বন্ধু নির্বাচনে সতর্কতা

ফারুক ফেরদৌস
ফারুক ফেরদৌস ফারুক ফেরদৌস , সহ-সম্পাদক, জাগো নিউজ
প্রকাশিত: ০৬:৪৩ পিএম, ২২ মে ২০২৪

মানুষ সামাজিক জীব। পৃথিবীতে বেঁচে থাকতে মানুষের সঙ্গী বা বন্ধুর প্রয়োজন হয়। বন্ধু নির্বাচনের ক্ষেত্রে সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে পারলে, উপযুক্ত বন্ধু খুঁজে বের করতে পারলে সেই বন্ধু আমাদের দুনিয়া আখেরাতের সফলতার কারণ হয়। বন্ধু নির্বাচনে ভুল করলে দুনিয়া আখেরাতের সমূহ ক্ষতির সম্ভাবনা রয়েছে।

কোরআনে এসেছে, কেয়ামতের দিন মানুষ অনেককে বন্ধু বানানোর কারণে আফসোস করবে। আল্লাহ বলেন,

وَ یَوۡمَ یَعَضُّ الظَّالِمُ عَلٰی یَدَیۡهِ یَقُوۡلُ یٰلَیۡتَنِی اتَّخَذۡتُ مَعَ الرَّسُوۡلِ سَبِیۡلًا یٰوَیۡلَتٰی لَیۡتَنِیۡ لَمۡ اَتَّخِذۡ فُلَانًا خَلِیۡلًا لَقَدۡ اَضَلَّنِیۡ عَنِ الذِّکۡرِ بَعۡدَ اِذۡ جَآءَنِیۡ وَ کَانَ الشَّیۡطٰنُ لِلۡاِنۡسَانِ خَذُوۡلًا

আর সেদিন জালিম নিজের হাত দুটো কামড়ে বলবে, হায়, আমি যদি রাসুলের সাথে কোন পথ অবলম্বন করতাম! হায় আমার দুর্ভাগ্য! আমি যদি অমুককে বন্ধু না বানাতাম! সে আমাকে উপদেশবাণী থেকে বিভ্রান্ত করেছিল, আমার কাছে তা আসার পর। আর শয়তান তো মানুষের জন্য চরম প্রতারক। (সুরা ফুরকান: ২৭-২৯)

আরেক আয়াতে বলা হয়েছে, মুত্তাকিরা ছাড়া দুনিয়ার অন্যান্য বন্ধুরা কেয়ামতের দিন শত্রুতে পরিণত হবে। আল্লাহ তাআলা বলেন,

اَلۡاَخِلَّآءُ یَوۡمَئِذٍۭ بَعۡضُهُمۡ لِبَعۡضٍ عَدُوٌّ اِلَّا الۡمُتَّقِیۡنَ

সেদিন বন্ধুরা একে অন্যের শত্রু হবে, মুত্তাকিরা ছাড়া। (সুরা যুখরুফ: ৬৭)

আব্দুল্লাহ ইবনে মাসউদ (রা.) থেকে বর্ণিত একটি হাদিসে রাসুল (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) বলেছেন, মানুষ যাকে ভালোবাসে তার সাথেই থাকবে। আবদুল্লাহ ইবনু মাসউদ (রা.) বলেন, এক ব্যাক্তি আল্লাহর রাসুলের (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) কাছে গিয়ে জিজ্ঞাসা করল, হে আল্লাহর রাসুল! এমন ব্যাক্তি সম্পর্কে আপনি কী বলেন, যে কোনো দলের অন্তর্ভুক্ত না হয়েও তাদের ভালবাসে। তিনি বললেন,

الْمَرْءُ مَعَ مَنْ أَحَبَّ ‏

মানুষ যাকে ভালবাসে সে তারই সঙ্গী হবে। (সহিহ বুখারি: ৬১৬৯)

আবু হোরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত আল্লাহর রাসুল (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) বলেছেন,

الْمَرْءُ عَلَى دِينِ خَلِيلِهِ فَلْيَنْظُرْ أَحَدُكُمْ مَنْ يُخَالِلْ

মানুষ তার বন্ধুর আদর্শে প্রভাবিত হয়। তাই বন্ধু নির্বাচনে তোমাদের প্রত্যেকের সতর্ক হওয়া ‍উচিত। (সুনানে তিরমিজি: ২৩৭৮)

তাই বন্ধু নির্বচনে খুব সতর্ক থাকা উচিত। শুধু মুমিন, মুত্তাকী ও আল্লাহভীরু মানুষকেই বন্ধু ও সঙ্গী হিসেবে গ্রহণ করা উচিত। যার মধ্যে তাকওয়া নেই, খোদাভীতি নেই, তাকে বন্ধু হিসেবে গ্রহণ করা উচিত নয়।

অনেকে এটাকে হালকাভাবে নেয়। কিন্তু বাস্তবতা হলো মানুষের জীবনে বন্ধুদের প্রভাব অবশ্যম্ভাবী। দুনিয়াবি ক্ষেত্রেও বন্ধুদের কারণে মানুষ লাভবান হয় বা ক্ষতির শিকার হয়। তাই আপনার বন্ধু আপনাকে কোন দিকে নিয়ে যাচ্ছে, আপনার জীবনে কী প্রভাব ফেলছে সেদিকে সতর্ক দৃষ্টি রাখুন।

ওএফএফ/জিকেএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।