৭০০ বছরের পুরোনো যে দুর্গে বিয়ে হবে ক্যাটরিনা-ভিকির

ভ্রমণ ডেস্ক
ভ্রমণ ডেস্ক ভ্রমণ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:০২ পিএম, ০৯ নভেম্বর ২০২১

অবশেষে বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী ক্যাটরিনা কাইফ বিয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। চলতি বছরের ৭ ডিসেম্বর সাতপাকে বাঁধা পড়তে চলেছেন ক্যাটরিনা কাইফ ও ভিকি কৌশল।

তাদের বিয়ে নিয়ে এরই মধ্যে সব জল্পনা কল্পনার শুরু হয়ে বলিপাড়া ও দর্শকদের মনে। জানা গেছে, ক্যাটরিনা-ভিকির বিয়ে হবে ৭০০ বছরের পুরোনো এক দুর্গে। কী আছে ওই দুর্গে?

jagonews24

রাজস্থানের সিক্স সেন্সেস ফোর্ট বারওয়ারাতে। সেখানকার বিখ্যাত রনথাম্ভোর জাতীয় উদ্যান থেকে এই দুর্গের দূরত্ব মাত্র আধা ঘণ্টা।

নামে দুর্গ হলেও বর্তমানে এটি একটি বিলাসবহুল অভিজাত রিসোর্ট। এই দুর্গ বা রিসোর্টের ইতিহাস জানলে চমকে উঠবেন।

সিক্স সেন্স ফোর্ট বারওয়ারার ইতিহাস

এই রিসোর্টটি নির্মিত হয় ৭০০ বছর আগে। রাজস্থানের রাজপুত চৌহানরা এর নির্মাতা। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ব্রিটিশদের হয়ে জয়পুর রাজার সঙ্গে একত্রে যুদ্ধ সাহায্য করেছিলেন বারওয়ারা পরিবারের রাজা মান সিং।

jagonews24

তার বিশ্বস্ততায় খুশি হয়ে রাজা মান সিংকে রাও বাহাদুর উপাধি দেয় ব্রিটিশরা। দুর্গের পরতে পরতে লুকিয়ে আছে ইতিহাসের অজানা কাহিনি।

বর্তমানে রাজবাড়িটি বিলাসবহুল ও অভিজাত রিসোর্ট। একাধারে ৪৮টি ডিজাইনের বেডরুম স্যুট আছে। তার মধ্যে ৫টি স্যুট স্পেশাল ক্যাটাগরিতে পড়ে। এর ঘরগুলো বিশালাকার। আয়তনে ৭৫৩ বর্গ ফিট থেকে ৩ হাজার ১৪ বর্গ ফিট পর্যন্ত।

রিসোর্টের শয়নকক্ষগুলো থেকে পল্লী অঞ্চল স্পষ্টভাবে দেখা যায়। আর পশ্চিম দিকের অংশ থেকে স্পষ্ট দেখা যায় বারওয়ারা গ্রামটিকে। প্রতিটি স্যুটই বাহারি রাজস্থানী সাজে সজ্জিত।

jagonews24

বারওয়ারা দুর্গ-রিসোর্টে আছে ৩টি রেস্তোরা। সেখানকার খাওয়ার স্থানগুলোও দুর্দান্ত। এ ছাড়াও আছে ৩০ হাজার বর্গ ফিট বা ২৮০০ বর্গ মিটারের সিক্স সেন্সেস স্পা ও ফিটনেস সেন্টার। আয়ুর্বেদসহ বিভিন্ন পরিষেবা মেলে। এতে আরও আছে সুইমিং পুল, ব্যাঙ্কোয়েট, লাইফস্টাইল বুটিক ও চিল্ড্রেনস ক্লাব।

সিক্স সেন্সেস ফোর্ট বারওয়ারা একটি শান্ত ও নিরিবিলি রিসোর্ট। অতিথিরা খুব স্বাচ্ছন্দেই সেখানে অবসর কাটাতে পারেন। এর আশেপাশের গ্রামগুলো পর্যটকদের জন্য দর্শনীয় স্থান।

এই দুর্গের সব ধরনের পরিষেবা পেতে হলে খরচ করতেই হবে। সেখানকার সর্বনিম্ন ভাড়া হলো ৬৫ হাজার রুপি। অতিরিক্ত ট্যাক্সও গুনতে হবে। এই টাকায় দুজনের দৈনিক সকালের নাস্তা, দুপুর ও রাতের খাবার খেতে পারবেন। স্পা, আয়ুর্বেদ, জঙ্গল সাফারির জন্য আলাদা খরচ।

jagonews24

কীভাবে যাবেন?

এতো খরচ জানার পরেও যদি রিসোর্টটিতে ঘুরতে যান তাহলে প্রথমে ভারতে যেতে হবে। এরপর বলি জয়পুর এয়ারপোর্টে পৌঁছাবেন। সেখান থেকে রিসোর্টের দূরত্ব মাত্র আড়াই কিলোমিটার। দিল্লি থেকে গাড়িতে করে গেলে ৬-৭ ঘণ্টা সময় লাগবে।

জেএমএস/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]