‘অন্ধ’ সেজে টাইমস স্কয়ারে হামলার পরিকল্পনা ছিল আশিকুলের

কৌশলী ইমা কৌশলী ইমা , যুক্তরাষ্ট্র নিউ ইয়র্ক
প্রকাশিত: ০৩:৫৯ পিএম, ০৮ জুন ২০১৯

‘অন্ধ’ সেজে টাইমস স্কয়ারে হামলার পরিকল্পনা ছিল নিউইয়র্কে গ্রেফতার হওয়া বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মার্কিন নাগরিক আশিকুল আলমের। হামলার আগে অন্ধ সাজার চেষ্টা করছিল সে।

এদিকে শুক্রবার (৭ জুন) যুক্তরাষ্ট্রের একটি আদালতে তার বিরুদ্ধে হামলার পরিকল্পনার অংশ হিসেবে অবৈধভাবে আগ্নেয়াস্ত্র রাখার অভিযোগ আনা হয়েছে। ফেডারেল কর্মকর্তাদের উদ্ধৃত করে ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ সব তথ্য জানিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের টাইমস স্কয়ারে বন্দুক হামলা চালাতে পারে অভিযোগে বৃহস্পতিবার (৬ জুন) আশিকুল আলমকে আটক করে পুলিশ। তাদের দাবি, বেশ কিছুদিন ধরেই তাকে নজরদারিতে রেখেছিল গোয়েন্দারা। আশিকুলের বয়স ২২ বছর। জ্যাকসন হাইটসের বাসিন্দা সে। তার যুক্তরাষ্ট্রের গ্রিন কার্ড রয়েছে।

গ্রেফতারের পর শুক্রবার ব্রুকলিনের ইউএস ডিস্ট্রিক্ট কোর্টে আশিকুলকে হাজির করা হয়। আইনজীবী জেমস ডারো তার মক্কেলকে দুই লাখ ডলার মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়ার আবেদন জানান। অনুরোধ করেন, কারাগারে না রেখে তাকে গৃহবন্দি রেখে পর্যবেক্ষণে রাখার জন্য।

ডারো আরও জানান, আশিকুল তার মা-বাবার সঙ্গেই থাকেন এবং তারা বন্ডে স্বাক্ষরের জন্য প্রস্তুত রয়েছেন। তবে আদালতে সংক্ষিপ্ত শুনানির পর বিচারপতি চেরিল পোলাক আশিকুলকে জামিন না দিয়ে আটক রাখার নির্দেশ দেন।

বিচারক বলেন, এ মুহূর্তে আশিক বিপজ্জনক ব্যক্তি। তবে আদালতে আশিককে এখনো অভিযুক্ত করা হয়নি। আগামী ২১ জুন বেলা ১১টায় আবারও তাকে আদালতে হাজির করার নির্দেশ দেন আদালত।

শুক্রবার ব্রুকলিনের ফেডারেল আদালতে দায়েরকৃত অভিযোগ থেকে জানা যায়, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তাদের কাছ থেকে ছিনিয়ে নেয়া দুইটি গ্লক ১৯ আধা স্বয়ংক্রিয় পিস্তল উদ্ধার করা হয়েছে আশিকুলের কাছ থেকে। এরপরই তাকে গ্রেফতার করা হয়।

এক কর্মকর্তা জানান, আশিকুলকে কড়া নজরদারিতে রাখা হয়েছিল। একজন গোয়েন্দা ছদ্মবেশে তাকে অনুসরণ করছিলেন। ওই গোয়েন্দার সঙ্গে কথাও হয়েছিল আশিকুলের। দুইজনের সাক্ষাতে সে (আশিকুল) নাইন ইলেভেন হামলাকে সমর্থন জানিয়েছিল। সম্ভাব্য হামলায় সুইসাইড ভেস্ট ও হাতবোমা ব্যবহার নিয়েও আলোচনা করেছিল সে।

যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাটর্নি রিচার্ড ডোনোঘুয়ে বিবৃতিতে জানান, ‘অভিযোগ অনুযায়ী আশিকুল আলম আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তাদের হত্যা ও টাইমস স্কয়ারে বেসামরিকদের ওপর হামলা পরিকল্পনার অংশ হিসেবে অবৈধ অস্ত্র কিনেছিল।’ সে টাইমস স্কয়ার কিংবা এক মার্কিন সরকারি কর্মকর্তাকে হত্যার জন্য ওয়াশিংটনে হামলার প্রস্তাব দিয়েছিল বলেও উল্লেখ করা হয়েছে।

আশিকের বাবার নাম মো. শাহজাহান। তার মায়ের নাম মুক্তা বেগম। বাবা-মায়ের সঙ্গে নিউইয়র্কের বাংলাদেশি অধ্যুষিত জ্যাকসন হাইটসে থাকতো আশিক। তাদের গ্রামের বাড়ি বাংলাদেশের কিশোরগঞ্জ জেলার করিমগঞ্জে।

জানা যায়, শাহজাহান নিঃসন্তান। ১২ বছর আগে পুত্র পরিচয়ে আশিককে যুক্তরাষ্ট্রে আনেন তিনি। কিন্তু আশিকুলকে ওই সময় দত্তক নাকি সন্তান পরিচয়ে যুক্তরাষ্ট্রে আনা হয়েছে তা জানা সম্ভব হয়নি। তবে শাহজাহান যুক্তরাষ্ট্রে আসেন ১৯৯৮ সালে। তিনি পেশায় একজন দোকানি।

এএইচ/এমএস

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - [email protected]