাজেই একসাথে অনেক মানুষ একদিনে ওমিক্রনে আক্রান্ত হলে তাতে হাসপাতালগুলোর ওপর চাপ বাড়তে বাধ্য।

ডেল্টার সময় আমরা দেশে দেশে আইসিইউ আর শশ্মান-গোরস্থানে যে মিছিল দেখেছি সে জিনিসের পুনরাবৃত্তি ঘটতেই পারে ওমিক্রনের জোয়ারেও। বিশেষ করে স্বাস্থ্যসেবা কর্মীরা দলে দলে আক্রান্ত হয়ে পড়লে একেতো রোগীর চাপ আর অন্যদিকে সেবা দেয়ার জনবল সংকটে ভেঙে পড়তেই পারে স্বাস্থ্যসেবা।

এমনটি আমরা রিয়েল টাইমেই হতে দেখেছি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আর যুক্তরাজ্যের মতো উন্নততম দেশগুলোতেও, যেখানে সামান্য কোভিড টেস্ট করতেই লেগে যাচ্ছে তিন-চারদিন আর হাসপাতালে শয্যার অভাবে কোভিড রোগীদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে দিনের পর দিন হুইল চেয়ারে বসিয়ে।

আবার এই ওমিক্রন নিয়েই শোনানো হচ্ছে আশার বাণীও। বলা হচ্ছে, ওমিক্রনের মধ্যে দিয়েই হয়তো শেষ হবে কোভিড মহামারি। এরপর রোগটি প্যান্ডেমিক থেকে হয়তো অ্যান্ডেমিকে পরিণত হবে। অর্থাৎ কোথাও কোথাও কিছু কিছু মানুষ কোভিডে আক্রান্ত হবেন ঠিকই, কিন্তু দুনিয়াজুড়ে সবাই এক সাথে, একভাবে আর বিপদগ্রস্ত হবেন না।

এমনটি বলার কারণ, অতীতেও দেখা গেছে প্রথম ওয়েভের পর প্যান্ডেমিকের দ্বিতীয় ওয়েভটি সাধারণত আরও ভয়াবহভাবে আসে, কিন্তু তারপর তৃতীয় ওয়েভে এর সংক্রমণের হার কয়েকগুণ বেড়ে গেলেও, ভিরুলেন্স বা রোগ সৃষ্টির সক্ষমতা কমে আসে। এর কারণ অনেকগুলো।

ভাইরাসের বারবার মিউটেশনের কারণে যেমন এরকমটি ঘটতে পারে, তেমনি এ ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা থাকতে পারে হার্ড ইমিউনিটিরও। তাছাড়া এবারই একটি প্যান্ডেমিক চলাকালীনই আমরা একাধিক কার্যকর ভ্যাকসিন পেয়ে গেছি, যেখানে স্প্যানিশ ফ্লুর ভ্যাকসিনের জন্য মানব জাতিকে অপেক্ষা করতে হয়েছিল প্যান্ডেমিকটি শেষ হওয়ার পরও আরও তিন দশকের বেশি সময়। এই কথাগুলোই উঠে আসছে বিশেষজ্ঞদের লেখায় আর বলায় আর এমনকি খোদ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার শীর্ষ কর্তার বক্তব্যেও।

তবে কোভিডকে পাকাপাকিভাবে বিদায় জানানোর এই যে অসম্ভব সুযোগটি আমাদের সামনে উপস্থিত তাকে কাজে লাগাতে হলে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা ছাড়া কোনো উপায় নেই। কারণ ভাইরাস যদি বিনা বাধায় একজন থেকে আরেকজনে আর আরেকজন থেকে আরও অনেকজনে ছড়িয়ে পড়তে থাকে, সেক্ষেত্রে তার আরও কোনো মিউটেশন হয়ে যাওয়ার শঙ্কাটা থেকেই যায়। সেক্ষেত্রে ওমিক্রন যেমন ডেল্টাকে হটিয়ে বিশ্ব জয় করছে, তেমনি ডেল্টার চেয়েও খারাপ কোনো ভ্যারিয়েন্টকে যে ওমিক্রনের বিদায় ঘণ্টা বাজিয়ে দেবে না, তার নিশ্চয়তা কেউ দিতে পারবে না।

অথচ এবারই কেন যেন স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা মানুষের উদাসীনতা বড্ড বেশি। আগেও আমরা দেখেছি অনেকেই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে চান না। কিন্তু এবার এই না মানার দল অনেক ভারী। এ নিয়ে সরকারি-বেসরকারি উদ্যোগ আছে অনেক। চেষ্টা আছে মানুষকে বুঝিয়ে-সুঝিয়ে স্বাস্থ্যবিধি মানানোর আর প্রয়োজনে বাধ্য করারও। আমার নিজস্ব কয়েকটা অবজারভেশন আছে এ বিষয়ে।

প্রথমতঃ ওমিক্রন নামটাতেই সমস্যা আছে। এ নামটা এমনভাবে চাউর হয়েছে যেন পৃথিবী থেকে কোভিড বিদায় নিয়েছে আর তার জায়গায় এসেছে ওমিক্রন নামে নতুন কোনো প্যান্ডেমিক। সমস্যা আছে আরেকটা জায়গায়ও। আমরা ডেল্টার সাথে বারবার তুলনা করতে গিয়ে মানুষকে একটা ভুল সিগন্যাল দিয়ে বসেছি যে ওমিক্রন ডেল্টার চেয়ে অনেক কম মারাত্মক।

অথচ এটি যে ডেল্টার মতোই ভয়াবহ হয়ে উঠতে পারে সেটি আমরা সেভাবে মানুষকে বোঝাতে পারিনি। তার চেয়েও বড় বিষয়, আমরা বেমালুম ভুলে গেছি যে ওমিক্রন আসলে কোভিডেরই একটি ভ্যারিয়েন্ট। যে সময় ডেল্টা ছিল না তখনও কোভিডে লাখ লাখ মানুষ এই রোগে মৃত্যুবরণ করেছিলেন।

পাশাপাশি রোগ নিয়ে আমাদের যে চিরায়ত ধারণা, অর্থাৎ আমাকে আমার রোগের চিকিৎসা করাতে হবে আমার ভালোর জন্য, আমরা সেই জায়গাটা থেকে কোনো মতেই বেরিয়ে আসতে পারছি না। আমার লক্ষণ নেই, তারপরও আমাকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে চিকিৎসা নিতে হবে আপনার ভালোর জন্য- এ বিষয়টা আমরা এখনও ঠিকঠাক মতো আত্মস্থ করে উঠতে পারিনি। আমার মনে হয় সামনে যখন আমরা মানুষকে সচেতন করার চেষ্টা করবো তখন আমরা এ বিষয়গুলো মাথায় রাখতে পারি।

গতকালও আমাদের স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের শীর্ষকর্তা সাবধান করে বলেছেন ওমিক্রনে পরিণতিটা ভয়াবহ হতে পারে। শুধু এই একটি কারণই যথেষ্ট খুব দ্রুত সচেতন হওয়ার জন্য আর তার উপর তো থাকছে সচেতন হয়ে কোভিডকে পাকাপাকি বিদায় জানানোর সুযোগটাও। অতএব আসুন সচেতন হই, ভ্যাকসিন নেই আর স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলে আপনি-আমি-আমরা সবাই মিলে ভালো থাকি।

লেখক : ডিভিশন প্রধান, ইন্টারভেনশনাল হেপাটোলজি ডিভিশন ও সদস্য সচিব, সম্প্রীতি বাংলাদেশ।

এইচআর/জেআইএম/ফারুক

আমাকে আমার রোগের চিকিৎসা করাতে হবে আমার ভালোর জন্য, আমরা সেই জায়গাটা থেকে কোন মতেই বেরিয়ে আসতে পারছি না। আমার লক্ষণ নেই, তারপরও আমাকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে চিকিৎসা নিতে হবে আপনার ভালোর জন্য- এই বিষয়টা আমরা এখনও ঠিকঠাক মত আত্মস্থ করে উঠতে পারিনি। আমার মনে হয় সামনে যখন আমরা মানুষকে সচেতন করার চেষ্টা করবো তখন আমরা এই বিষয়গুলো মাথায় রাখতে পারি।

করোনা ভাইরাস - লাইভ আপডেট

৫৫,০৬,৪৩,০০২
আক্রান্ত

৬৩,৫৩,৬৮০
মৃত

৫২,৬২,৮৪,৪১৯
সুস্থ

# দেশ আক্রান্ত মৃত সুস্থ
বাংলাদেশ ১৯,৬৯,৩৬১ ২৯,১৪৫ ১৯,০৭,০৬৭
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ৮,৯০,৩০,৭২৭ ১০,৪১,৩৫৪ ৮,৪৭,০৮,৫৯৯
ভারত ৪,৩৪,৩৬,৪৩৩ ৫,২৫,০৪৭ ৪,২৭,৯৭,০৯২
ব্রাজিল ৩,২২,০৭,০৮২ ৬,৭০,৯০০ ৩,০৭,৬৪,৯২৩
ফ্রান্স ৩,০৮,২৫,৭৮৯ ১,৪৯,৪৪৩ ২,৯৫,৬৩,৮১৩
জার্মানি ২,৭৯,১৪,২৪০ ১,৪০,৮৪৭ ২,৬৫,৪৬,৫০০
যুক্তরাজ্য ২,২৬,৬১,৫৪২ ১,৮০,১২৮ ২,২১,৩২,৫০৪
রাশিয়া ১,৮৪,২৪,১০৫ ৩,৮১,০০২ ১,৭৮,৫১,২৮২
দক্ষিণ কোরিয়া ১,৮৩,৪৯,৭৫৬ ২৪,৫৩৭ ১,৮১,৯৩,৫৪৮
১০ স্পেন ১,৮৩,৪৮,০২৯ ১,৫৯,৬০৫ ১,২২,১৮,৩৫৮
১১ ইতালি ১,৮৩,৪৩,৪২২ ১,৬৮,২৩৪ ১,৭৪,০১,৭৩৮
১২ তুরস্ক ১,৫০,৯৬,৬৯৬ ৯৯,০১৫ ১,৪৯,৯৩,৯৯৩
১৩ ভিয়েতনাম ১,০৭,৪৪,৮৫৪ ৪৩,০৮৭ ৯৬,৬৫,৯৭২
১৪ আর্জেন্টিনা ৯৩,৬৭,১৭২ ১,২৯,০৭০ ৯১,৫২,৮১০
১৫ জাপান ৯২,৬৫,৩৭৪ ৩১,১৩৯ ৯০,৯২,৭১১
১৬ নেদারল্যান্ডস ৮১,৭১,৩৯৬ ২২,৩৬২ ৮০,৬১,৩৫১
১৭ অস্ট্রেলিয়া ৮০,৭১,৬৩১ ৯,৮০৯ ৭৭,৮৭,৭০২
১৮ ইরান ৭২,৩৭,১৫৬ ১,৪১,৩৮৬ ৭০,৬২,১৯৮
১৯ কলম্বিয়া ৬১,৫১,৩৫৪ ১,৩৯,৯৭০ ৫৯,৬৫,০৮৩
২০ ইন্দোনেশিয়া ৬০,৮৪,০৬৩ ১,৫৬,৭২৮ ৫৯,১২,০২৫
২১ পোল্যান্ড ৬০,১৩,৮৫৯ ১,১৬,৪২০ ৫৩,৩৫,৬৫৫
২২ মেক্সিকো ৫৯,৮৬,৯১৭ ৩,২৫,৬৩৮ ৫১,৭৬,০৯১
২৩ পর্তুগাল ৫১,৫৪,২৯৬ ২৪,০৮২ ৪৬,৮৮,৪২৭
২৪ ইউক্রেন ৫০,১৭,০৩৮ ১,০৮,৬৩৮ ৪৯,০৬,৩৮৩
২৫ মালয়েশিয়া ৪৫,৬০,৫৮৩ ৩৫,৭৫৮ ৪৪,৯৭,০৭৮
২৬ থাইল্যান্ড ৪৫,২০,২২০ ৩০,৬৩৭ ৪৪,৬৬,৫৫৭
২৭ অস্ট্রিয়া ৪৪,০৩,৪৪৪ ১৮,৭৬৮ ৪২,৯৩,১১৫
২৮ ইসরায়েল ৪৩,২৮,৭৪১ ১০,৯৪৬ ৪২,৫২,৩১৪
২৯ বেলজিয়াম ৪২,২৫,২২২ ৩১,৯০৩ ৪১,১৯,৫৭২
৩০ দক্ষিণ আফ্রিকা ৩৯,৯৩,০০৪ ১,০১,৭৪৫ ৩৮,৭৯,০০২
৩১ চিলি ৩৯,৭৩,২৯১ ৫৮,৪৫৯ ৩৬,৩৪,৭৯৬
৩২ কানাডা ৩৯,৩২,৬৭৮ ৪১,৮৮১ ৩৫,৫৭,৪১৯
৩৩ চেক প্রজাতন্ত্র ৩৯,৩০,৩৯৯ ৪০,৩১৪ ৩৮,৮৬,১৮১
৩৪ সুইজারল্যান্ড ৩৭,৪১,৮৫৯ ১৩,৯৮৪ ৩৬,৪১,৭৪৮
৩৫ ফিলিপাইন ৩৭,০২,৩১৯ ৬০,৫৩১ ৩৬,৩৪,৫৯৬
৩৬ তাইওয়ান ৩৬,৮৬,৩৩৮ ৬,৪৪৮ ২৬,১৪,৪৭৫
৩৭ গ্রীস ৩৬,৪৪,৮৮৯ ৩০,২০৬ ৩৪,৯৪,৮৬৬
৩৮ পেরু ৩৬,১৭,৬২৯ ২,১৩,৪৭৫ ৩৩,৮০,১৫০
৩৯ ডেনমার্ক ৩০,১০,৯০৪ ৬,৪৫৪ ২৯,৮৭,১৬৪
৪০ রোমানিয়া ২৯,১৯,৪৬১ ৬৫,৭৩৯ ২৮,৪৭,১৩৯
৪১ সুইডেন ২৫,১৫,৭৬৯ ১৯,০৬০ ২৪,৮৯,৫৬৬
৪২ ইরাক ২৩,৪৩,২৬৫ ২৫,২৩৭ ২৩,০৭,২৭৩
৪৩ সার্বিয়া ২০,২৭,৬০৬ ১৬,১২৫ ২০,০৩,৫৮৫
৪৪ হাঙ্গেরি ১৯,২৫,০৮৩ ৪৬,৬২৬ ১৮,৬৯,২৪৪
৪৫ স্লোভাকিয়া ১৭,৯৪,৮৭৬ ২০,১৪৪ ১৭,৭১,২৮৪
৪৬ জর্ডান ১৬,৯৮,৩১৬ ১৪,০৬৮ ১৬,৮৩,৭৪৬
৪৭ জর্জিয়া ১৬,৫৯,৩৭১ ১৬,৮৩৯ ১৬,৩৭,২৯৩
৪৮ আয়ারল্যান্ড ১৫,৮৭,৩৮৫ ৭,৪৩৭ ১৫,৫৪,২৫৫
৪৯ পাকিস্তান ১৫,৩৪,৬০৩ ৩০,৪৩৬ ১৪,৯৮,৯৮১
৫০ নরওয়ে ১৪,৪৫,৮২৪ ৩,২৮০ ১৪,৩৩,৫৭৫
৫১ সিঙ্গাপুর ১৪,২৫,১৭১ ১,৪১০ ১৩,৩০,৩৭৬
৫২ নিউজিল্যান্ড ১৩,৩০,৫৩৮ ১,৪৪৯ ১২,৮৭,৭৩৪
৫৩ কাজাখস্তান ১৩,০৬,৩৬১ ১৩,৬৬৩ ১২,৯২,২৯৮
৫৪ হংকং ১২,৪১,৪৩৫ ৯,৩৯৯ ১২,০১,১৮৮
৫৫ মরক্কো ১২,০৯,৩০২ ১৬,১০৪ ১১,৭১,১৮০
৫৬ বুলগেরিয়া ১১,৭১,২৩৫ ৩৭,২৪৯ ১০,৭৩,৯৬৯
৫৭ ক্রোয়েশিয়া ১১,৪৬,১৮৩ ১৬,০৫৯ ১১,২৬,৪২১
৫৮ ফিনল্যাণ্ড ১১,৩৩,৫৯৭ ৪,৮৩২ ১১,০০,৩৭৯
৫৯ লেবানন ১১,০৯,৪২৩ ১০,৪৬৩ ১০,৮৭,৫৮৭
৬০ কিউবা ১১,০৫,৯৬৭ ৮,৫২৯ ১০,৯৭,২৫৮
৬১ লিথুনিয়া ১০,৬৭,০১৬ ৯,১৭০ ১০,৩৮,৩০০
৬২ তিউনিশিয়া ১০,৪৬,৭০৩ ২৮,৬৭০ ৯,৮৩,৬৩০
৬৩ স্লোভেনিয়া ১০,৩৬,৬৫৩ ৬,৬৫১ ১০,২২,৩১৫
৬৪ বেলারুশ ৯,৮২,৮৬৭ ৬,৯৭৮ ৯,৩১,১৫০
৬৫ নেপাল ৯,৭৯,৬০৭ ১১,৯৫২ ৯,৬৭,৪২৬
৬৬ উরুগুয়ে ৯,৫৭,৬২৯ ৭,৩৩১ ৯,৪৪,৯৫৯
৬৭ সংযুক্ত আরব আমিরাত ৯,৪২,২৫৩ ২,৩১৩ ৯,২২,৫১৮
৬৮ মঙ্গোলিয়া ৯,২৮,০১৩ ২,১৭৯ ৩,১৩,২৫৬
৬৯ বলিভিয়া ৯,২২,১২১ ২১,৯৫৩ ৮,৮২,০৩৯
৭০ পানামা ৯,১৭,৯১২ ৮,৩৫২ ৮,৯৫,০৪০
৭১ কোস্টারিকা ৯,০৪,৯৩৪ ৮,৫২৫ ৮,৬০,৭১১
৭২ ইকুয়েডর ৯,০১,৭৩৯ ৩৫,৭০৫ ৪,৪৩,৮৮০
৭৩ গুয়াতেমালা ৯,০১,৩০০ ১৮,৫১৬ ৮,৫৩,৩৬৯
৭৪ লাটভিয়া ৮,৩৪,৫৩৫ ৬,০০৮ ৮,২৫,১৩৬
৭৫ সৌদি আরব ৭,৯৩,৭২৯ ৯,২০৫ ৭,৭৪,৯৫৪
৭৬ আজারবাইজান ৭,৯৩,১৭৬ ৯,৭১৭ ৭,৮৩,৩১৭
৭৭ শ্রীলংকা ৬,৬৪,০৯৮ ১৬,৫২১ ৬,৪৭,০২৩
৭৮ প্যারাগুয়ে ৬,৫৫,৫৩২ ১৮,৯৬৩ ৬,২৪,৬৭৩
৭৯ কুয়েত ৬,৪৩,০০৪ ২,৫৫৫ ৬,৩৫,৭৬৭
৮০ বাহরাইন ৬,২২,২৬১ ১,৪৯৮ ৬,০৬,২৯১
৮১ মায়ানমার ৬,১৩,৫৭৭ ১৯,৪৩৪ ৫,৯২,৫৩৬
৮২ ডোমিনিকান আইল্যান্ড ৬,০৩,২৫৬ ৪,৩৮৩ ৫,৯৫,৩১৭
৮৩ ফিলিস্তিন ৫,৮৪,২৪৩ ৫,৩৫৬ ৫,৭৭,৯৩৮
৮৪ এস্তোনিয়া ৫,৭৯,৩১৬ ২,৫৮৮ ৫,২১,৭৫৯
৮৫ ভেনেজুয়েলা ৫,২৫,৮২৭ ৫,৭৩০ ৫,১৮,২৮৭
৮৬ মলদোভা ৫,১৯,৭৪১ ১১,৫৬৩ ৫,০৪,১৪২
৮৭ মিসর ৫,১৫,৬৪৫ ২৪,৬১৩ ৪,৪২,১৮২
৮৮ সাইপ্রাস ৫,০৪,৭১৭ ১,০৭২ ১,২৪,৩৭০
৮৯ লিবিয়া ৫,০২,১৩৮ ৬,৪৩০ ৪,৯০,৯৭৩
৯০ ইথিওপিয়া ৪,৮৮,১০৮ ৭,৫৩৫ ৪,৫৯,৮১৬
৯১ হন্ডুরাস ৪,২৬,৮৭৯ ১০,৯০৫ ১,৩২,৪৯৮
৯২ আর্মেনিয়া ৪,২৩,২৪৩ ৮,৬২৯ ৪,১২,৬৬১
৯৩ রিইউনিয়ন ৪,২২,৭৬৯ ৮১২ ৪,১৮,৫৭২
৯৪ ওমান ৩,৯০,২৪৪ ৪,২৬০ ৩,৮৪,৬৬৯
৯৫ কাতার ৩,৮১,২৬৯ ৬৭৯ ৩,৭৫,৬২৭
৯৬ বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা ৩,৭৮,৫৭৭ ১৫,৮০৫ ১৫,৮১,১৬৪
৯৭ কেনিয়া ৩,৩২,৮৯৮ ৫,৬৫২ ৩,২৩,৪৫৫
৯৮ জাম্বিয়া ৩,২৫,৪৯৮ ৪,০০৩ ৩,২০,৩৩০
৯৯ বতসোয়ানা ৩,২১,৯৬৮ ২,৭৩৯ ৩,১৩,৫৭৬
১০০ উত্তর ম্যাসেডোনিয়া ৩,১৩,৭০৮ ৯,৩২২ ৩,০৩,৭৩৮
১০১ আলবেনিয়া ২,৭৯,১৬৭ ৩,৪৯৮ ২,৭৩,৮৪২
১০২ আলজেরিয়া ২,৬৬,০৬২ ৬,৮৭৫ ১,৭৮,৫১৮
১০৩ নাইজেরিয়া ২,৫৬,৯৫৮ ৩,১৪৪ ২,৫০,১৭৭
১০৪ জিম্বাবুয়ে ২,৫৫,৩৮৩ ৫,৫৪৯ ২,৪৮,৩১৭
১০৫ লুক্সেমবার্গ ২,৫৪,৬৯৭ ১,০৮৫ ২,৪৬,৬১০
১০৬ উজবেকিস্তান ২,৪০,৫৬৯ ১,৬৩৭ ২,৩৭,৯৪১
১০৭ মন্টিনিগ্রো ২,৩৯,৫৫২ ২,৭২৫ ২,৩৮,৪৭২
১০৮ মোজাম্বিক ২,২৭,৭২৫ ২,২১২ ২,২৫,০৯২
১০৯ চীন ২,২৫,৬০৫ ৫,২২৬ ২,১৯,৯১৫
১১০ লাওস ২,১০,২৫৮ ৭৫৭ ৭,৬৬০
১১১ কিরগিজস্তান ২,০১,০৫৩ ২,৯৯১ ১,৯৬,৪০৬
১১২ আইসল্যান্ড ১,৯২,৯৯১ ১৫৩ ৭৫,৬৮৫
১১৩ মার্টিনিক ১,৯২,৫০৬ ৯৫৭ ১০৪
১১৪ আফগানিস্তান ১,৮২,৩২৪ ৭,৭২২ ১,৬৪,৩৬৪
১১৫ মালদ্বীপ ১,৮১,৫৮৬ ৩০৫ ১,৬৩,৬৮৭
১১৬ এল সালভাদর ১,৬৯,৬৪৬ ৪,১৪১ ১,৫৯,৯৯৩
১১৭ নামিবিয়া ১,৬৯,০৭৬ ৪,০৬১ ১,৬৪,৪৫২
১১৮ গুয়াদেলৌপ ১,৬৮,৭১৪ ৯৫৫ ২,২৫০
১১৯ উগান্ডা ১,৬৭,৫১১ ৩,৬২১ ১,০০,৪০১
১২০ ত্রিনিদাদ ও টোবাগো ১,৬৬,৯০০ ৪,০০৫ ১,৫৬,১৭৪
১২১ ঘানা ১,৬৫,৭৪৯ ১,৪৪৯ ১,৬২,৭৪৪
১২২ ব্রুনাই ১,৫৯,৫৯১ ২২৫ ১,৫৭,৬৬৭
১২৩ জ্যামাইকা ১,৪২,৬২৬ ৩,১২১ ৯০,৭৬২
১২৪ কম্বোডিয়া ১,৩৬,২৬২ ৩,০৫৬ ১,৩৩,২০৬
১২৫ রুয়ান্ডা ১,৩০,৯০২ ১,৪৫৯ ৪৫,৫২২
১২৬ ক্যামেরুন ১,২০,০৬৮ ১,৯৩১ ১,১৭,৭৯১
১২৭ মালটা ১,০২,০২৩ ৭৪০ ৯৫,২৬৫
১২৮ অ্যাঙ্গোলা ৯৯,৭৬১ ১,৯০০ ৯৭,১৪৯
১২৯ ড্যানিশ রিফিউজি কাউন্সিল ৯১,০৮২ ১,৩৭১ ৫০,৯৩০
১৩০ ফ্রেঞ্চ গায়ানা ৮৬,৯১১ ৪০১ ১১,২৫৪
১৩১ মালাউই ৮৬,৪৪৮ ২,৬৪৫ ৮৩,০৪৬
১৩২ সেনেগাল ৮৬,২৮৯ ১,৯৬৮ ৮৪,২৯৯
১৩৩ বার্বাডোস ৮৩,৯৭৫ ৪৭৩ ৮২,৪২৭
১৩৪ আইভরি কোস্ট ৮৩,০৪৯ ৮০৫ ৮২,০৩৬
১৩৫ সুরিনাম ৮০,৮৬৪ ১,৩৬৯ ৪৯,৫৭৫
১৩৬ চ্যানেল আইল্যান্ড ৭৯,৬৭৭ ১৭৯ ৭৭,৮২১
১৩৭ ফ্রেঞ্চ পলিনেশিয়া ৭৩,২৬৮ ৬৪৯ ৩৩,৫০০
১৩৮ ইসওয়াতিনি ৭৩,০৯১ ১,৪১৬ ৭১,৬৩০
১৩৯ গায়ানা ৬৭,২২১ ১,২৫১ ৬৫,১৪১
১৪০ ফিজি ৬৫,৫৫৮ ৮৬৫ ৬৩,৫৮৭
১৪১ মাদাগাস্কার ৬৫,৩৮১ ১,৩৯৮ ৬৩,২৮৬
১৪২ নিউ ক্যালেডোনিয়া ৬৪,২০১ ৩১৩ ৬২,৮৪২
১৪৩ বেলিজ ৬৩,৫৭২ ৬৭৯ ৬১,৮৮৫
১৪৪ সুদান ৬২,৫৫১ ৪,৯৫১ ৪০,৩২৯
১৪৫ ভুটান ৫৯,৭২৯ ২১ ৫৯,৬৫৭
১৪৬ মৌরিতানিয়া ৫৯,৫৬৯ ৯৮২ ৫৮,২৯২
১৪৭ কেপ ভার্দে ৫৯,৪১৬ ৪০৩ ৫৭,৭৫২
১৪৮ সিরিয়া ৫৫,৯২৫ ৩,১৫০ ৫২,৭৫৬
১৪৯ গ্যাবন ৪৭,৮২৪ ৩০৫ ৪৭,৩৪৩
১৫০ পাপুয়া নিউ গিনি ৪৪,৭১১ ৬৬২ ৪৩,৯৮২
১৫১ সিসিলি ৪৪,৫২১ ১৬৭ ৪৩,৯০৫
১৫২ কিউরাসাও ৪৪,১২৭ ২৭৭ ৪৩,৫৬৭
১৫৩ এনডোরা ৪৩,৭৭৪ ১৫৩ ৪৩,১৯২
১৫৪ বুরুন্ডি ৪২,৫৪২ ৩৮ ৭৭৩
১৫৫ আরুবা ৪০,৫৯৫ ২২১ ৩৯,৯০৫
১৫৬ মরিশাস ৩৮,৪২৭ ১,০০২ ৩৬,৬৯২
১৫৭ মায়োত্তে ৩৭,৫২৩ ১৮৭ ২,৯৬৪
১৫৮ টোগো ৩৭,৩৬১ ২৭৫ ৩৬,৯৯৯
১৫৯ গিনি ৩৬,৫৯৭ ৪৪২ ৩৬,১১৩
১৬০ বাহামা ৩৫,৯০২ ৮১৭ ৩৪,২২৮
১৬১ তানজানিয়া ৩৫,৩৬৬ ৮৪১ ১৮৩
১৬২ ফারে আইল্যান্ড ৩৪,৬৫৮ ২৮ ৭,৬৯৩
১৬৩ লেসোথো ৩৩,৯৩৮ ৬৯৯ ২৪,১৫৫
১৬৪ আইল অফ ম্যান ৩৩,৮২১ ১০৮ ২৬,৭৯৪
১৬৫ হাইতি ৩১,৪৭০ ৮৩৭ ২৯,৮৫৫
১৬৬ মালি ৩১,১৬০ ৭৩৭ ৩০,৩২৭
১৬৭ কেম্যান আইল্যান্ড ২৭,১৭১ ২৮ ৮,৫৫৩
১৬৮ বেনিন ২৭,১২২ ১৬৩ ২৫,৫০৬
১৬৯ সেন্ট লুসিয়া ২৬,৯৮৪ ৩৮০ ২৬,৪৯২
১৭০ সোমালিয়া ২৬,৮০৩ ১,৩৫০ ১৩,১৮২
১৭১ কঙ্গো ২৪,১২৮ ৩৮৫ ২০,১৭৮
১৭২ পূর্ব তিমুর ২২,৯৫৪ ১৩৩ ২২,৮০৯
১৭৩ সলোমান আইল্যান্ড ২১,২৩৭ ১৪৯ ১৬,৩৫৭
১৭৪ বুর্কিনা ফাঁসো ২০,৮৫৩ ৩৮২ ২০,৪৩৯
১৭৫ জিব্রাল্টার ১৯,৩০৬ ১০৪ ১৬,৫৮৩
১৭৬ নিকারাগুয়া ১৮,৪৯১ ২২৫ ৪,২২৫
১৭৭ গ্রেনাডা ১৮,২৭০ ২৩২ ১৭,৯২০
১৭৮ লিচেনস্টেইন ১৭,৮৬০ ৮৫ ১৭,৬৪৭
১৭৯ তাজিকিস্তান ১৭,৭৮৬ ১২৫ ১৭,২৬৪
১৮০ সান ম্যারিনো ১৭,৭৬৭ ১১৫ ১৭,৩৩২
১৮১ দক্ষিণ সুদান ১৭,৭২২ ১৩৮ ১৫,৬৩০
১৮২ ইকোয়েটরিয়াল গিনি ১৬,০৩৪ ১৮৩ ১৫,৭৪২
১৮৩ বারমুডা ১৫,৯৫৭ ১৩৮ ১৫,৫৬৮
১৮৪ জিবুতি ১৫,৬৯০ ১৮৯ ১৫,৪২৭
১৮৫ সামোয়া ১৪,৯০৬ ২৯ ১,৬০৫
১৮৬ ডোমিনিকা ১৪,৮৫২ ৬৮ ১৪,৫৫৪
১৮৭ সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিক ১৪,৬৪৯ ১১৩ ৬,৮৫৯
১৮৮ মোনাকো ১২,৮৮৭ ৫৭ ১২,৬৫৩
১৮৯ টাঙ্গা ১২,৩০১ ১২ ১২,১২০
১৯০ গাম্বিয়া ১২,০০২ ৩৬৫ ১১,৫৯১
১৯১ গ্রীনল্যাণ্ড ১১,৯৭১ ২১ ২,৭৬১
১৯২ ইয়েমেন ১১,৮২৪ ২,১৪৯ ৯,১০৮
১৯৩ ভানুয়াতু ১১,২০৬ ১৪ ১১,১২৬
১৯৪ সেন্ট মার্টিন ১০,৬৬৮ ৬৩ ১,৩৯৯
১৯৫ সিন্ট মার্টেন ১০,৫৮০ ৮৬ ১০,৪৫৯
১৯৬ ক্যারিবিয়ান নেদারল্যান্ডস ১০,৩৭৩ ৩৫ ১০,২৬১
১৯৭ ইরিত্রিয়া ৯,৭৯৬ ১০৩ ৯,৬৭৯
১৯৮ নাইজার ৯,০৩১ ৩১০ ৮,৬২৮
১৯৯ অ্যান্টিগুয়া ও বার্বুডা ৮,৬২৫ ১৪১ ৮,৪২৬
২০০ গিনি বিসাউ ৮,৩৪৮ ১৭১ ৮,১০৫
২০১ কমোরস ৮,১০০ ১৬০ ৭,৯৩৩
২০২ সিয়েরা লিওন ৭,৬৯৫ ১২৫ ৪,৩৯৩
২০৩ লাইবেরিয়া ৭,৪৯৩ ২৯৪ ৫,৭৪৭
২০৪ চাদ ৭,৪২৫ ১৯৩ ৪,৮৭৪
২০৫ সেন্ট ভিনসেন্ট ও গ্রেনাডাইন আইল্যান্ড ৭,০১৪ ১১১ ৬,৬৪১
২০৬ ব্রিটিশ ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ ৬,৯৪১ ৬৩ ২,৬৪৯
২০৭ টার্কস্ ও কেইকোস আইল্যান্ড ৬,২১১ ৩৬ ৬,১২৮
২০৮ সেন্ট কিটস ও নেভিস ৫,৯৯২ ৪৩ ৫,৮৬২
২০৯ কুক আইল্যান্ড ৫,৭৭৪ ৫,৭৬৪
২১০ পালাও ৫,২২০ ৪,৫৬৪
২১১ সেন্ট বারথেলিমি ৪,৬৩০ ৪৬২
২১২ এ্যাঙ্গুইলা ৩,৪৫৬ ৩,৪২৬
২১৩ কিরিবাতি ৩,২৩৬ ১৩ ২,৬৬৫
২১৪ নাউরু ২,৭৮০ ১২
২১৫ সেন্ট পিয়ের এন্ড মিকেলন ২,৭৬৭ ২,৪৪৯
২১৬ ফকল্যান্ড আইল্যান্ড ১,৮০৭ ৬৮
২১৭ মন্টসেরাট ১,০১৬ ১,০০৭
২১৮ ডায়মন্ড প্রিন্সেস (প্রমোদ তরী) ৭১২ ১৩ ৬৯৯
২১৯ ওয়ালিস ও ফুটুনা ৪৫৪ ৪৩৮
২২০ ম্যাকাও ১৮৯ ৮৩
২২১ ভ্যাটিকান সিটি ২৯ ২৯
২২২ মার্শাল আইল্যান্ড ১৮ ১৮
২২৩ পশ্চিম সাহারা ১০
২২৪ নিউয়ে ১০
২২৫ জান্ডাম (জাহাজ)
২২৬ টুভালু
২২৭ সেন্ট হেলেনা
তথ্যসূত্র: চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন (সিএনএইচসি) ও অন্যান্য।
করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]