স্মার্টফোন ব্যবহারে যেসব ভুল করবেন না

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক
তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক
প্রকাশিত: ০২:২৫ পিএম, ২০ জানুয়ারি ২০২২
ছবি: সংগৃহীত

একবিংশ শতাব্দীতে এসে স্মার্টফোন ছাড়া জীবন প্রায় অচল। সর্বক্ষনের সঙ্গী এই গ্যাজেটটির চাহিদা দিন দিন বেড়েই চলেছে। শুধু যোগাযোগের মাধ্যমই নয় আরও অনেক অনেক কাজে ব্যবহার হচ্ছে স্মার্টফোনটি। বাচ্চাদের অনলাইন ক্লাস থেকে আপনার অফিস মিটিং করোনাকালে বিশ্বব্যাপী।

তবে সঠিকভাবে এর ব্যবহার না করেন তাহলে বিপদ ঘনিয়ে আসতে পারে খুব শিগগিরই। স্মার্টফোন ব্যবহারে কিছু ভুল আমরা প্রায়ই করে থাকেন। যেমন ধরুন স্মার্টফোনকে ওভার চার্জ করা, সঙ্গে নিয়ে ঘুমানো কিংবা অ্যাডাপ্টার পরিবর্তন করে চার্জ দেওয়া। এসব ভুলে খুব তাড়াতাড়ি স্মার্টফোনের আয়ু কমে যেতে পারে।

তাই স্মার্টফোন দীর্ঘদিন ভালো রাখতে যে ভুলগুলো করবেন না-

> অনেকেই শার্টের বুক-পকেটে স্মার্টফোন রাখেন। চিকিৎসকরা, শার্টের বুক-পকেটে স্মার্টফোন না রাখার পরামর্শ দিচ্ছেন প্রত্যেক মোবাইল ইউজারদের। মূলত মোবাইল থেকে নির্গত রশ্মি মানুষের শরীরে প্রবেশ করে স্বাস্থ্যগত সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে।

> স্মার্টফোন ওভার চার্জ করা খুবই সাধারণ একটি ব্যাপার। মোবাইল চার্জে বসিয়ে ভুলে যাওয়ার প্রবণতা আছে অনেকের মধ্যেই। তবে এই ভুলে হতে পারে অনেক বড় ক্ষতি। এতে ফোন অতিরিক্ত গরম হয়ে ব্লাস্ট করতে পারে।

> ফোন চার্জে দিয়ে কোনো কাজ করবেন না। অনেকেই ফোন চার্জে দিয়েও ফেসবুক স্ক্রল করতে থাকেন কিংবা গান শোনেন। সম্প্রতি ফোন চার্জে দিয়ে ইয়ারফোন প্লাগ-ইন করার ফলে ইলেকট্রিকশন বা তড়িতাহত হয়ে মৃত্যু হয়েছে বেশ কয়েক জনের। তাই অবিলম্বে এই অভ্যাস ত্যাগ করুন।

> অনেকে বালিশের উপর বা নিচে স্মার্টফোন রেখে চার্জ করে থাকেন। এটি কখনই করবেন না। কারণ চার্জের সময়ে স্মার্টফোন যদি অতিরিক্ত গরম হয়ে যায় তবে, আগুন লাগার সম্ভাবনা দেখা দিতে পারে।

> স্মার্টফোন চার্জ করার জন্য সর্বদা কোম্পানির দেওয়া চার্জার ব্যবহার করুন। আপনার ফোনের চার্জার হারিয়ে গেলে বা নষ্ট হয়ে গেলে, একটি নতুন চার্জার কিনুন। লোকাল এবং নন-ব্র্যান্ডের চার্জার ব্যবহার করে ফোন চার্জ করলে, তা বড়োসড়ো বিপদ ডেকে আনতে পারে।

> রাতে বা দুপুরে মোবাইল ব্যবহার করার পর, সেটিকে বিছানার পাশে বা বালিশের নিচে রেখে ঘুমোনোর অভ্যাস অনেকের আছে। কিন্তু এমনটা করা আপনাদের জন্য বিপদজ্জনক হতে পারে। কারণ ফোন থেকে নির্গত সিগন্যাল মস্তিষ্কে প্রভাব ফেলতে পারে, যা ঘুমকে প্রভাবিত করে। ফলস্বরূপ ইনসোমনিয়া বা অনিদ্রার সমস্যা দেখা দিতে পারে।

> আপনারা যদি স্মার্টফোনকে সরাসরি সূর্যের আলোর নিচে বা গাড়ির ড্যাশবোর্ডের কাছাকাছি কোনো গরম জায়গায় রেখে চার্জ করেন, তবে ওভার হিটিংয়ের সমস্যা বৃদ্ধি পাবে। সাধারণত ০° থেকে ৪৫° সেন্টিগ্রেডের মধ্যে তাপমাত্রা সহন করতে পারে স্মার্টফোন। কিন্তু তার বেশি তাপ লাগলে, ওভারহিট হয়ে ফোন বিস্ফোরিত হতে পরে।

> স্মার্টফোনে কখনই বেশি চাপ দেওয়া উচিত নয়। ধরুন আপনার ব্যাগে কোনো ভারী বস্তুর নীচে স্মার্টফোন রাখলেন। এতে ডিভাইসটি ক্ষতিগ্রস্থ হতে পারে।

> স্মার্টফোনে কোনো সমস্যা দেখা দিলে, দূরবর্তী সার্ভিস সেন্টারে যাওয়া এড়াতে বা ওভার-কস্টিং বাঁচাতে অনেকেই স্থানীয় দোকানে গিয়ে তা সারাই করে থাকেন। এমনটা করা উচিত নয়। এক্ষেত্রে যে সংস্থার স্মার্টফোন কিনছেন, তারই অথরাইজড সার্ভিস সেন্টার থেকে মোবাইল রিপেয়ারিং বা মেরামত করা উচিত। এতে ফোনের সার্কিট্রি এবং অরিজিনাল পার্টসগুলি অক্ষত থাকে।

কেএসকে/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]