ফেরেশতারা কতক্ষণ মানুষের জন্য ক্ষমা-প্রার্থনা করতে থাকে?

ইসলাম ডেস্ক ইসলাম ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:১৪ পিএম, ২৩ অক্টোবর ২০২১

আল্লাহ তাআলা ফেরেশতাদের অনেক কাজে নিযুক্ত করে রেখেছেন। তারা সবাই আল্লাহর হুকুমে যার যার কাজে নিয়োজিত থাকেন। কিন্তু কিছু কিছু ফেরেশতা এমন আছেন, আল্লাহ তাআলা যাদেরকে শুধু মানুষের জন্য ক্ষমা প্রার্থনার কাজে নিয়োজিত করে রেখেছেন। তারা কতক্ষণ মানুষের জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করতে থাকে?

দুনিয়ায় অনেক মানুষ নামাজে ‘আমিন’ বলে থাকেন। তাদের ‘আমিন’ বলার সঙ্গে সঙ্গে ফেরেশতারাও ‘আমিন’ বলতে থাকেন।

তোমাদের কেউ যখন ‘আমিন’ বলে আর আকাশের ফেরেশতাগণও আমীন বলে। এরপর একের ‘আমিন’ অন্যের ‘আমিন’-এর সঙ্গে মিলিতভাবে উচ্চারিত হয় তখন ওই বান্দার আগের গুনাহসমূহ মুছে দেওয়া হয়। হাদিসে পাকে এসেছে-

হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, (নামাজে) ইমাম যখন سَمِعَ اللهُ لِمَنْ حَمِدَهُ  (সামিআল্লাহু লিমান হামিদাহ) বলেন, তখন তোমরা বলবে اللَّهُمَّ رَبَّنَا لَكَ الْحَمْدُ  (আল্লাহুম্মা রাব্বানা লাকাল হামদু) অর্থাৎ হে আল্লাহ! আমাদের প্রতিপালক। আপনার জন্য সব প্রশংসা। কেননা যার এ উক্তি ফেরেশতাগণের উক্তির সঙ্গে মিলে যাবে, তার আগের গুনাহ মাফ করে দেওয়া হবে।’ (বুখারি)

তবে ফেরেশতারা নামাজি ব্যক্তির জন্য ক্ষমার দোয়া করতে থাকেন যতক্ষণ তারা নামাজে রত থাকে কিংবা তাদের অজু থাকে। হাদিসে পাকে এসেছে-

হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘তোমাদের কেউ যতক্ষণ পর্যন্ত নামাজে রত থাকবে ততক্ষণ পর্যন্ত ফেরেশতারা এ বলে দোয়া করতে থাকে-

اللَّهُمَّ اغْفِرْ لَهُ وَارْحَمْهُ

অর্থাৎহে আল্লাহ! তাকে ক্ষমা করে দিন এবং হে আল্লাহ! তার প্রতি রহম করুন’।

যতক্ষণ পর্যন্ত লোকটি নামাজ ছেড়ে না দাঁড়ায় কিংবা তার অজু ভেঙে না যায়।’ (বুখারি)

সুতরাং মুমিন মুসলমানের উচিত, নামাজের ওয়াক্ত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে দেরি না করে নামাজ আদায় করা। নামাজের রোকনগুলো ধীরস্থিরভাবে আদায় করা। সুরা ফাতেহা পড়া  শেষ হলে ‘আমিন’ বলা। নামাজের তাসবিহগুলো সুন্দরভাবে আদায় করা। কারণ নামাজে মানুষের ‘আমিন’ বলা ও তাসবিহ পড়ার সময় ফেরেশতারাও একই তাসবিহ পড়ে থাকে। আর বান্দার তাসবিহ ও ‘আমিন’ ফেরেশতাদের সঙ্গে মিলে গেলে মহান আল্লাহ ওই বান্দাকে ক্ষমা করে দেন। আর নামাজে রত ব্যক্তির জন্য ফেরেশতারা ক্ষমা প্রার্থনা দোয়া করতে থাকেন।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে অজুর সঙ্গে দীর্ঘ সময় নামাজ পড়ার তাওফিক দান করুন। সময় হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে নামাজে ‘আমিন’ বলার তাওফিক দান করুন। হাদিসের উপর যথাযথ আমল করার তাওফিক দান করুন। ‘আমিন’।

এমএমএস/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]