দেশের মাটিতে ‘ফ্লাগ গার্ল’

বাইজিদ আল-হাসান
বাইজিদ আল-হাসান বাইজিদ আল-হাসান , ওমান প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ০৮:৩০ পিএম, ২৯ জানুয়ারি ২০১৯

বাংলাদেশের একমাত্র নারী পরিব্রাজক ও ‘ফ্লাগ গার্ল’ খ্যাত নাজমুন নাহার ভালোবাসার টানে দেশে ফিরেছেন। মঙ্গলবার সকালের দিকে দুবাইয়ের একটি বিমানে দুবাই থেকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছান তিনি।

এ সময় বিমানবন্দরে তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই’র পরিচালক ও বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন ঢাকা উত্তরের চেয়ারম্যান আলহাজ্জ্ব ফিরোজ আলম সুমন এবং ওমানপ্রবাসী সাংবাদিক বাইজিদ আল হাসান ও নাজমুন নাহারের স্বজনেরা।

najmun

বিশ্বের ১২৫ দেশ ভ্রমণকারী সুইডেন প্রবাসী এই বাংলাদেশি নারী বাংলাদেশের পতাকা নিয়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে পর্বত-সমুদ্র দাপিয়ে বেড়িয়েছেন। বাংলাদেশের পতাকা নিয়ে গত সতেরো বছর ভ্রমণের ইতিহাসের আজকের মাইলফলক হিসেবে নাহারকে ‘ফ্লাগ গার্ল’ উপাধি দেন জাম্বিয়ান সরকারের গভর্নর।

এর আগে ১২৫তম দেশ ভ্রমণের লক্ষ্যে শারজাহ বিমানবন্দরে পৌঁছালে সেখানে তাকে স্বাগত জানান বাংলাদেশ প্রেস ক্লাব ইউএই নেতারা। এরপর সেখানে থেকে শেখ খলিফা বিন যায়েদ বাংলাদেশ ইসলামিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরাদের সঙ্গে মিলিত হন। সেখানে তিনি শিক্ষার্থীদের ভালোবাসায় মুগ্ধ হয়ে শিক্ষার্থীদের অটোগ্রাফ দেন।

najmun

বাংলাদেশের মেয়ে সুইডেন প্রবাসী নাজমুন নাহারের শখ বিভিন্ন দেশ ঘুরে বেড়ানো। ভালোলাগা বই পড়া এবং বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশের পতাকা উড়িয়ে বেড়ানোর। ছোট বেলায় দাদা এবং বাবার উৎসাহে তিনি বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশকে পরিচিত করার এক অনন্য প্রয়াস হাতে নিয়েছেন।

উল্লেখ্য, ঐতিহাসিক বিশ্বভ্রমণের রেকর্ড ছুঁয়েছেন নাজমুন নাহার। বাংলাদেশের এই গর্বিত নারী এখন পর্যন্ত লাল সবুজের পতাকা উড়িয়েছেন বিশ্বের ১২৫টি দেশে। বাংলাদেশের কোনো মানুষের এই প্রথম এতগুলো দেশ ভ্রমণ। ১২৫তম দেশ হিসেবে ভ্রমণ করেন নাইজেরিয়া। পৃথিবীর মানচিত্র এক সময় যার অধ্যয়নে এবং স্বপ্নের মধ্যে ছিল এখন তার হাতের মুঠোয়। ছোটবেলা থেকেই যে নারী স্বপ্ন দেখেছিলেন বাংলাদেশের পতাকা হাতে ঘুরবেন সারাবিশ্ব- আজ তার বিশ্বজয়ের স্বপ্ন পূরণ হতে চলেছে।

এমআরএম/আরআইপি

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :