মাদ্রিদে নৈসর্গিক সৌন্দর্যে বাংলাদেশিদের একটি দিন

কবির আল মাহমুদ
কবির আল মাহমুদ কবির আল মাহমুদ
প্রকাশিত: ১২:৫৬ পিএম, ২২ জুলাই ২০১৯

খুলনা বিভাগীয় কল্যাণ সমিতি মাদ্রিদ, স্পেনের উদ্যোগে বার্ষিক বনভোজন-২০১৯ অনুষ্ঠিত হয়েছে। স্থানীয় সময় রোববার (২১জুলাই ) মাদ্রিদ শহরের অদূরে পিকনিক স্পট কাসালেগাসে এই বনভোজন হয়। এদিন বেলা ১১টায় মাদ্রিদ থেকে বাসে করে শুরু হয় বনভোজনের যাত্রা।

ভূমধ্যসাগরের কোলে প্রকৃতির নৈসর্গিক সৌন্দর্যে মোড়া বনভোজনের স্পটটি বাংলাদেশি অভিবাসীদের পদচারণায় মুখরিত ছিল সারা দিন। সর্বস্তরের প্রবাসীর উপস্থিতিতে পরিণত হয়েছিল এক টুকরো বাংলাদেশে।

প্রকৃতির অপরূপ সৌন্দর্যের ছোট কাসালেগাস নদীর তীর বাংলা ভাষীদের কলকাকলিতে মুখরিত হয়ে উঠে। শিশু-কিশোরদের বাঁধভাঙা আনন্দ-উচ্ছ্বাস ছিল চোখে পড়ার মতো।

khulna

নারী, পুরুষ ও শিশুদের অংশগ্রহণে বিভিন্ন খেলার ইভেন্ট, র‌্যাফেল ড্র ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে সাজানো ছিল পুরো কর্মসূচি।

খুলনা বিভাগীয় কল্যাণ সমিতি মাদ্রিদ, স্পেনের সভাপতি সৈয়দ মাসুদুর রহমান নাসিম ও সাধারণ সম্পাদক টিটন বিশ্বাসের তত্ত্বাবধায়নে এবং কামরুল হাসানের পরিচালনায় বনভোজনের অনুষ্ঠান পরিচালিত হয়। দিনব্যাপী এ আয়োজনে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন ইন স্পেনের সভাপতি কাজী এনায়েতুল করিম তারেক।

khulna

বিশেষ অতিথি ছিলেন বৃহত্তর ঢাকা আসোসিয়েশনের সভাপতি এম এইচ সোহেল ভূঁইয়া, কমিউনিটি নেতা নূর হোসেন পাটোয়ারী, মোজাম্মেল হোসেন মনু, বিক্রমপুর-মুন্সিগঞ্জ সমিতির সভাপতি মোমিনুল ইসলাম স্বাধীন, বৃহত্তর ফরিদপুর কল্যাণ সমিতি স্পেনের সভাপতি হেমায়েত খান, ব্যবসায়ী ইসমাইল হোসাইন, আবু সিদ্দিক নয়ন প্রমুখ।

একের পর এক কৌতুক এবং দেশীয় গান অনুষ্ঠানকে করে তুলেছিল প্রাণবন্ত। অসংখ্য গান, নৃত্য, আবৃতি ও কৌতুকসহ সবকিছু যেন সবাইকে হারিয়ে দিয়েছিল প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশে। অনুষ্ঠানের বিশেষ আকর্ষণ ছিল বাংলাদেশি খাবারের ব্যাপক আয়োজন।

khulna

জোহরের নামাজের পর সংগঠনের সিনিয়র সহ-সভাপতি রবিউল ইসলাম রফিক, সহ-সভাপতি মো. রতন এবং হুমায়ুন কবিরের তত্ত্বাবধানে বাঙালি রকমারি সুস্বাদু খাবার পরিবেশন করা হয়। এ পর্বে সংগঠনের অর্থ-সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, যুগ্ম সম্পাদক কাজী শুভ, স- সাংগঠনিক সম্পাদক রফিকুজ্জামান, বাপ্পী রহমান, তরিকুল ইসলাম, শামীম রেজা, সেলিম সরকার, মো. সবুজ, নূর হোসেনসহ সংগঠনের অন্য নেতা ও সদস্যরা সহযোগিতা করেন। শেষ পর্বে রাফেল ড্র বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার প্রদান করা হয়।

khulna

দিন শেষে সমিতির সভাপতি সৈয়দ মাসুদুর রহমান নাসিম ও সাধারণ সম্পাদক টিটন বিশ্বাস উপস্থিত অতিথি, সদস্য ও কমিউনিটি নেতৃবৃন্দের প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে বনভোজনের সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

জেডএ/এমকেএইচ

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - [email protected]

আপনার মতামত লিখুন :