আইসিসি চেয়ারম্যান হওয়ার অনুমতি পাওয়া নিয়ে সংশয়ে গাঙ্গুলি

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:২৮ পিএম, ১২ জুলাই ২০২০

গত কয়েক মাস ধরেই জোর গুঞ্জন চলছে, বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসির পরবর্তী চেয়ারম্যান হবেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের কিংবদন্তি অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলি। যিনি কি না বর্তমানে ভারতের ক্রিকেট বোর্ড- বিসিসিআইয়ের চেয়ারম্যান পদে দায়িত্বরত রয়েছেন।

সবশেষ আইসিসির চেয়ারম্যান শশাঙ্ক মনোহার পদত্যাগ করার পর থেকে আরও জোরালো হয়েছে গাঙ্গুলির দায়িত্ব গ্রহণের গুঞ্জন। এ পদের জন্য গাঙ্গুলিকেই ধরে নিয়েছেন প্রায় সবাই। তবে গাঙ্গুলি নিজে অবশ্য এতটা নিশ্চিত নন। কেননা আইসিসির গঠনতন্ত্রে সাফ উল্লেখ রয়েছে একসঙ্গে দুই দায়িত্বে থাকতে পারবেন না চেয়ারম্যান।

অর্থাৎ গাঙ্গুলি যদি আইসিসির চেয়ারম্যান হন, তবে তাকে ছাড়তে হবে বিসিসিআইয়ের দায়িত্ব। কিন্তু নিজ দেশের ক্রিকেটকে মাঝপথে রেখে আইসিসির দায়িত্ব নিতে চান না গাঙ্গুলি। তাই তিনি মনে করছেন, যদি আইসিসির গঠনতন্ত্রে একসঙ্গে দুই পদে বসার বিষয়টি উল্লেখ থাকত, তাহলে হয়তো সহজ হতো।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে একসঙ্গে দুই পদে থাকার অনুমতি পাওয়া নিয়ে সংশয়ের কথা জানিয়ে গাঙ্গুলি বলেছেন, ‘দিন শেষে সিদ্ধান্ত নিতে হবে নিজ দেশের ক্রিকেট বোর্ডকেই। এটা এমন সিদ্ধান্ত যা নিজের বোর্ডের মাধ্যমেই নিতে হবে। কেননা আইসিসিতে এসব পদের নিয়মটা বদলে গেছে।’

‘আপনি যদি একজন স্বাধীন আইসিসি চেয়ারম্যান হন, তাহলে নিজ দেশের বোর্ডের দায়িত্ব ছেড়ে দিতে হবে। এটা আর আগের মতো নেই যে, আপনি একসঙ্গে দুই পদেই থাকতে পারবেন। এই পরিবর্তনটা আইসিসি করেছে, বিসিসিআই নয়। আমাদের বোর্ডের এখনও দুই পদে থাকার অনুমতি রয়েছে। কিন্তু আইসিসি সেটার অনুমতি দেয় না।’

এই অনুমতি নেই বলেই এখন সংশয়ে রয়েছে দাদাখ্যাত এ ক্রিকেটার। আইসিসি চেয়ারম্যান হতে হলে ছাড়তে হবে বিসিসিআইয়ের দায়িত্ব, কিন্তু এখনও ছাড়তে চান না নিজ দেশের ক্রিকেট বোর্ড। তাই গাঙ্গুলি মনে করেন, এখনও তার হাতে অনেক সময় আছে। আইসিসি চেয়ারম্যান হওয়ার সম্মান পরেও গ্রহণ করা যাবে বলেই জানিয়েছেন তিনি।

গাঙ্গুলি বলেন, ‘আমি জানি না, এখন এই মাঝপথে বিসিসিআই ছেড়ে যাওয়া ঠিক হবে কি না অথবা ছাড়তে দেয়া হবে কি না। তাই আমি আসলেই জানি না। তবে আমার কোনো তাড়া নেই। আমার এখনও অনেক সময় আছে সামনে। এই কাজগুলো (আইসিসি চেয়ারম্যান) আপনি জীবনে একবারই করতে পারবেন। এসব বড় বড় সব দায়িত্ব ১-১ ভিত্তিতেই দেয়া হয়। যেহেতু নিজের বোর্ডের প্রতিনিধি হয়েই দায়িত্ব নিতে হয়, তাই সিদ্ধান্তটা সম্মিলিতই হওয়া উচিৎ।’

এসএএস/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]