মৃত্যু নিয়েই শেষ টুইটটি করেছিলেন শেন ওয়ার্ন

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:০২ পিএম, ০৪ মার্চ ২০২২

মানুষের মৃত্যু কত কাছে, তা যদি মানুষ জানতো! মাত্র ৫২ বছরে হঠাৎ করেই না ফেরার দেশে চলে গেলেন অসি কিংবদন্তি স্পিনার শেন ওয়ার্ন। থাইল্যান্ডের কোহ সামুইতে নিজের ভিলায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। ধারণা করা হচ্ছে, মৃত্যুর আগে ম্যাসিভ হার্ট অ্যাটাক হয়েছিল ওয়ার্নের।

অথচ, এই শেন ওয়ার্নই নিজের টুইটার পেজে শেষ টুইটটি করেছিলেন আরেকটি মৃত্যুর সংবাদ নিয়ে। গতকাল রাতেই হার্ট অ্যাটাকে মৃত্যুবরণ করেন আরেক কিংবদন্তি অস্ট্রেলিয়ান রডনি মার্শ। তার মৃত্যু নিয়ে শোক প্রকাশ করে টুইট করেছিলেন।

কে জানতো, এর কয়েক ঘণ্টা পরই শেন ওয়ার্নকে নিয়ে হাজার হাজার টুইটে ভেসে যাবে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট টুইটার! শোকের বন্যায় ভেসে যাবে পুরো ক্রিকেট বিশ্ব!

টুইটারে শেন ওয়ার্নের শেষ টুইটটিই ছিল রডনি মার্শের মৃত্যুকে ঘিরে। কিংবদন্তি অস্ট্রেলিয়ান পেসার রডনি মার্শের মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে ওয়ার্ন লিখেছিলেন, ‘রড মার্শ না ফেরার দেশে চলে গেছেন, এই সংবাদ শুনে খুবই দুঃখ পেলাম। আমাদের সেরা এই খেলাটির একজন কিংবদন্তি ছিলেন তিনি। তিনি ছিলেন অনেক তরুণ ছেলে এবং মেয়ের অনুপ্রেরণার উৎস। রড (রডনি মার্শ) খুব গভীরভাবে ক্রিকেটের যত্ন করতেন। অস্ট্রেলিয়া এবং ইংল্যান্ড ক্রিকেটারদেরকে তিনি বিশেষ অনেক কিছু দিয়েছেন। রস এবং তার পরিবারের জন্য আমি অনেক অনেক ভালোবাসা দিলাম। রেস্ট ইন পিস মেট!’

ওয়ার্ন শেষ শব্দটি লিখেছেন মেট। অর্থ্যাৎ, সতীর্থ। এমন এক সতীর্থ যে, তাকে অনুসরণ করতে ওয়ার্নের কয়েক ঘণ্টার বেশি সময় লাগেনি। এই টুইটের কয়েক ঘণ্টা পর পরপারে গিয়ে রডনি মার্শেরই সতীর্থ হয়ে গেলেন শেন ওয়ার্ন।

আইএইচএস/

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।