টাইগার পেসারদের জন্য নতুন কোচের প্রথম বার্তা কী?

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০১:৩১ পিএম, ২১ আগস্ট ২০১৯

ফিল্ডিং কোচ হিসেবে রায়ান কুক এবং ব্যাটিং উপদেষ্টা হিসেবে নেইল ম্যাকেঞ্জি আগেই ছিলেন বাংলাদেশের ড্রেসিংরুমে। নতুন করে যোগ দিয়েছেন হেড কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো এবং পেস বোলিং কোচ চার্লস ল্যাঙ্গাভেল্ট। যারা এরই মধ্যে দেশে পৌঁছেছেন গতকাল (মঙ্গলবার)।

যার ফলে নতুন স্পিন বোলিং কোচ ড্যানিয়েল ভেট্টোরিব্যতীত টাইগারদের পুরো কোচিং স্টাফই এখন দক্ষিণ আফ্রিকান। হেড কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো এক একান্ত সাক্ষাৎকারে স্বদেশি স্টাফ পাওয়ায় নিজের উচ্ছ্বাসের কথা প্রকাশ করেছেন আগেই। এবার একই সুর পেস বোলিং কোচের কণ্ঠেও।

আজ (বুধবার) মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে জনাকীর্ণ সংবাদ সম্মেলনে প্রথমবারের মতো আনুষ্ঠানিকভাবে কথা বলেন দুই কোচ ডোমিঙ্গো ও ল্যাঙ্গাভেল্ট। যেখানে একসঙ্গে কাজ করতে পারার অনুভূতি ব্যক্ত করতে গিয়ে ল্যাঙ্গাভেল্ট বলেন, ‘অবশ্যই ভালো লাগছে। শুধু ডোমিঙ্গো নয়, ম্যাকেঞ্জির সঙ্গে মিলেও একসাথে কাজ করেছি আমরা। ডোমিঙ্গো খুবই মানসম্পন্ন একজন কোচ, এ বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই।’

এখনও সে অর্থে কাজ শুরু করেননি ল্যাঙ্গাভেল্ট বা ডোমিঙ্গো। আজই প্রথম যোগ দিয়েছেন কন্ডিশনিং ক্যাম্পে। সম্মেলনে আসার আগে কেবল হালকা কথাবার্তারই সুযোগ পেয়েছেন দুজন।

তাই পেসারদের জন্য প্রথম বার্তাটা যেনো সংবাদ সম্মেলনে এসেই দিতে হলো ল্যাঙ্গাভেল্টকে। তিনি বলেন, ‘ছেলেদের জন্য প্রথম বার্তা থাকবে নিজেদের সেরা ছন্দ পাওয়ার পথটা বের করা এবং ফিটনেসের প্রতি বাড়তি তাগিদ দেয়া। লাইন-লেন্থ অবশ্যই যেকোনো বোলারের জন্য প্রথম বিষয়। একইসঙ্গে পরিশ্রম এবং বুদ্ধিমত্তা দিয়েই এগিয়ে যেতে হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমার প্রথম কাজ হচ্ছে এখন যারা আছে দলের আশপাশে তাদের উন্নতি করা। তবে দেখলাম অনুর্ধ্ব-১৯ দল ইংল্যান্ডকে তাদের মাটিতে হারিয়ে এসেছে, কাজেই সে দল থেকে প্রতিভাবান বোলারদের নিয়েও কাজ করবো।’

এআরবি/এসএএস/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]