নির্বাচনে ‘ভারতের সাহায্যের প্রয়োজন আছে’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:৪৫ পিএম, ১৯ নভেম্বর ২০১৮

ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের অত্যন্ত সুসম্পর্ক বিদ্যমান- আমরা চাই তাদের সঙ্গে এই সুসম্পর্ক বিদ্যমান থাকুক উল্লেখ করে বিকল্পধারার মহাসচিব মেজর (অব.) আবদুল মান্নান বলেছেন, আমরা চাই ভারতের সঙ্গে এ সম্পর্ক আরও উন্নতি হোক। এসব কিছু নিয়েই আমাদের আলোচনা ছিল। এজন্য ভারতকে আমরা আমন্ত্রণ জানিয়েছিলাম।

ভারত আমাদের বন্ধু রাষ্ট্র তাই একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বৃহত্তম প্রতিবেশি দেশ হিসেবে ভারতের সাহায্য প্রয়োজন রয়েছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

সোমবার দুপুরে বিকল্পধারার চেয়ারম্যানের বাসভবনে বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাই কমিশনার হর্ষবর্ধন শিংলার সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের একথা বলেন বিকল্পধারা মহাসচিব।

আলোচনার বিষয়ে আবদুল মান্নান বলেন, এখন যেহেতু নির্বাচনের সময় তাই নির্বাচন নিয়ে আলোচনা চলেই আসে। তবে আমাদের মূল আলোচনা ছিল ভারত ও বাংলাদেশের সুসম্পর্ক নিয়ে।

বৈঠকে বি. চৌধুরী ছাড়াও বিকল্পধারার মহাসচিব মেজর (অব.) আবদুল মান্নান, বি. চৌধুরীর পররাষ্ট্রবিষয়ক উপদেষ্টা ও প্রেসিডিয়াম সদস্য শমসের মবিন চৌধুরী বীর বিক্রম, যুক্তফ্রন্টের মুখপাত্র ও বিকল্পধারার প্রেসিডিয়াম সদস্য মাহি বি. চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় বিকল্প ধারার প্রেসিডিয়াম সদস্য শমসের মবিন চৌধুরী বলেন, আমরা অসাম্প্রদায়িক রাজনীতিতে বিশ্বাস করি, মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তি বিষয়টি তাদের জানিয়েছি। এটার ধারাবাহিকতা আমরা বজায় রাখবো। নতুন প্রজন্মের জন্য নতুনত্ব ও ব্যতিক্রমীর রাজনীতির কথা আমরা বলেছি। আমরা বলেছি, আমরা অসাম্প্রদায়িক ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী।

সংবাদ সম্মেলনে মাহি বি চৌধুরী বলেন, বিকল্পধারা রাজনীতিতে একটি নিউ এলিমেন্ট। আদর্শিক, গণতান্ত্রিক অবস্থানে থেকে আমরা গণতন্ত্র রক্ষার স্বার্থে মহাজোটে যাওয়ার প্রক্রিয়ায় রয়েছি।

এর আগে বাংলাদেশে ভারতীয় হাই কমিশনার হর্ষবর্ধন শিংলা যুক্তফ্রন্টের চেয়ারম্যান ও বিকল্পধারার প্রেসিডেন্ট সাবেক রাষ্ট্রপতি অধ্যাপক এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরীর বাসায় যান দুপুর ১টা ৫ মিনিটের দিকে।

তখন বিকল্পধারার প্রেসিডিয়াম সদস্য মাহি বি. চৌধুরী তাকে স্বাগত জানান। বেলা ২টা ৫৫ মিনিটের দিকে বি. চৌধুরীর বাড়ি থেকে বের হন ভারতীয় হাই কমিশনার হর্ষবর্ধন।

সে সময় হর্ষবর্ধন শিংলা সাংবাদিকদের বলেন, এটি সৌজন্য সাক্ষাৎ ছিল। আলাপ আলোচনা হয়েছে। আমরা যুক্তফ্রন্টকে বুঝতে চেয়েছি, তাদের আদর্শ ও সামগ্রিক বিষয়, তাদের ভাবনা।

নির্বাচন প্রসঙ্গে হর্ষবর্ধন শ্রিংলা বলেন, নির্বাচন বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়। এটা নিয়ে আমাদের কোনো মন্তব্য নেই। হর্ষবর্ধন শিংলা বেলা ৩টার দিকে বি. চৌধুরীর কার্যালয় ত্যাগ করেন।

এএস/জেএইচ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]