লাখো মানুষের এখন একটাই পরিচয় ‘হাজি’

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা মক্কা থেকে
প্রকাশিত: ০২:০৯ পিএম, ১৩ আগস্ট ২০১৮

পবিত্র হজ উপলক্ষে মক্কা নগরী এখন লাখ লাখ ধর্মপ্রাণ মুসল্লির পদচারণায় মুখরিত। লক্ষ মানুষের কণ্ঠে ‘লাব্বায়েক আল্লাহুমা লাব্বায়েক’ ধ্বনিতে মুখরিত বিভিন্ন ছোট-বড় সড়ক। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আগত এসব মানুষের চেহারা, গায়ের রঙ, উচ্চতা, পোশাক বা চলনে পার্থক্য থাকলেও এখন সবার একটাই পরিচয়, সবাই ‘হাজি’।

মক্কার রাস্তায় এখন সর্বোচ্চ উচ্চারিত শব্দ ‘হাজি’। পবিত্র হারাম শরীফে ওমরাহ (তাওয়াফ ও সাফা মারওয়া ও মাথা মুন্ডন), পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায়, দরুদ পাঠ ও জিকির করতে দিনরাত ২৪ ঘণ্টা হাজিদের ভীড় লেগেই থাকে। ফজরের নামাজ আদায় করতে রাত ২টা থেকেই মুসুল্লিরা ছুটে চলেন কাবা প্রাঙ্গণে। সবাই চান কাবা শরীফের কাছাকাছি জামায়াতের সাথে নামাজ আদায় করতে।

একইভাবে জোহর, আসর, মাগরিব এবং এশার নামাজ আদায় করতেও হাজিরা নামাজের সময়ের অনেক আগেই হারাম শরীফে ছুটে চলেন। তবে যারা বয়োবৃদ্ধ তারা নিকটস্থ মসজিদে নামাজ আদায় করেন।

hajj-2

সৌদি আরবে তাপমাত্রা বেশি হওয়ায় দিনের বেলা হারাম শরীফের ভেতরে জায়গা না পেয়ে প্রচন্ড রোদের মধ্যেই নামাজ আদায় করেন। আল্লাহর ঘরের সান্নিধ্যে আসার সুযোগ লাভ করতে পেরে গরমকে কেউ কষ্ট মনে করেন না।

চলতি বছর আগামী ২০ আগস্ট পবিত্র হজ পালিত হবে। আর পবিত্র ঈদুল আজহা ২১ আগস্ট। বাংলাদেশ থেকে এ বছর ১ লাখ ২৬ হাজার ৭৯৮ জন হজ করতে সৌদি যাচ্ছেন। তাদের মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৬ হাজার ৭৯৮ জন এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ১ লাখ ২০ হাজার জন সৌদি আরব যাবেন। হজ শেষে হাজিদের ফিরতি ফ্লাইট শুরু হবে আগামী ২৭ আগস্ট।

এমইউ/আরএস/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :