রাজনীতির হাতেখড়ি ছাত্রলীগে, এখন হচ্ছেন মন্ত্রী

ফজলুল হক শাওন
ফজলুল হক শাওন ফজলুল হক শাওন , বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১০:৩৯ এএম, ১২ জুলাই ২০১৯

ছাত্রলীগ থেকে রাজনীতি শুরু করে এবার মন্ত্রী হচ্ছেন আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক ও সংসদ সদস্য ফজিলাতুন্নেসা ইন্দিরা। এর আগে তিনি সংরক্ষিত মহিলা আসন থেকে তিনবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।

জানা গেছে, শিক্ষাজীবনে ছাত্রলীগ দিয়ে রাজনীতিতে হাতেখড়ি। ছাত্র রাজনীতি করার সময় ইডেন কলেজ ছাত্র সংসদ নির্বাচনে ছাত্রলীগ থেকে মনোনয়ন নিয়ে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। তখন চারদিকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্র সংসদ নির্বাচনে একচেটিয়া জয়লাভ করছিল জাসদ।

ছাত্রজীবন শেষে কিছুদিন বিদেশে অবস্থান করেন। পরে দেশে ফিরে কৃষক লীগে যোগ দেন তিনি। কৃষক লীগের রাজনীতি করা অবস্থায় তিনি মহিলা আওয়ামী লীগে যোগ দেন। দীর্ঘদিন মহিলা আওয়ামী লীগের কর্মী হিসেবে কাজ করেন। ২০০৩ সালে মহিলা আওয়ামী লীগের কাউন্সিলের মাধ্যমে ফজিলাতুন্নেসা ইন্দিরা সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। সর্বশেষ ২০১৬ সালের ২২ ও ২৩ অক্টোবর আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক কাউন্সিলে ফজিলাতুন্নেসা ইন্দিরা আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক নির্বাচিত হন। এ ছাড়া তিনি নবম, দশম ও একাদশ সংসদ নির্বাচনে সংরক্ষিত মহিলা আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন মোল্লা ফজিলাতুন্নেসা ইন্দিরা সম্পর্কে জাগো নিউজকে বলেন, ১৯৭৩-৭৪ সালে ফজিলাতুন্নেসা ইন্দিরা ইডেন কলেজ ছাত্র সংসদের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ার পর তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সঙ্গে দেখা করেন। সে সময় অধিকাংশ কলেজের ছাত্র সংসদ নির্বাচনে জাসদ থেকে নির্বাচিত হচ্ছিল।

ফজিলাতুন্নেসা ইন্দিরা ইডেন কলেজ ছাত্র সংসদের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ায় বঙ্গবন্ধুও খুশি হয়েছিলেন। তখন তার চুলের কাটিং ছিল ইন্দিরা গান্ধীর মতো। ওই সময় বঙ্গবন্ধু তার মাথায় হাত দিয়ে দোয়া করেন এবং বলেন, ‘আজ থেকে তোর নাম ইন্দিরা।‘

তিনি আরও জানান, বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যার পর ফজিলাতুন্নেসা ইন্দিরা যুক্তরাষ্ট্রে চলে যান। ১৯৮১ সালে নেত্রী দেশে ফেরার পর ইন্দিরাও দেশে ফেরেন। তখন তিনি কৃষক লীগে যোগ দেন। মহিলা আওয়ামী লীগে যোগ দেয়ার আগে তিনি কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় নেতা ছিলেন। দলে তার প্রচুর অবদান রয়েছে। প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে তিনি অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন।

জানা গেছে, শনিবার (১৩ জুলাই) সন্ধ্যায় ফজিলাতুন্নেসা ইন্দিরা মন্ত্রিসভার নতুন সদস্য হিসেবে শপথ নেবেন বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম।

গত ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয়ের পর শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ৭ ফেব্রুয়ারি নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যরা শপথ নেন। এ মন্ত্রিসভায় বর্তমানে ২৪ জন মন্ত্রী, ১৯ জন প্রতিমন্ত্রী ও তিন জন উপমন্ত্রী রয়েছেন। তিন মাসের মাথায় মন্ত্রিসভায় কিছু রদবদল আনা হয়। সে সময় স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানকে তথ্য প্রতিমন্ত্রী করা হয়েছিল।

মন্ত্রিপরিষদ সূত্র জানায়, আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক ফজিলাতুন্নেসা ইন্দিরাকে প্রতিমন্ত্রী করা হচ্ছে।

এফএইচএস/এএইচ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]