বঙ্গবন্ধুতে ফিলিস্তিনি উৎসব

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১০:৩৫ পিএম, ১২ অক্টোবর ২০১৮

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের পশ্চিম গ্যালারিতে ফিলিস্তিনের একদল সমর্থক তাদের জাতীয় পতাকা নিয়ে উল্লাস করলেন পুরো ম্যাচে। টাইব্রেকারের চতুর্থ শটে দলের আবদাল লতিফ আল বাহদারীর শট লক্ষ্যভেদ করতেই লাফিয়ে উঠেন তারা। চ্যাম্পিয়ন, চ্যাম্পিয়ন স্লোগানে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামকে বানিয়ে ফেলেন এক টুকরো রামাল্লা।

যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটির মানুষকে ঢাকা থেকে একটি আনন্দের বার্তা প্রেরণ করলেন ফুটবলাররা। বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের চ্যাম্পিয়ন হলেন তারা। টুর্নামেন্টের ৬ দলের মধ্যে র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষে (১০০) থাকা দলটিই পড়লো শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট।

ট্রফি জয়ের পর ফিলিস্তিনের কোচ নুরুদ্দিন আলি বলেন, ‘আজ আমাদের খুব আনন্দের রাত। আমরা আনন্দ করার সুযোগ খুব কম পাই। এ ট্রফি আমরা দেশের মানুষকে উৎসর্গ করলাম।’

শিরোপা নিশ্চিতের পর কয়েকজন ফিলিস্তিনের দর্শক বেস্টনি টপকিয়ে মাঠে ঢোকার চেষ্টা করেন। উদ্দেশ্য ছিল মাঠে গিয়ে পতাকা নিয়ে উল্লাস করবেন বিজয়ী ফুটবলারদের সঙ্গে। কিন্তু নিরাপত্তারক্ষীদের চোখ এড়াতে পারেননি তারা। বাঁধা পেয়ে জোর করে ঢোকার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন তারা। নিরাপত্তারক্ষীদের সঙ্গে খারাপ আচরণ করলেও ঠান্ডা মাথায় সামাল দেন।
Palestine Champion
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত থেকে ট্রফি ও ৫০ হাজার ডলারের চেক গ্রহণের পর ফিলিস্তিন দলের খেলোয়াড়, কোচ ও কর্মকর্তারা চলে আসেন মাঠে। ট্রফি হাতে উল্লাস করেন, ছবি তোলেন। প্রধানমন্ত্রী চলে যাওয়ার পর নিরাপত্তা শিথিল হলে গ্যালারি থেকে ফিলিস্তিন সমর্থকরা বেস্টনি টপকে মাঠে ঢুকে খেলোয়াড়দের সঙ্গে আনন্দ-উল্লাসে যোগ দেন।

তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ফাইনালের নির্ধারিত ৯০ ও অতিরিক্ত ৩০ মিনিট গোলশূন্যে শেষ হলে ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকারে। ভাগ্য নির্ধারণী এ পর্বে ফিলিস্তিন ৪ শটেই গোল করে। তাজিকিস্তান ৫ শটে করে ৩ গোল। ফিলিস্তিনের গোলরক্ষক রামিক দুটি শট ঠেকিয়ে হয়েছেন ফাইনালের নায়ক। প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে ম্যাচসেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার নিয়েছেন তিনি।

টুর্নামেন্টের সেরা গোলরক্ষক হয়েছেন তাজিকিস্তানের রিজুয়েভ রুস্তম। এছাড়া টুর্নামেন্ট সেরা খেলোয়াড় হয়েছেন ফিলিস্তিনের অধিনায়ক আবদাল লতিফ আল বাহদারী। সর্বোচ্চ গোলদাতা (২টি) হয়েছেন তাজিকিস্তানের তুরসনভ কমরোন। রানার্স-আপ তাজিকিস্তান প্রাইজমানি পেয়েছে ২৫ হাজার মার্কিন ডলার।

টুর্নামেন্টের উদীয়মান খেলোয়াড় হয়েছেন বাংলাদেশের বিপলু আহমেদ। বিপলুর পক্ষে ট্রফি গ্রহণ করেন বাফুফের সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ। ফেয়ার প্লে ট্রফি পেয়েছে বাংলাদেশ।

আরআই/আরএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]