ওমানে যেভাবে খাদেম থেকে সিআইপি হলেন বাংলাদেশের ইদ্রিস

বাইজিদ আল-হাসান
বাইজিদ আল-হাসান বাইজিদ আল-হাসান , ওমান প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ১২:৫৭ পিএম, ৩১ আগস্ট ২০১৮

মরুময় দেশ ওমান। প্রায় ৮ লাখের মতো বাংলাদেশি বসবাস করছেন দেশটিতে। কনস্ট্রাকশন থেকে শুরু করে কৃষি কাজ পর্যন্ত সব সেক্টরেই বাংলাদেশিদের অবদান রয়েছে। ব্যবসা-বাণিজ্য নিয়েও বেশ ভালোই আছেন ওমান প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

রেমিটেন্স সৈনিক হাফেজ মোহাম্মদ ইদ্রিস, চট্টগ্রামের সাতকানিয়া থেকে ১৯৮৮ সালে ভাগ্য বদলের স্বপ্ন নিয়ে পাড়ি জমান ওমানে।

oman1-s

শুরুতে তিনি একটি মসজিদে খাদেম হিসেবে চাকরি করতেন, পরবর্তীতে ব্যবসায় মনোযোগী হন। রাজধানী মাস্কাট থেকে প্রায় ৩০০ কিমি দূরে ‘সুর’ নামক একটি এলাকায় প্রথম ব্যবসা শুরু করেন। এখন তার ৫টি ব্রাঞ্চ ছাড়াও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের মালিক তিনি। প্রডাক্টের মধ্যে রয়েছে ইলেকট্রনিক যন্ত্রাংশ। ফ্রিজ, হ্যাভেন, এসি ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য।

oman1-s

মেয়ের নামেই কোম্পানির নামকরণ করেছেন ‘মারওয়া’। এই মারওয়া কোম্পানির নতুন একটি ব্রাঞ্চ ওপেন হয় ইবরা নামক সহরে। উদ্বোধন করেন ইবরা সহরের গভর্নর। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বাংলাদেশিদের ভূয়সী প্রশংসাও করেন।

ইদ্রিস শুধুমাত্র একজন সফল ব্যবসায়ীই নন, ইতোমধ্যে তিনি সফল রেমিটেন্স যোদ্ধা হিসেবে বাংলাদেশ সরকার থেকে সিআইপি সম্মাননা পেয়েছেন।

oman1-s

বর্তমানে তার কোম্পানিতে ১৪৮ জন শ্রমিক নিয়মিত কাজ করছেন। এর মধ্যে ৯০ শতাংশই বাংলাদেশি শ্রমিক বলে জানা গেছে। তার ব্যবসায়িক সফলতায় খুশি ওমান প্রবাসীরাও।

এমআরএম/এমএস

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :