মালদ্বীপের ঐতিহাসিক প্রবাল মসজিদ সংরক্ষণে ভারতের সহায়তা!

ধর্ম ডেস্ক
ধর্ম ডেস্ক ধর্ম ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:৩৫ পিএম, ১৫ জুন ২০১৯

মালদ্বীপের প্রাচীনতম স্থাপনা প্রবাল পাথরের তৈরি প্রত্নতাত্ত্বিক একটি মসজিদ সংরক্ষণে আর্থিক সহায়তা দেবে ভারত। প্রবলা পাথরে নির্মিত এ প্রাচীন মসজিদটি একটি ঐতিহাসিক ল্যান্ডমার্ক। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এ মসজিদ সংরক্ষণে প্রত্নতাত্ত্বিক ও আর্থিক সহায়তার ঘোষণা দেন। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়া।
masjid
মালদ্বীপের সংসদকে সম্বোধন করে দেয়া গত শনিবারের (৮ জুন) পিপলস মাজলিসের ভাষণে নরেন্দ্র মোদি বলেন, ‘মালদ্বীপের সঙ্গে ভারতের সুসম্পর্ক অনেক পুরনো।

ভারত সরকার মালদ্বীপের জুমআ মসজিদ হুরুকু মিস্কিয়া সংরক্ষণে সর্বাত্মক অবদান রাখবে।
masjid
মোদি বলেন, এটা শুধু মসজিদই নয় বরং নির্মাণ স্থাপনার দিক থেকে বিশ্বের অন্য কোনো দেশের মসজিদের সঙ্গে এ ঐতিহাসিক মসজিদের তুলনা নেই।

তিনি আরো বলেন, তিনি খুবই খুশী যে, মালদ্বীপ টেকসই উন্নয়ন কাজে নিয়োজিত এবং আন্তর্জাতিক সৌর জোটের অংশীদর হয়ে ওঠছে।
masjid

মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ইবরাহিম মুহাম্মদ সালেহ দেশটির প্রাচীন প্রত্নতাত্ত্বিক মসজিদের পুনঃসংস্কার ও সংরক্ষণের আগ্রহ ও সহায়তার আশ্বাসে ভারতের প্রধানমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানান।

মালদ্বীপের এ মসজিদটি ১৬৫৮ সালে নির্মাণ করা হয়েছে। মালদ্বীপের সবচেয়ে পুরনো ও অলংকৃত মসজিদটি শহরের কাফু আটোল-এ অবস্থিত।
masjid
ইউনেস্কো ২০০৮ সালে এ মসজিদটিকে ‘সমুদ্র সংস্কৃতি স্থাপনা’ হিসেবে ওয়াল্ড হেরিটেজ সংস্কৃতির তালিকাভূক্ত করে।

masjid
উল্লেখ্য যে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক উন্নয়নে ২ দিনের সফরে গত শনিবার মালদ্বীপ পৌছেন। এ সফরেই মলদ্বীপের এ ঐতিহাসিক মসজিদের পুনঃসংস্কার ও সংরক্ষণে তার সহযোগিতার কথা জানান।

এমএমএস/জেআইএম