দক্ষিণ মেরুতে একাই ঘুরে ইতিহাস গড়লেন নারী

ভ্রমণ ডেস্ক
ভ্রমণ ডেস্ক ভ্রমণ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:০৬ পিএম, ১৮ জানুয়ারি ২০২২

দুঃসাহসিক এক অভিযানের মধ্য দিয়ে সবার নজর কেড়েছেন ক্যাপ্টেন প্রীত চান্ডির। তিনি যে দুঃসাহসিক কাজ করেছেন তা ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে। একজন নারী হয়ে দক্ষিণ মেরুর প্রতিকূল পরিবেশে একাকী অভিযান করেছেন তিনি।

প্রীত হলেন একজন ব্রিটিশ-ভারতীয় সেনাকর্তা। ৩২ বছর বয়সী এই ক্যাপ্টেন শুধু দেশরক্ষার কাজেই সম্মান পাননি, বরং দক্ষিণ মেরুতে একাকী ১ হাজার ১২৬ কিলেমিটার পথ অতিক্রম করে ইতিহাস গড়েছেন। টানা ৪০ দিন অসামান্য দক্ষতার সঙ্গে তিনি এই দুঃসাহসিক অভিযান সমাপ্ত করেছেন।

jagonews24

ভারতীয় বংশোদ্ভূত এই শিখ তরুণী স্কি দিয়ে দক্ষিণ মেরুতে একাকী অভিযান চালিয়েছেন। তার রোমাঞ্চকর অভিযানের গল্প নিজের ব্লগে তুলে ধরেছেন এই সাহসী নারী। যদিও তার এই অভিযান সাম্প্রতিক না হলেও, ঘটনাটি তিনি জানুয়ারি মাসে সবার সমানে তুলে ধরেছেন।

একজন সেনাকর্তা হওয়ার পাশাপাশি একাধারে তিনি নর্ডিক স্কিয়ার, আল্ট্রা ম্যারাথন দৌড়বিদ, ফিজিওথেরাপিস্ট ও দুরন্ত ক্রীড়াবিদ। ক্যাপ্টেন প্রীত চান্ডির আসল নালো হল হরপ্রীত সিং। দক্ষিণ মেরুতে একাকী অভিযানের পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে গণমাধ্যম পর্যন্ত সর্বত্রই তিনি পোলার প্রীত নামেই পরিচিতি লাভ করেছেন। বর্তমান প্রজন্মের কাছে আইকন হয়ে উঠেছেন এই নারী।

jagonews24

নতুন বছরের ৩ জানুয়ারি ভয়েসমেইলের মাধ্যমে তিনি অভিযানের পূর্ণাঙ্গ বর্ণনা ও সাফল্যের কথা জানিয়েছেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল একটি ছবিতে ১ হাজার ১২৬ কিলোমিটার যাত্রা পথে তাকে আন্টার্কটিকার হারকিউলিস ইনলেট থেকে দক্ষিণ মেরুতে যেতে দেখা যায়।

সঙ্গে ছিলো ৯০ কেজি ওজনের একটি স্লেজ। যাতে আছে তার খাবার, পোশাকসহ আরও দরকারি সামগ্রী। বিশ্বের সবচেয়ে শীতলতম, শুষ্কতম ও বাতাসহীন মহাদেশে পৌঁছানো কারও পক্ষেই সহজতর নয়।

jagonews24

মাইনাস ৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রার সঙ্গে প্রতি মুহূর্তে লড়াই করে চলেন এই নারী। দক্ষিণ মেরুই তার প্রথম অভিযান নয়, এর আগে মেক্সিকো, আল্পস, কেনিয়া, পেরু, আইসল্যান্ড, বলিভিয়া, নেপাল, মরক্কোর মতো জায়গায় হাইকিং ও অভিযান চালিয়েছেন তিনি।

২০ বছর বয়সে তিনি প্রথম হাফ-ম্যারাথন শুরু করেছিলেন। তারপর আর পেছনে ফিরে তাকাননি। প্রতিনিয়ত নতুন চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়েছেন নিজের সাহস আর দক্ষতার সঙ্গে।

jagonews24

দক্ষিণ মেরুতে একাকী অভিযানের মধ্য দিয়ে তিনি নারী ও বিশ্বকে বিশেষ বার্তা দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, নারী-পুরুষ কিংবা জাতি নির্বিশেষ কোনো কাজই কঠিন নয়।

সূত্র: সিএনএন/টাইমস অব ইন্ডিয়া

জেএমএস/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]