জান্নাতি পাথর হাজরে আসওয়াদের ঝকঝকে ছবি প্রকাশ

ধর্ম ডেস্ক
ধর্ম ডেস্ক ধর্ম ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:০৩ পিএম, ০৬ মে ২০২১ | আপডেট: ০১:৩৩ পিএম, ০৬ মে ২০২১

হাজরে আসওয়াদ। জান্নাতি পাথর। এবারই প্রথম কাছ থেকে এ পাথরের ছবি তুলেছেন সৌদি আরবের কর্মকর্তারা। আর তাতে ফুটে ওঠেছে অসাধারণ মনোরম দৃশ্য। হারামাইন ডটকম কর্তৃপক্ষসহ অনেকেই টুইটারে এ ছবি ও বিবরণ প্রকাশ করেছে।

বিশ্বব্যাপী অনেক গণমাধ্যম হাজরে আসওয়াদের ছবি তোলার তথ্য প্রকাশ করেছে। পবিত্র রমযান মাসে ইতিহাসে প্রথমবারের মতো কাবা শরিফে অবস্থিত হাজরে আসওয়াদের স্ফটিক স্বচ্ছ ছবি তুলেছেন সৌদি আরবের কর্মকর্তারা। গত সোমবার (৩ মে) সৌদি তথ্য মন্ত্রণালয়ের এক উপদেষ্টা এ সম্পর্কে বিবৃতি দেন, ৪৯ হাজার মেগাপিক্সেল ক্যামেরায় খুব কাছ থেকে হাজরে আসওয়াদের ছবি তোলেন।

jagonews24

বিবৃতিতে আরও বলেন, পবিত্র এ পাথরটি যেহেতু ‘জান্নাতের পাথর’, প্রথমবারের মতো উচ্চ রেজ্যুলেশনের ছবিগুলো এই বার্তা দিচ্ছে যে, জান্নাত কত সুন্দর হবে!

jagonews24

হাজরে আসওয়াদের ছবি তুলতে সময় লেগেছে ৭ ঘণ্টা। ওঠানো ছবির রেজ্যুলেশন ছিল ৪৯ হাজার মেগাফিক্সেল। ১০৫০ ফক্স স্টক প্যানোরমা ছবি প্রসেস করতে সময় লেগেছে প্রায় ৫০ কার্যদিবস। ছবির রঙ : লালচে ও কালো। ছবির ব্যস : ৩০ সেন্টিমিটার। ডিম্বাকৃতিতে তোলা হয়েছে এ ছবি।

jagonews24

এই পবিত্র পাথরটির দৈর্ঘ্য ৮ ইঞ্চি এবং প্রস্থ ৭ ইঞ্চি। বর্তমানে এটি আট টুকরো। কারণ হজরত আবদুল্লাহ বিন জোবায়েরের শাসনামলে কাবা শরিফে আগুন লাগলে হাজরে আসওয়াদ কয়েক টুকরা হয়ে যায়। পরে হজরত আবদুল্লাহ বিন জোবায়ের ভাঙা টুকরাগুলো রুপার ফ্রেমে বাঁধিয়ে দেন। বর্তমানে হাজরে আসওয়াদের আটটি টুকরা দেখা যায়।

jagonews24

উল্লেখ্য, ইসলাম ধর্মের সর্বশেষ ও সর্বশ্রেষ্ঠ নবি ও রাসুল হজরত মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম নিজ হাতে কাবা শরিফে এ পাথরটি স্থাপন করেন। এটি কাবা শরিফের দক্ষিণ পূর্ব কোনে স্থাপিত। ওমরাহ ও হজ পালনকারীরা এ কোন থেকে তাওয়াফ শুরু করেন।

এমএমএস/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]