এই দলটা আমাদের বিশ্বকাপ জেতাতে পারে : অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:১৭ এএম, ১৪ মার্চ ২০১৯

স্টিভেন স্মিথ নেই, নেই ডেভিড ওয়ার্নার। দলের সেরা দুই তারকাকে ছাড়া অস্ট্রেলিয়া দল অনেকটাই দুর্বল হয়ে পড়েছে, মানবেন সবাই। এমন ভঙ্গুর এক দল ভারতের মাটিতে কি করতে পারবে, সফর শুরুর আগে সেটা নিয়ে নিশ্চয়ই শঙ্কা ছিল খোদ অস্ট্রেলিয়ার সমর্থকদের মনেই।

কিন্তু মাঠের খেলায় সবাইকে চমকে দিল অস্ট্রেলিয়া। টি-টোয়েন্টি সিরিজে ভারতকে হোয়াইটওয়াশের লজ্জা দেবার পর ওয়ানডে সিরিজে ২-০ ব্যবধানে পিছিয়ে পড়েছিল পাঁচবারের বিশ্বকাপজয়ী দলটি। সেখান থেকে দারুণভাবে লড়াইয়ে ফিরে ৩-২ ব্যবধানে সিরিজ জিতে নেয় ক্যাঙারুরা, ভারতের মাটিতে দীর্ঘ দশ বছর পর।

দলের এমন পারফরম্যান্স বিশ্বাস হচ্ছে না অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ আর কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গারেরও। তারা দুজনই এটাকে বলছেন 'অবিশ্বাস্য এক অর্জন।'

ম্যাচ পরবর্তী পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে দাঁড়িয়ে ফিঞ্চ বলেন, ‘এটা অবিশ্বাস্য। যে প্রতিরোধ এবং লড়াই আমরা দেখিয়েছি, সত্যিই অবিশ্বাস্য। আমাদের দেয়ালে পিঠ ঠেকে গিয়েছিল, সেখান থেকে এই দলটা যেভাবে ফিরেছে আমি গর্বিত।’

সামনে বিশ্বকাপ। স্মিথ-ওয়ার্নার নিষিদ্ধ হবার পর দুর্বল হয়ে পড়া অস্ট্রেলিয়াকে এই বিশ্বকাপে ফেবারিটদের কাতারে রাখতে চাইছেন না অনেকে। তবে ফিঞ্চ মনে করছেন, তাদের এই দলটাই বিশ্বকাপ জিততে পারে।

অস্ট্রেলিয়া অধিনায়কের ভাষায়, ‘আমি বলব, মানুষ কিছু সময়ের জন্য হয়তো আমাদের বাদ করে দিয়েছিল। কিন্তু আমাদের যে দলটা এই সিরিজ জিতিয়েছে, সেটি বিশ্বকাপও জেতাতে পারে। আসল ব্যাপারটা হলো নিজেদের উপর বিশ্বাস এবং গেম প্ল্যানের সঠিক প্রয়োগ।’

কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গার এ সাফল্য নিয়ে বলেন, ‘পুরো কৃতিত্ব খেলোয়াড়দের। অবিশ্বাস্য, ছেলেদের নিয়ে গর্বিত। ভারতে অস্ট্রেলিয়া পৌঁছানোর পর থেকেই অবিশ্বাস্য কিছু উত্থান-পতন দেখলাম।’

এমএমআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]