পদত্যাগ করলেন সহকারী কোচ রিচার্ড হ্যালসল

ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:৩৯ পিএম, ২০ মার্চ ২০১৮ | আপডেট: ০৭:২৯ পিএম, ২০ মার্চ ২০১৮

পদত্যাগ করলেন বাংলাদেশ দলের সহকারী কোচ রিচার্ড হ্যালসলও। আগে থেকেই গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল, তার পদত্যাগের বিষয়ে। অবশেষে আজ বিসিবি থেকেই স্বীকার করা হলো, পদত্যাগ করেছেন হ্যালসল। বিসিবি জানিয়ে দিয়েছে, তারা হ্যালসলের পদত্যাগপত্রও গ্রহণ করে নিয়েছে।

শ্রীলঙ্কায় সদ্য সমাপ্ত নিদাহাস ট্রফির আগেই যখন বাংলাদশ দল প্রস্তুতি নিচ্ছিল, তখনই গুঞ্জন শোনা গিয়েছিল পদত্যাগ করতে পারেন চন্ডিকা হাথুরুসিংহের আমলে ফিল্ডিং কোচ থেকে সহকারী কোচে উন্নীত হওয়া রিচার্ড হ্যালসল। ঘরের মাঠে ত্রিদেশীয় সিরিজ এবং শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি সিরিজের সময় রিচার্ড হ্যালসলকেই ভারপ্রাপ্ত কোচের দায়িত্ব দিয়েছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

এরপর নিদাহাস ট্রফির দল ঘোষণা, প্রস্তুতি থেকে শুরু করে কোথায় ছিলেন হ্যালসল। ভারপ্রাপ্ত কোচ থেকে একেবারে সিরিজে ‘নাই’ হয়ে যাওয়ার পরই গুঞ্জনটা শুরু হয়েছিল। তখন জানা গিয়েছিল, ছুটি নিয়ে নিজের দেশ ইংল্যান্ড চলে গেছেন বাংলাদেশ দলের এই কোচ। যদিও বাংলাদেশ দল শ্রীলঙ্কায় গিয়ে ভালো খেলার কারণে হ্যালসলের বিষয়টা বেমালুম ভুলে গিয়েছিল সবাই। এবার সত্যি সত্যি জানা গেল, তিনি আর ফিরবেন না। পদত্যাগপত্র পাঠিয়ে দিয়েছেন বিসিবির কাছে।

কেন পদত্যাগ করেছেন হ্যালসল? অবধারিতভাবেই ‘ব্যক্তিগত কারণ’ দেখালেন। তবে, বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন যা জানিয়েছেন, তাতে বোঝাই যাচ্ছে সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত কারণেই পদত্যাগ করেছেন হ্যালসল। বিসিবি থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিসিবি প্রধান নির্বাহীর বক্তব্য জুড়ে দেয়া হয়েছে। সেখানে তিনি বলেন, ‘রিচার্ড অফিসিয়ালি পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন। আমরা বুঝতে পেরেছি, তার সিদ্ধান্তটা পুরোপুরি পারিবারিক কারণে। কারণ তিনি তার অসুস্থ বাবার কাছাকাছি থাকতে চান। বোর্ড (বিসিবি) তার অগ্রাধিকারকে অবশ্যই প্রাধান্য দেবে এবং এ কারণেই তার পদত্যাগপত্র আমরা গ্রহণ করে নিয়েছি।’

গত চার বছরে হ্যালসলের অবদানের কথা কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করেছেন বিসিবি প্রধান নির্বাহী। তিনি বলেন, ‘রিচার্ড গত চার বছর ধরে বাংলাদেশ টিম ম্যানেজমেন্টের একজন পূর্ণ সদস্য হিসেবে কাজ করেছেন। এমনকি গত চার বছরে বাংলাদেশের যে সাফল্য অর্জিত হয়েছে, সেগুলোতে তিনি ছিলেন অংশীদার। বাংলাদেশ ক্রিকেটে তার অবদানের জন্য রিচার্ডকে ধন্যবাদ জানাতে চায় বোর্ড এবং তার ভবিষ্যৎ যেন সাফল্যমণ্ডিত হয় সে প্রত্যাশাই আমরা করবো।’

এক বিবৃতিতে বিসিবিকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন হ্যালসল। তিনি বলেন, ‘চার বছর বাংলাদেশ জাতীয় দলের সঙ্গে কাজ করার সুযোগ দেয়ার জন্য বিসিবিকে বিশেষ ধন্যবাদ। বেশ কয়েকজন চমৎকার সহকর্মীর সঙ্গে আমি কাজ করেছি। যেটা আমার ক্যারিয়ারকে আরও উন্নত এবং সামনে এগিয়ে নেয়ার ক্ষেত্রে দারুণ ভূমিকা রাখবে।’

বাংলাদেশ দলের সঙ্গে থেকে যেসব সাফল্য পেয়েছিলেন হ্যালসল সেগুলোর স্মৃতি চারণ করেন। তিনি বলেন, ‘আমি আমার পরিবারের সঙ্গে আলোচনায় বলতে পারবো, কীভাবে পাকিস্তান, ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা, ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা এবং অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বিজয় অর্জন করেছিলাম। বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সঙ্গে আমি আমার এই সময়টা কখনোই ভুলতে পারবো না এবং ভবিষ্যতে তাদের উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করে যাবো।’

সর্বশেষ ঘরের মাঠে অনুষ্ঠিত ত্রিদেশীয় সিরিজ, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট এবং টি-টোয়েন্টি সিরিজে টাইগারদের ভারপ্রাপ্ত কোচের দায়িত্ব পালন করেছিলেন হ্যালসল। সিরিজ শুরুর আগে হাথুরুসিংহ সম্পর্কে, ‘কোচ কী আর মাঠে এসে খেলে দেবেন?’ এমন মন্তব্য করে বেশ আলোচনায় এসেছিলেন তিনি। শেষ পর্যন্ত সেই হাথুরুর শ্রীলঙ্কার কাছেই ভরাডুবি ঘটে বাংলাদেশের।

এ কারণেই মূলতঃ শ্রীলঙ্কায় নিদাহাস ট্রফিতে হ্যালসলকে বাদ দিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কিংবদন্তি পেসার কোর্টনি ওয়ালশকেই কোচ করে পাঠানো হয়েছিল এবং দলও পেয়েছিল অভাবনীয় সাফল্য।

আইএইচএস/পিআর/এমএস