ডিজিটাল শিল্পে বিনিয়োগ করুন : মোস্তাফা জব্বার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক চট্টগ্রাম
প্রকাশিত: ০৩:৩৫ পিএম, ১১ মার্চ ২০১৯

ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, ‘আমরা শিল্প বিপ্লব মিস করেছি। পৃথিবীতে ইতোমধ্যেই তিনটি শিল্প বিপ্লব সম্পন্ন হয়েছে। যার কোনোটিতেই আমাদের কোনো অবদান নেই। চট্টগ্রামে অনেক ব্যবসায়ী-উদ্যোক্তা রয়েছেন, আমি তাদের বলব এখনই ডিজিটাল শিল্প কারখানায় বিনিয়োগ করুন। প্রচলিত শিল্প ব্যবস্থায় পরিবর্তন আসছে।’

সোমবার (১১ মার্চ) দুপুরে নগর ভবনের সভা কক্ষে হাইটেক পার্ক স্থাপন প্রকল্পে জমি প্রদানকারী চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের (চসিক) সঙ্গে হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের সমঝোতা স্মারক অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

মন্ত্রী বলেন, আমাদের অর্থনীতির কেন্দ্রবিন্দু ছিল কৃষি। স্বাধীনতার পরও বঙ্গবন্ধুর প্রথম বাজেটে আয়ের সবচেয়ে বড় খাত ছিল কৃষি। কিন্তু তারও অনেক বছর আগে ১৮শ’ শতকে ইউরোপে শিল্প বিপ্লব শুরু হয়। পৃথিবীতে তিনটি ধাপে শিল্প বিপ্লব সম্পন্ন হয়েছে। প্রথমে মেশিন আবিষ্কার, পরে বিদ্যুৎ ও ইন্টারনেট আবিষ্কারের মধ্যে দিয়ে। আমরা এর কোনোটারই সুযোগ নিতে পারিনি।

ডিজিটাল শিল্প বিপ্লবে আমরা নেতৃত্ব দিতে চাই। এ সুযোগ আমরা কোনোভাবেই মিস করতে চাই না। ২০০৮ সালে প্রধানমন্ত্রী যখন ডিজিটাল বাংলাদেশের ঘোষণা দিলেন, তখন হাস্যরস্য হয়েছে, কিন্তু আজ আমরা সেই ধারণার ওপর প্রতিষ্ঠিত,’- যোগ করেন তিনি।

স্থানীয় ব্যবসায়ীদের উদ্দেশ করে মন্ত্রী বলেন, চট্টগ্রাম সবসময় বাণিজ্য নগরী হিসেবে সারাবিশ্বে পরিচিত। মিরসরাইতে যে ইকোনমিক জোন হচ্ছে তা সেই ক্ষেত্রে চট্টগ্রামকে আরও এগিয়ে রাখবে। আগামী পাঁচ বছরে সব কারখানায় ডিজিটাল প্রযুক্তি কাজে লাগাতে হবে। এসব শিল্প কারখানা যদি ডিজিটালাইজড না হয় তবে কোনো লাভ নেই। কারণ আগামী দিনের বিশ্ব শিল্পায়ন হাঁটছে ডিজিটাল পথে।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, ভৌগোলিক ও অন্যান্য অবস্থানের কারণে চট্টগ্রামকে সহায়তা করা মানে বাংলাদেশকে সহায়তা করা। চট্টগ্রামের উন্নয়ন মানে বাংলাদেশের উন্নয়ন। চট্টগ্রাম ডিজিটাল যুগে পেছনে পড়ে থাকতে পারে না। আগামীতে বন্দরের জাহাজ চলাচল থেকে চসিকের দৈনন্দিন কার্যক্রম সব নির্ভর করবে প্রযুক্তির ওপর। মেয়র দূরদর্শিতার সঙ্গে চট্টগ্রামের ভবিষ্যৎ দেখেছেন। সারা বিশ্বের সঙ্গে চট্টগ্রামের যোগাযোগ রয়েছে। তাই চট্টগ্রাম ডিজিটাল ব্যবসা-বাণিজ্যের কেন্দ্রবিন্দুতে থাকবে। হাইটেক পার্ক এ ক্ষেত্রে সহায়তা হবে।

মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক ও হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম।

আবু আজাদ/এমএমজেড/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]