নামাজের সুবিধার্থে ইন্দোনেশিয়ায় মোবাইল মসজিদ (ভিডিও)


প্রকাশিত: ১০:৪৭ এএম, ১০ জুলাই ২০১৬

বর্তমান বিশ্বের বৃহত্তম মুসলিম দেশ ইন্দোনেশিয়া। আয়তনের দিক থেকে ইন্দোনেশিয়া বিশ্বের ১৬তম বৃহত্তম দেশ। যার মোট জনসংখ্যার ৮৬.১ শতাংশই মুসলমান। ত্রয়োদশ শতাব্দী থেকেই ইন্দোনেশিয়ায় মুসলমানদের বিস্তৃতি শুরু হয়। দেশটির প্রধান ধর্মও ইসলাম। এ বৃহত্তম মুসলিম দেশটিতে মসজিদের সংখ্যা প্রায় ৮ লাখ। মুসল্লিদের সুবিধার্থে রাজধানী জাকার্তায় শুরু হয়েছে পিকআপ ভ্যানে নির্মিত মোবাইল মসজিদের ব্যবহার। খবর অ্যারি নিউজ।

Mobile-Mosjid

ইন্দোনেশিয়ার রাজধানী জাকার্তায় নামাজের জন্য মোবাইল মসজিদ ব্যবস্থাপনা নতুন হলেও ইন্দোনেশিয়ার পশ্চিম জাভা প্রদেশের কেন্দ্রীয় শহর বান্দুংয়ে আরও আগে থেকেই মোবাইল মসজিদের প্রচলন শুরু হয়। সেখানে রয়েছে ৪৯টি মোবাইল মসজিদ।

মোবাইল মসজিদ নামে সবুজ ও সাদা রঙের পিকআপ ভ্যানে অত্যাধুনিক ডিজাইনের মাধ্যমে নির্মাণ করা হয়েছে এ মসজিদ। পিকআপ ভ্যানেই মুসল্লিদের জন্য অজু করার স্থান, নামাজের স্থান, নামাজের জন্য নারীদের বিশেষ পোশাক এবং ইমামের খুতবা ব্যবস্থাসহ অন্যান্য সুবিধা রয়েছে।

Mobile-Mosjid

ইন্দোনেশিয়ার মুসলমানরা আজানের সঙ্গে সঙ্গেই নামাজ আদায়ের জন্য তৈরি হয়। কিন্তু জনবহুল দেশ ইন্দোনেশিয়ায় অনেক সময় যানজটের কারণে সঠিক সময়ে মসজিদে পৌঁছাতে অনেক অসুবিধা হয়। এ অসুবিধা থেকে উত্তরণের উপায় হিসেবেই মোবাইল মসজিদ পিকআপ ভ্যানের অগ্রযাত্রা।

মোবাইল মসজিদ ইন্দোনেশিয়ার মুসলমানদের কাছে খুবই সমাদৃত। কারণ বিভিন্ন পার্টি, অডিটোরিয়াম, পার্ক, হাইওয়ের পাশে মসজিদ না থাকা সত্ত্বেও নামাজ আদায় সম্ভব হয়। ফলে মুসল্লিদের নামাজের সুবিধা হয়।

Mobile-Mosjid

ইন্দোনেশিয়ার জাভা প্রদেশের বান্দুং শহরের তুলনায় রাজধানীতে বড় বড় পিকআপ ভ্যানের মাধ্যমে মোবাইল মসজিদ স্থাপনে মুসল্লিদের অনেক সুবিধা হয়েছে। ফলে তারা নিকটস্থ মোবাইল মসজিদে নামাজ আদায় কর্মব্যস্ত মানুষের জন্য সহজ হয়।

ইন্দোনেশিয়ার ধর্মপ্রাণ মুসলমান এ মোবাইল মসজিদ প্রকল্পকে ব্যাপকভাবে অভিনন্দ জানিয়েছে। যা মানুষকে নামাজের প্রতি আরো বেশি আগ্রহী করে তুলবে।

দেখুন ভিডিওটি-



এমএমএস/এবিএস

আপনার মতামত লিখুন :